Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » ইউক্রেন যুদ্ধ আরও ১০ বছর চলবে!




যুক্তরাষ্ট্র ও উত্তর আটলান্টিক চুক্তি সংস্থা (ন্যাটো) ইউক্রেনকে আরও ১০ বছরের জন্য যুদ্ধে উৎসাহিত করছে। সোমবার (১৮ এপ্রিল) চীনের রাষ্ট্রীয় সংবাদ মাধ্যম গ্লোবাল টাইমসের সম্পাদকীয় পাতায় এ অভিযোগ করা হয়। উপ-সম্পাদকীয়তে (অপ-এড) বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটো আর্থিক ও সামরিক সহায়তা দিয়ে ইউক্রেন যুদ্ধকে দীর্ঘস্থায়ী করতে চায়। তারা ইউক্রেনকে আরও ১০ বছরের যুদ্ধে ঠেলে দিচ্ছে। এটি প্রহসন ছাড়া কিছু নয়। অপ-এডে আরও বলা হয়েছে, সংঘাত কতদিন চলবে? ইউক্রেন কত ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করতে পারে এবং রাশিয়ার বিরুদ্ধে তারা লড়াই করতে কতটা সমর্থ, তা নির্ভর করছে যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটো ইউক্রেনকে কতবেশি অস্ত্র সরবরাহ করবে তার ওপর। লেখাটি প্রকাশের কয়েকদিন আগে রাশিয়ার সঙ্গে চলমান যুদ্ধের ব্যাপারে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি বলেছিলেন, তার দেশ আরও এক দশক যুদ্ধে চালিয়ে যেতে পারে। মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে জেলেনস্কি বলেন, আমরা দেশকে স্বাধীন করতে চাই। আমাদের যা ছিল তা ফিরে পেতে চাই। আমাদের যা কিছু আছে তা নিয়েই রাশিয়ার সঙ্গে আরও ১০ বছর যুদ্ধ করতে পারি। আমরা সে পথেই যেতে পারি। আরও পড়ুন: ইউক্রেন যুদ্ধে কার লাভ, কার ক্ষতি সাক্ষাৎকারে জেলেনস্কি আরও বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র ও পশ্চিমা দেশগুলোর কাছে আরও সামরিক অস্ত্রশস্ত্র চাওয়া হয়েছে। আজ বা কাল হোক, যুদ্ধ চালাতে সরঞ্জাম লাগবেই। কিছু দেশ কোনো সহায়তা করছে না। কিন্তু তারা সহায়তা করতে পারে। নাহলে আমরা আমাদের দেশকে হারাব।’ জেলেনস্কির এসব মন্তব্যে গ্লোবাল টাইমস ইউরোপীয় ইউনিয়নকে (ইইউ) প্রশ্ন ছুড়ে দিয়েছে। সংবাদ মাধ্যমটির প্রশ্ন, আসলেই কি তারা (ইইউ) নিজেদের ভূখণ্ডে আরও এক দশক যুদ্ধ দেখতে চায়? গ্লোবাল টাইমস লিখেছে, ভাবুন তো ইউরোপে কী ঘটতে পারে? এটি রক্তাক্ত দশকের দিকে যাবে। এরপর যুদ্ধে জর্জরিত ইউরোপ পুরোপুরি তার নিরাপত্তা ও স্বায়ত্তশাসন হারাবে এবং যুক্তরাষ্ট্রের ছায়াতলে আশ্রয় নেবে। যুদ্ধ ১০ বছর চললে জ্বালানি, খাদ্য, শরণার্থী ও মুদ্রাস্ফীতি সংকট বাড়াবে। সামাজিক অস্থিরতা বাড়বে। যুক্তরাষ্ট্রের সমালোচনা করে অপ-এডটিতে বলা হয়েছে, ইউক্রেন যুদ্ধে সুফল ভোগ করছে যুক্তরাষ্ট্র। ইউরোপকে নিয়ন্ত্রণ, ন্যাটোকে ঐক্যবদ্ধ, রাশিয়াকে অপদস্থ ও ভবিষ্যতে চীনকে ঠেকাতে এই যুদ্ধ যুক্তরাষ্ট্রকে শক্তি যোগাবে। ইউক্রেন চলমান যুদ্ধের মধ্যে চীন দুই দেশকে (রাশিয়া-ইউক্রেন) শান্তি আলোচনার আহ্বান জানিয়ে আসছে এবং এই যুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান নিয়ে নিন্দা জানিয়েছে।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply