Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » হাঙ্গেরি প্রেসিডেন্টের মুসলিমবিদ্বেষী বক্তব্য




হাঙ্গেরিয়ান প্রেসিডেন্ট ভিক্টর ওরব্যান ও তার মুখপাত্রের মুসলিমবিদ্বেষী মন্তব্যের নিন্দা জানিয়েছেন বসনিয়ার কর্মকর্তা ও ধর্মীয় নেতারা। জনসংখ্যার বড় অংশ মুসলমান হওয়ায় বসনিয়া ও হার্জেগভিনার ইউরোপীয় ইউনিয়নের অঙ্গীভূত হওয়ার ক্ষেত্রে চ্যালেঞ্জিং হবে বলে মন্তব্য করেছিলেন হাঙ্গেরিয়ান নেতা। এক টুইটবার্তায় ওরব্যানের মুখপাত্র জোলটন কোভ্যাকস বলেন, ২০ লাখ মুসলমান নিয়ে একটি দেশ কীভাবে ইউরোপের সঙ্গে অঙ্গীভূত হবে। মঙ্গলবার বুদাপেস্টে দেওয়া এক দীর্ঘ বক্তৃতায় ডানপন্থী জনপ্রিয়তাবাদী ওরব্যান বলেন, ইউরোপীয় ইউনিয়নের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার বসনিয়ার উদ্যোগকে সমর্থন জানায় হাঙ্গেরি। ইউরোপীয় ইউনিয়নের ওপর ভর করে থাকা ব্যাপক অবসাদ দূর করতে হাঙ্গেরিকে অনেক চেষ্টা করতে হয়েছে। তিনি আরও বলেন, ইউরোপীয় মহান নেতাদের আমি যথাসাধ্য বোঝানোর চেষ্টা করেছি যে বলকানরা সম্ভবত হাঙ্গেরির চেয়ে তাদের থেকে আরও দূরত্বে চলে যাবে। কিন্তু কীভাবে আমরা একটি রাষ্ট্রের নিরাপত্তার ব্যবস্থা করব, যেখান ২০ লাখ মুসলমান তাদের নিরাপত্তার জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু। জবাবে বুধবার (২২ ডিসেম্বর) তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে বসনিয়া। সারাজেভোতে ওরব্যানের পরিকল্পিত সফর নিষিদ্ধ করতেও অনুরোধ জানিয়েছে বসনিয়ার বেশ কয়েকটি রাজনৈতিক দল ও ইসলামপন্থীরা। তারা হাঙ্গেরি প্রেসিডেন্টের বক্তব্যকে ‘মুসলিমবিদ্বেষী ও বর্ণবাদী’ বলে আখ্যায়িত করেছে। আরও পড়ুন: হাঙ্গেরিতে অভিবাসী বহনকারী গাড়ি উল্টে নিহত ৭ বসনিয়ার মুসলিম কমিউনিটির নেতা গ্র্যান্ড মুফতি কাভাজোভিক বলেন, সংযুক্ত ইউরোপ যে ভিত্তির ওপর দাঁড়িয়ে আছে, তার মতাদর্শ যদি হয় এমন, তবে এটা আমাদের সেই সময়ে ফিরিয়ে নিয়ে যাচ্ছে, যখন ইউরোপীয় ঐক্য একই রকম নাৎসি, সহিংসত, বর্ণবাদী ও গণহত্যার মতাদর্শের ওপর ভিত্তি করে গড়ে ওঠেছিল। এই গণহত্যার মতাদর্শই হলোকাস্টসহ অন্যান্য বিভৎস অপরাধ সংঘটিত করেছিল।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply