Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » কাবুলে ড্রোন হামলায় সাজা পাবে না মার্কিন সেনারা




আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে মার্কিন ড্রোন হামলার ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্রের কোনো সেনাসদস্য বা কর্মকর্তাকে সাজা পেতে হবে না বলে জানিয়েছে পেন্টাগন। হামলার ঘটনার একটি উচ্চ পর্যায়ের পর্যালোচনা যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষামন্ত্রীর কাছে পৌছানোর পর এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন দপ্তরটির মুখপাত্র। এদিকে আফগানিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বের সব দেশের সাথেই সম্পর্কের উন্নয়ন করতে চায় তালেবান সরকার। গেল আগস্টে আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ তালেবানের হাতে যাওয়ার পর দেশটির নাগরিকরা দেশ ছাড়তে বিমানবন্দরে জড়ো হন, সেসময় এলাকাটিতে আত্মঘাতী হামলা চালিয়ে ১৭০ বেসামরিক নাগরিকসহ ১৩ মার্কিন সেনা নিহত হয়। এ ঘটনায় দায় স্বীকার করে আইএস। ওই হামলার পরপরই আইএসের আত্মঘাতী বোমা হামলাকারী সন্দেহে একটি গাড়িতে ড্রোন হামলা চালায় মার্কিন গোয়েন্দারা। এতে গাড়িটিতে থাকা তিন প্রাপ্তবয়স্ক ও সাত শিশুসহ ১০ বেসামরিক নাগরিক নিহত হন। তবে এ হামলায় কোনো সাজা পেতে হচ্ছে না যুক্তরাষ্ট্রের কোনো সেনাসদস্য কিংবা কর্মকর্তাকে। স্থানীয় সময় সোমবার দেশটির প্রতিরক্ষা দপ্তর পেন্টাগনের মুখপাত্র জন কারবি এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান। পেন্টাগনের মুখপাত্র জন কারবি বলেন, কাবুলে ড্রোন হামলার ঘটনায় কোনো ধরনের অবহেলা করা হয়নি। তাৎক্ষণিক সিদ্ধান্ত নিতেও কোনো ভুল হয়নি। হামলার বিষয়ে একটি উচ্চ পর্যায়ের পর্যালোচনা প্রতিরক্ষামন্ত্রীর কাছে পৌঁছানোর পর এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। আরও পড়ুন: কাবুলে শিয়া এলাকায় বোমা বিস্ফোরণ, নিহত ৬ এর আগে ঘটনার তদন্ত প্রতিবেদনে মার্কিন বিমানবাহিনীর মহাপরিদর্শক লেফটেন্যান্ট জেনারেল সামি ডি সেইড বলেন, তদন্তে যুদ্ধসংক্রান্ত কিংবা অন্য কোনো আইন লঙ্ঘনের প্রমাণ পাওয়া যায়নি। যদিও ড্রোন হামলাটিকে অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড না বলে দু:খজনক ঘটনা বলেছেন তিনি। এদিকে কাবুলে এক সাক্ষাৎকারে আফগানিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির খান মুত্তাকি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বের সব দেশের সাথেই সম্পর্কের উন্নয়ন করতে চায় তালেবান সরকার। পাশাপাশি দেশটির নারীদের শিক্ষা ও চাকরির ক্ষেত্রে সুযোগ দেয়া হবে বলেও জানান তিনি। আফগানিস্তান ও তালেবানের প্রতি মার্কিন নীতি একসময় পরিবর্তন হবে বলেও আশা প্রকাশ করেন মুত্তাকি।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply