Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » বাংলাদেশের টেস্ট ইতিহাসে সর্বোচ্চ র‍্যাঙ্কিংয়ে লিটন, পেছনে ফেললেন তামিমকে




বাংলাদেশের টেস্ট ইতিহাসে সর্বোচ্চ র‍্যাঙ্কিংয়ে লিটন, পেছনে ফেললেন তামিমকে

তামিম ইকবালকে পেছনে ফেলে বাংলাদেশি ব্যাটারদের মধ্যে সর্বোচ্চ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে আইসিসি টেস্ট ব্যাটসম্যানদের র‍্যাঙ্কিংয়ের ১২ নম্বরে অবস্থান করছেন লিটন কুমার দাস। ৭২৪ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে ৫ ধাপ এগিয়েছেন এই উইকেটরক্ষক ব্যাটার। ২০১৭ সালের আগস্টে তামিমের ৭০৯ রেটিং পয়েন্ট ছিল বাংলাদেশের কোনো ব্যাটারের সর্বোচ্চ রেটিং। সেই রেকর্ড এবার নিজের করে নিলেন লিটন দাস। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ঘরের মাটিতে বাংলাদেশের সবশেষ দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে ব্যাট হাতে দুর্দান্ত পারফর্ম করেন লিটন। চট্টগ্রামে ড্র হওয়া প্রথম টেস্টে একমাত্র ইনিংসে ৮৮ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। এরপর মিরপুরে দ্বিতীয় টেস্টে যথাক্রমে ১৪১ ও ৫২ রান করেন তিনি। তার এমন নৈপুণ্য সত্ত্বেও দ্বিতীয় টেস্টে ১০ উইকেটের বড় ব্যবধানে হেরে সিরিজ খোয়ায় টাইগাররা। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দুই টেস্টের ৩ ইনিংসে ২৮১ রান আসে লিটন দাসের ব্যাট থেকে। ধারাবাহিক পারফরমেন্সে ৫ ধাপ এগিয়ে দেশের হয়ে আইসিসির টেস্টে র‍্যাঙ্কিংয়ের সর্বোচ্চ অর্জন ১২ নম্বরে উঠে এসেছেন লিটন। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম ইনিংসে ১৭৫ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেছেন মুশফিকুর রহিম। প্রথম টেস্টেও মুশফিকের সেঞ্চুরি আছে। ফলে ৭ ধাপ এগিয়ে মিস্টার ডিপেন্ডেবলের অবস্থান ১৮-তে। তামিম পিছিয়েছেন ৫ ধাপ। ৪৩ নম্বরে থাকা সাকিব আল হাসানের অবস্থানও অপরিবর্তিত। ৭ ধাপ পিছিয়ে ৬৪ নম্বরে আছেন সদ্য অধিনায়কত্ব ছাড়া মুমিনুল হক। মাহমুদুল হাসান জয় ৯১ আর ৯৫ নম্বরে অবস্থান নাজমুল হাসান শান্তর। সৌম্য সরকারের অবস্থান ১০০ নম্বরে। বোলিংয়ে রেটিং পয়েন্ট বাড়লেও অবস্থানে নড়চড় হয়নি সাকিবের, আছেন ২৯ নাম্বারে। অলরাউন্ডারদের মধ্যেও আগের অবস্থান চারেই আছেন টাইগার তারকা। তবে ৫ ধাপ পিছিয়ে বোলারদের র‍্যাঙ্কিংয়ে ২৭ নম্বরে গেছেন তাইজুল। ইনজুরি আক্রান্ত মিরাজ আছেন ৩৭ নম্বরে। এরপর আছেন নাঈম হাসান ও আবু জায়েদ রাহি। তবে এবাদত হোসেন ৩ ধাপ এগিয়ে আছেন ৮৪ নম্বরে। এদিকে, টেস্টে ব্যাটারদের মধ্যে শীর্ষে অবস্থান করছেন অজি ব্যাটার মারনাস লাবুশেন। এর পরই আছেন স্টিভেন স্মিথ, কেন উইলিয়ামসন, জো রুট ও বাবর আজম।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply