Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » এখনও পুরো ইউক্রেনের নিয়ন্ত্রণ চান পুতিন: ন্যাটো




এখনও পুরো ইউক্রেনের নিয়ন্ত্রণ চান পুতিন: ন্যাটো ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভে থেকে সরিয়ে পূর্ব-ইউক্রেনে মনোযোগ দিচ্ছে রাশিয়া। তবে পশ্চিমা সামরিক জোট ন্যাটোর প্রধান জেন্স স্টলটেনবার্গ বলেছেন, এখনও পুরো ইউক্রেন নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার কথা ভাবছেন প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। সিএনএন। বুধবার (৬ এপ্রিল) বিকেলে ব্রাসেলসে এক সংবাদ সম্মেল

নে স্টলটেনবার্গ বলেন, ‘পুতিন পুরো ইউক্রেন দখলের লক্ষ্য বদলেছেন— এমন ইঙ্গিত দেখা যাচ্ছে না। ফলে যুদ্ধ কয়েক বছর স্থায়ী হতে পারে।’ ন্যাটো মহাসচিব বলেন, ’পুরো ইউক্রেন দখলে প্রেসিডেন্ট পুতিনের যে উচ্চাকাঙ্ক্ষা ছিল, তা বদলেছে এমন কোনো নমুনা এখন পর্যন্ত আমরা দেখিনি। এছাড়া তিনি আন্তর্জাতিক আইন নতুন করে লিখতে চান।’ আরও পড়ুন : পুতিনের হুংকারে যে প্রস্তুতি নিচ্ছে ন্যাটো তিনি আরও বলেন, ’ইউক্রেনকে ন্যাটোর সমর্থন জরুরি। এছাড়া রাশিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা বহাল রাখা এবং জোটের প্রতিরক্ষা ও প্রতিরোধ ক্ষমতা শক্তিশালী করতে হবে আমাদের।’ স্টলটেনবার্গ বলেন, ‘এ যুদ্ধ দীর্ঘদিন স্থায়ী হতে পারে। আমাদের এর জন্য প্রস্তুতি নিতে হবে।’ এর আগে ইউক্রেনে চলমান যুদ্ধে রাশিয়া আরও আগ্রাসী ও হিংসাত্মক হয়ে উঠতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন ন্যাটোপ্রধান জেন্স স্টলটেনবার্গ। মঙ্গলবার (৫ এপ্রিল) এক বিবৃতিতে স্টলটেনবার্গ বলেন, ইউক্রেনের পূর্ব ও দক্ষিণাঞ্চলে রুশ বাহিনী আরও বিধ্বংসী হয়ে উঠবে। রুশ হামলা ঠেকাতে ইউক্রেনকে আরও সাঁজোয়া ট্যাঙ্ক, যুদ্ধবিমানবিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্রসহ ভারী সমরাস্ত্র জোগান দেওয়ার পরিকল্পনার কথা জানান স্টলটেনবার্গ। এ সময় রুশ বাহিনীর আগ্রাসনের কারণে মস্কোর সঙ্গে সব রকমের আলোচনার পথ বন্ধ হয়ে যাচ্ছে বলেও মন্তব্য করেন নরওয়ের এই সামরিক বিশেষজ্ঞ। আরও পড়ুন : রাশিয়ার সঙ্গে পশ্চিমাদের নতুন সংকট! ইউক্রেনে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি শুরু হওয়া রাশিয়ার সামরিক অভিযান ৪৩ দিনে গড়িয়েছে। রুশ হামলার মুখে ইউক্রেন থেকে লাখ লাখ মানুষ পালিয়েছে। লড়াই বন্ধে দুই দেশের মধ্যে কয়েক দফা আলোচনা হলেও এখনও কোনো সমাধান আসেনি। সম্প্রতি রাশিয়া তাদের লক্ষ্য পরিবর্তনের কথা জানায়। এখন মস্কো ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলে সামরিক অভিযান জোরদার করার পরিকল্পনায় এগোচ্ছে।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply