Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » এক দিনেই ইউক্রেনের ২০০ সেনাকে হত্যা!




ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে ইউক্রেনের ১৭টি সামরিক স্থাপনায় হামলা চালিয়েছে রাশিয়া। এতে এক দিনেই দুই শতাধিক ইউক্রেনীয় সেনা নিহত হয়েছে বলে দাবি করেছে রাশিয়ার সশস্ত্র বাহিনী। এ ছাড়াও শনিবারের (৩০ এপ্রিল) ওই হামলায় ইউক্রেনীয় সেনাবাহিনীর একটি কমান্ড পোস্ট এবং রকেট ও আর্টিলারি সংরক্ষণের জন্য ব্যবহৃত একটি গুদাম ধ্বংস করার কথা জানিয়েছে রুশ সেনারা। খবর আলজাজিরার। রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক অনলাইন পোস্টে বলা হয়, রুশ বিমান বাহিনীর হামলায় ইউক্রেনের দুই শতাধিক সেনা সদস্য নিহত হওয়ার পাশাপাশি তাদের ব্যবহৃত ২৩টি সাঁজোয়া যান ধ্বংস হয়েছে। এদিকে রাশিয়ার ব্রিয়ানসক অঞ্চলে আবারও বিমান হামলা চালিয়েছে ইউক্রেন। স্থানীয় গভর্নর আলেকসান্দার বোগোমাজ এ অভিযোগ করেছেন। আরও পড়ুন: গুতেরেসকে ‘বুড়ো আঙুল’ দেখালেন পুতিন: কিয়েভ মেয়র ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে বলা হয়, ইউক্রেনের সঙ্গে রুশ সীমান্ত অঞ্চলের একটি তেল শোধনাগারে দুটি গোলা আঘাত হানে। তবে ইউক্রেনের যুদ্ধবিমানকে প্রতিহত করে রাশিয়ার আকাশ প্রতিরক্ষা ইউনিট। রুশ সংবাদমাধ্যম আরটির জানায়, ইউক্রেনের বিমান রাশিয়ার আকাশসীমায় প্রবেশের চেষ্টা করছিল। রাশিয়ার প্রতিরোধের মুখেও দুটি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে ইউক্রেনের সামরিক বিমান। বিস্ফোরণের কারণে তেল শোধনাগারের বিভিন্ন অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। কিন্তু কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের দাবি, ব্রিয়ানসক, প্রতিবেশী বেলগোরোদ ও কুরস্ক অঞ্চলে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালাচ্ছে ইউক্রেন। তারা মূলত রাশিয়ার তেল শোধনাগার ও অন্য অবকাঠামোগুলোকে লক্ষ্যবস্তু বানাচ্ছে। এর আগে আবাসিক এলাকায়ও হামলা চালায় ইউক্রেনীয় সেনারা। এ ধরনের হামলা অব্যাহত থাকলে কিয়েভের ‘সিদ্ধান্ত-নির্ধারণকারী’ কেন্দ্রগুলোকে লক্ষ্যবস্তু বানানোর হুঁশিয়ারি দিয়েছে মস্কো। জাতিসংঘ মহাসচিবের সফরের মধ্যেও কিয়েভে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে রুশ বাহিনী। একের পর এক রকেট হামলায় কিয়েভের শেভচেঙ্কো জেলায় বিভিন্ন স্থাপনা পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে গেছে। হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। এ হামলার মধ্য দিয়ে জাতিসংঘকে অমান্য করার অভিযোগ তুলেছেন তিনি। আরও পড়ুন: যুক্তরাষ্ট্রের কাছে নিজেকেই বন্ধক রাখছে ইউক্রেন অন্যদিকে, যুদ্ধ দীর্ঘস্থায়ী হলেও ইউক্রেনকে সহায়তা দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে পশ্চিমা সামরিক জোট ন্যাটো। বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসে এক সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন ন্যাটো মহাসচিব। উত্তেজনার মধ্যেই ন্যাটোতে সুইডেন-ফিনল্যান্ডের যোগ দেয়ার প্রক্রিয়া খুব শিগগিরই শুরু হতে পারে বলেও আভাস দেন তিনি






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply