Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » রুদ্ধশ্বাস জয়ে হোয়াইটওয়াশ এড়াল শ্রীলঙ্কা




রুদ্ধশ্বাস জয়ে হোয়াইটওয়াশ এড়াল শ্রীলঙ্কা

অবশেষে জয়ের দেখা পেল শ্রীলঙ্কা! সেইসঙ্গে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে হোয়াইটওয়াশের লজ্জা থেকেও বাঁচল। রোববার কুশল মেন্ডিসের ব্যাটে ভর করে পাঁচ ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের শেষ ম্যাচে এক বল বাকি থাকতে রুদ্ধশ্বাস ম্যাচ জিতে ৪-১ এ মান বাঁচাল লঙ্কানরা। এদিন দুপুরে মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়াকে ৫ উইকেটে হারাল লঙ্কানরা। অজিদের দেয়া ১৫৫ রানের লক্ষ্যে শ্রীলঙ্কা পৌঁছে যায় ১ বল বাকি থাকতে। ফলে পাঁচ ম্যাচের সিরিজে হোয়াইটওয়াশের হাত থেকে বাঁচল দাসুন শানাকারা। অবশ্য জয়ের জন্য রান তাড়া করতে নেমে দলীয় ২৩ রানেই ওপেনার পাথুম নিসাঙ্কাকে হারায় শ্রীলঙ্কা। এরপর তিনে নামা কামিল মিশারা ৩ বলে মাত্র ১ রান করে সাজঘরে ফিরলে ২৪ রানেই দুই ব্যাটারকে হারিয়ে বিপদে পড়ে সফরকারীরা। তবে এরপর লঙ্কান ইনিংসে স্থিতিশীলতা আনেন চারিথ আসালাঙ্কা ও কুশল মেন্ডিস জুটি। ৩০ রানের জুটি গড়েন এই দুজনে। এসময় আসালাঙ্কা ২০ রান করে সাজঘরে ফিরতেই আবারো হোঁচট খায় লঙ্কানরা। জেনিথ লিয়ানাগে রানআউট হন ব্যক্তিগত ৮ রানেই। যাতে নয় ওভারে লঙ্কানদের সংগ্রহ দাড়ায় ৪ উইকেটে ৭১। এ সময় কুশল মেন্ডিসের সঙ্গে জুটি বাধেন অধিনায়ক দাসুন শানাকা। পঞ্চম উইকেটে ৮৩ রান যোগ করে জয়ের দ্বারপ্রান্তেই পৌঁছে যান এ দুজনে। তবে জয় থেকে যখন দল মাত্র ১ রান দূরে, ঠিক তখনই আউট হয়ে যান শানাকা। তার আগে অধিনায়কের ব্যাট থেকে আসে ৩৫ রান। অবশ্য ৫৮ বলে ৬৯ রান করে অপরাজিত থেকে দলকে কাঙ্ক্ষিত জয় এনে দেন‌ মেন্ডিসই। এর আগে টস হেরে আগে ব্যাটিংয়ে নেমে ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ১৫৪ রান জড়ো করে অজিরা। উইকেটরক্ষক-ব্যাটার ম্যাথু ওয়েড ২৭ বলে অপরাজিত ৪৩ রানের এক ঝোড়ো ইনিংস খেলেন। গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ২১ বলে ২৯ করে তাকে যোগ্য সঙ্গ দেন। এছাড়া জস ইংলিশ করেন ২৩ রান। লঙ্কার পক্ষে লাহিরু কুমারা ও দুশমন্থা চামিরা ২টি করে উইকেট নেন। ৫৮ বলে অপরাজিত ৬৯ রান করায় ম্যাচসেরা নির্বাচিত হন কুশল মেন্ডিস। তবে সিরিজের সেরা নির্বাচিত হয়েছেন অজি অলরাউন্ডার গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। প্রসঙ্গত, আর মাত্র কয়েকটা দিন পরেই ভারতীয় বাগদত্তা ভিনি রমনের সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধতে চলেছেন এই অস্ট্রেলীয় মারকুটে অলরাউন্ডার। সিরিজে ব্যাট হাতে ১৩৮ রান করার পাশাপাশি বল হাতেও ছিলেন দারুণ ছন্দে। যদিও তিন ম্যাচে বল করে একটি উইকেট পান ম্যাক্সওয়েল।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply