Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » তালেবান ভয়ে মুখ ঢেকে টিভি পর্দায় নারী সাংবাদিকরা




তালেবান ভয়ে মুখ ঢেকে টিভি পর্দায় নারী সাংবাদিকরা আফগানিস্তানে তালেবানের আদেশ জারির পর দেশটির নারী সাংবাদিক ও উপস্থাপকরা মুখ ঢেকেই টেলিভিশনের পর্দায় হাজির হচ্ছেন। ক্ষমতা গ্রহণের প্রায় ৯ মাস পর গত বৃহস্পতিবার (১৯ মে) নারী সাংবাদিকদের জন্য মুখ ঢাকার নির্দেশনা জারি করে তালেবান সরকার।

কিন্তু প্রথমদিন খুব কম সংখ্যক নারীই নির্দেশনা মেনে সংবাদ পাঠ করেন। দুইদিন পরই দৃশ্য একেবারের বদলে যায়। রোববারই (২২ মে) বেশিরভাগ নারী উপস্থাপককেই দেখা যায় নেকাবে ‍মুখ ঢাকা। গত বছরের আগস্ট মাসে দ্বিতীয়বারের মতো আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখল করে তালেবান। এরপর নারীদের জীবন একের পর এক কার্যত নিষেধাজ্ঞার ঘেরাটোপে বেঁধে ফেলেছে অতি রক্ষণশীল গোষ্ঠীটির সরকার। নিষেধাজ্ঞার তালিকায় সর্বশেষ সংযোজন টেলিভিশনের পর্দাতেও নারীদের মুখ ঢেকে হাজির হওয়ার নির্দেশ। জনসম্মুখে নারীদের মুখ ঢেকে চলার নির্দেশ আগেই দেওয়া হয়েছিল। শনিবার থেকে টেলিভিশনের পর্দায় নারী সাংবাদিকদের মুখ ঢেকে আসার নির্দেশ কার্যকর করার কথা বলা হয়। কিন্তু এর প্রতিবাদে কয়েকজন নারী উপস্থাপক মুখ খুলেই টিভিতে সংবাদ পাঠ করেন। আরও পড়ুন : একাধিক বিয়ে না করার পরামর্শ তালেবানের কিন্তু নারী কর্মীরা প্রতিবাদ করতে চাইলেও টেলিভিশন মালিকদের উপর চাপ থাকায় শেষ পর্যন্ত তাদেরকে তালেবানের আদেশ মেনে মুখ ঢেকেই টিভি পর্দায় উপস্থিত হতে হয়। তালেবান কর্মকর্তারা ঘোষণা দেন, তারা ওই নারী সাংবাদিকদের ম্যানেজার ও অভিভাবকের সঙ্গে কথা বলে তাদের শাস্তি দেওয়ার ব্যবস্থা করবে। বিবিসি জানায়, এই ঘোষণার পরদিন রোববার (২২ মে) টোলো নিউজ, আরিয়ানা টেলিভিশন, সাশাদ টিভি ও ওয়ান টিভির মতো টেলিভিশন চ্যানেলগুলোর নারী উপস্থাপকদের মুখ ঢেকে সম্প্রচারে আসতে দেখা যায়। টোলো নিউজের উপস্থাপক ফরিদা সিয়াল বিবিসিকে বলেন, ‘ঠিক আছে, আমরা মুসলমান, আমরা হিজাব পরছি, আমরা আমাদের চুল ঢেকে রাখছি। কিন্তু একজন উপস্থাপকের জন্য দুই/তিন ঘণ্টা টানা মুখ ঢেকে রাখা এবং সেভাবেই কথা বলে যাওয়া খুবই কঠিন।’ এই নির্দেশ প্রত্যাহারে তালেবান প্রশাসনকে চাপ দিতে তিনি আন্তর্জাতিক মহলের সাহায্য চেয়েছেন। তিনি বলেন, ‘তারা নারীদেরকে সামাজিক ও রাজনৈতিক জীবন থেকে সরিয়ে ফেলতে চাইছে।’ আরও পড়ুন : মানবাধিকার কমিশন বিলুপ্ত করল তালেবান টোলো নিউজের আরেক উপস্থাপক সোনিয়া নিয়াজি বলেন, ‘আমরা প্রতিবাদ করেছি এবং মুখ ঢেকে রাখার বিপক্ষে ছিলাম। কিন্তু মালিকপক্ষকে চাপ দেওয়া হয়েছে। ফলে তারা আমাদের বলেছিল, যদি নারী উপস্থাপকরা মুখ ঢেকে রাখার আদেশ না মানে, তবে তাদের অবশ্যই চাকরি পরিবর্তন করা উচিত, নতুবা তাদের চাকরিচ্যুত করা হবে।’ টোলো নিউজের উপপরিচালক ফেসবুকে এক পোস্টে লেখেন, ‘আমরা আজ গভীর শোকের মধ্যে আছি।’ মুখ ঢেকে পর্দায় এলেও শেষ পর্যন্ত নারী সাংবাদিকরা রক্ষা পাবেন কিনা তা নিয়ে তাদের মধ্যে সংশয় দেখা দিয়েছে। টেলিভিশনের একজন জ্যেষ্ঠ নির্বাহী বলেন, অনেক নারী উপস্থাপকের আশঙ্কা, তালেবান হয়ত এরপর তাদের টেলিভিশনের পর্দায় হাজির হওয়াই বন্ধ করে দেবে।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply