Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » ৫০ ঘণ্টা জেরার মুখে রাহুল গান্ধী




৫০ ঘণ্টা জেরার মুখে রাহুল গান্ধী ন্যাশনাল হেরাল্ড মামলায় কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীকে মঙ্গলবার (২১ জুন) পঞ্চম দিনের মতো জেরা করেছে ভারতের আর্থিক দুর্নীতি সংক্রান্ত তদন্তকারী সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)। খবর এনডিটিভির। অর্থপাচার মামলায় সোমবার (২০ জুন) প্রায় ১০ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদের পর মঙ্গলবারও কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীকে তলব করে ইডি। এদিন স্থানীয় সময় বেলা সোয়া ১১টায় ইডি কার্যালয়ে উপস্থিত হলে রাহুল গান্ধীকে শুরু

হয় জেরা। সকাল থেকে শুরু হওয়া জিজ্ঞাসাবাদ চলে রাত ৮টা পর্যন্ত। এ সময় ৩০ মিনিটের বিরতি দিলে কার্যালয়ের বাইরে আসেন কংগ্রেস নেতা। পরে বিরতি শেষে আবারও শুরু হয় জিজ্ঞাসাবাদ। এদিনও অর্থপাচার মামলায় আর্থিক লেনদেনের অভিযোগে নানা প্রশ্নের পাশাপাশি তার বয়ান লিপিবদ্ধ করা হয়। ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো জানায়, এ নিয়ে গেল ৫ দিন ধরে প্রায় ৫০ ঘণ্টার বেশি সময় রাহুল গান্ধীকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলো। এর আগে সোমবার তদন্তকারী সংস্থা ইডির জেরা শেষে রাত সাড়ে ১২টা নাগাদ সংস্থাটির কার্যালয় থেকে ছাড়া পান রাহুল। আরও পড়ুন: হাসপাতাল থেকে ছাড় পেয়ে তদন্তের মুখে সোনিয়া গান্ধী একই মামলায় জিজ্ঞাসাবাদে ইডির নির্ধারিত সময়ের আগেই হাসপাতাল থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন কংগ্রেস সভানেত্রী ও রাহুল গান্ধীর মা সোনিয়া গান্ধী। দলের পক্ষ থেকে জানানো হয়, আপাতত বাড়িতেই বিশ্রামে থাকবেন তিনি। বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) অর্থপাচার মামলায় ইডি কার্যালয়ে হাজিরা দেয়ার কথা রয়েছে সোনিয়া গান্ধীর। এর আগে গত ৮ জুন তার উপস্থিত থাকার কথা থাকলেও, করোনা আক্রান্ত হওয়ায় নির্ধারিত তারিখ পিছিয়ে ২৩ জুন করা হয়। নয় বছর আগে ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির একজন পার্লামেন্ট সদস্য রাহুল ও তার মা সোনিয়া গান্ধীর বিরুদ্ধে আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগে মামলা করেন। অভিযোগে বলা হয়, ভুয়া কোম্পানি দেখিয়ে প্রায় ৩০ কোটি মার্কিন ডলারের সম্পদ আত্মসাৎ করেছেন তারা। এটি ‘ন্যাশনাল হেরাল্ড’ ‍মামলা নামে পরিচিত। তবে কংগ্রেসের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, ন্যাশনাল হেরাল্ড মামলায় বেআইনিভাবে আর্থিক লেনদেনের অভিযোগের সত্যতা নেই। ইডি একসময় মামলাটি বন্ধ করে দিয়েছিল। পরে আবার রাজনৈতিক কারণে চালু করা হয়েছে।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply