Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » ঘূর্ণিঝড় ‘অশনি’র শঙ্কায় ভারতে বিশেষ সতর্কতা




ভারতে ফের প্রবল ঘূর্ণিঝড়ের আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। এবার দুশ্চিন্তা বাড়িয়ে ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘‌অশনি’। পশ্চিমবঙ্গের আলিপুর আবহাওয়া দপ্তরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, ভারতের দক্ষিণ আন্দামান সাগর এবং দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপ তৈরি হয়েছে। আজ শনিবার সেটি আরও শক্তি বাড়িয়ে উত্তর-পূর্বে অগ্রসর হবে। এ ঘূর্ণিঝড়ের আশঙ্কায় এরই মধ্যে ভারতের উপকূলবর্তী বিভিন্ন এলাকায় বিশেষ সতর্কতা জারি করা হয়েছে। আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, আগামীকাল রোববার সন্ধ্যার দিকে নিম্নচাপটি ঘূর্ণিঝড়ের আকার ধারণ করতে পারে। এদিকে, উত্তর-পশ্চিম দিকে ক্রমশ অগ্রসর হয়ে আগামী মঙ্গলবার ঘূর্ণিঝড় অশনি ভারতের উত্তর অন্ধ্র–ওড়িশা উপকূলে আছড়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। অশনি’র প্রভাবে ভারী বৃষ্টিপাতের আশঙ্কা রয়েছে। সেইসঙ্গে বইতে পারে ঝোড়ো হাওয়া। এরই মধ্যে সমুদ্র তীরবর্তী এলাকার বাসিন্দাদের জন্য বিশেষ সতর্কতা জারি করা হয়েছে। আগামী মঙ্গলবার থেকে মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যাতায়াতের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে আবহাওয়া অফিস। এদিকে ঘূর্ণিঝড় ‘অশনি’ মোকাবিলায় তৎপর পশ্চিমবঙ্গের মুখ্য প্রশাসনিক কার্যালয় নবান্ন। সুন্দরবন, কাকদ্বীপে আগাম সতর্কতা জারি করা হয়েছে। এদিকে, ওড়িশা ও অন্ধ্রপ্রদেশে ঘূর্ণিঝড় অশনি’র জন্য বাড়তি সতর্কতা নেওয়া হয়েছে। ওড়িশার ১৮টি জেলায় সতর্কতা জারি করা হয়েছে। খুরদা রোড, কটক, গঞ্জাম, গজপতি, পুরী, জগৎ সিং পুর, কেন্দ্রাপাড়া, জজপুর, ভদ্রক, বালাসোর, নয়াগড়, ময়ূরভঞ্জ, কেওনঝর, ঢেঙ্কানল, মালকানগিরি, কোরাপুট, রায়গড় ও কান্ধামালে সতর্কতা জারি করা হয়েছে। সেখানে খোলা হবে কন্ট্রোলরুম। সমুদ্র তীরবর্তী এলাকার বাসিন্দাদের অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার কাজও শুরু হয়েছে। এরই মধ্যে ছয় উপকূলবর্তী জেলায় স্যাটেলাইট ফোন ও ডিজিটাল মোবাইল রেডিও কমিউনিকেশন সিস্টেমের ব্যবস্থাও করা হয়েছে। অন্ধ্রপ্রদেশেও নানা সতর্কতামূলক পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। তবে, ঘূর্ণিঝড় শুরুতে কোথায় আছড়ে পড়তে পারে, তা এখনও স্পষ্ট নয়। এ ঘূর্ণিঝড় পশ্চিমবাংলায় কতটা প্রভাব ফেলবে, বা আদৌ প্রভাব ফেলবে কি না, তা স্পষ্ট জানায়নি ভারতের আবহাওয়া অফিস। এদিকে, ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে এ মুহূর্তে বঙ্গোপসাগরের তাপমাত্রার রদবদল হচ্ছে। ফলে শেষপর্যন্ত এটি উপকূলে না-ও আছড়ে পড়তে পারে। ঘূর্ণিঝড় সমুদ্রের মধ্যেই শক্তি হারিয়ে ফেলতে পারে






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply