Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » পশ্চিমে রফতানি বন্ধের হুমকি পুতিনের




পশ্চিমা দেশগুলোর উদ্দেশে নোটিশ জারি করেছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। তিনি বলেছেন, যেকোনো সময় পণ্য রফতানি বন্ধ করতে পারে রাশিয়া। শুধু তাই নয়, পশ্চিমা কোম্পানিগুলোর সঙ্গে করা চুক্তিও ছিন্ন করা হতে পারে। ইউক্রেনে সামরিক অভিযানের পরিপ্রেক্ষিত্রে যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্র দেশগুলোর নিষেধাজ্ঞার জবাবে এটাই মস্কোর সবচেয়ে কঠিন হুঁশিয়ারি বলে মনে করা হচ্ছে। খবর রয়টার্সের। গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে সামরিক অভিযান শুরু করে রাশিয়া। এর প্রতিক্রিয়ায় যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমা দেশগুলো রাশিয়ার ব্যবসায়ী, সরকারি কর্মকর্তা ও মন্ত্রীদের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ অব্যাহত রেখেছে। পশ্চিমাদের এ পদক্ষেপকে অবৈধ আখ্যা দিয়ে আসছেন পুতিন। পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞার জবাবে রাশিয়া কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করবে বলে হুমকি দিয়ে আসছেন পুতিন। ইতোমধ্যে পোল্যান্ড ও বুলগেরিয়ায় গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করে দিয়েছেন। এরপরও নতুন করে রাশিয়ার তেল, ব্যাংক ও গণমাধ্যমের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের প্রস্তুতি নিচ্ছে ইউরোপ। আরও পড়ুন : রাশিয়া থেকে তেল আমদানি নিয়ে বিভক্ত ইইউ মস্কোর ওপর নতুন করে নিষেধাজ্ঞার আগেই রফতানি বন্ধ করে দেওয়ার হুমকি দিলেন পুতিন। শুধু তাই নয়, মঙ্গলবার এ সংক্রান্ত একটি ডিক্রিও জারি করেছেন তিনি। ডিক্রিতে বলা হয়েছে, নিষেধাজ্ঞার তালিকায় থাকা ব্যক্তি এবং সংস্থার কাছে পণ্য এবং কাঁচামাল রফতানি নিষিদ্ধ করা হবে। আগামী ১০ দিনের মধ্যে সরকারকে এ তালিকা তৈরির নির্দেশ দিয়েছেন পুতিন। আরও পড়ুন : রাশিয়ার হুমকিতে বিকল্প জ্বালানি খুঁজছে মার্সিডিজ বেঞ্জ ডিক্রিতে রাশিয়ার নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছে পণ্য ও কাঁচামাল রফতানি নিষিদ্ধের কথা বলা হয়েছে। এমনকি বর্তমানে কোনো চুক্তি বলবৎ থাকলে তা বাতিলেরও কথা বলা হয়েছে। এ ধরনের ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানগুলোর তালিকা তৈরির নির্দেশ দিয়েছেন পুতিন। প্রয়োজনে আরও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। কার্নেগি মস্কো সেন্টারের অনাবাসিক বিশেষজ্ঞ তাতিয়ানা স্ট্যানোভায়া বলেছেন, এটি একটি ফ্রেমওয়ার্ক ডিক্রি। এখন সব নির্দিষ্ট তালিকা সরকারের তৈরি করা উচিত। এটিই প্রধান জিনিস এবং আমাদের অপেক্ষা করতে হবে।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply