Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » পাকিস্তানকে বড় ব্যবধানে হারিয়েই সিরিজ ড্র করল শ্রীলঙ্কা




গলে শ্রীলঙ্কা-পাকিস্তানের মধ্যকার প্রথম টেস্টে রেকর্ড গড়েই স্বাগতিকদের হারিয়ে দিয়েছিল বাবর আজমের দল। একইমাঠে অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় টেস্টেও দলটির সামনে শেষ ইনিংসে বিশাল এবং রেকর্ড পরিমাণ রানের লক্ষ্যমাত্রা দেয় শ্রীলঙ্কা। তবে এবার আর সেই রেকর্ড ভাঙতে পারল না পাকিস্তান। জয়সুরিয়া-মেন্ডিসের স্পিনে হেরেছে বড় ব্যবধানেই। বৃহস্পতিবার টেস্টের শেষ ইনিংসে শ্রীলঙ্কার দেয়া ৫০৮ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে পঞ্চম দিনের দ্বিতীয় সেশনেই ২৬১ রানে গুটিয়ে যায় পাকিস্তান। ফলে সফরকারীদের বিপক্ষে ২৪৬ রানের বিশাল ব্যবধানে জয় তুলে নিয়ে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজটি ১-১ সমতায় শেষ করল লঙ্কানরা। স্বাগতিকদের এই জয়ে সবচেয়ে বড় কৃতিত্ব ৩০ বছর বয়সী স্পিন সেনসেশন প্রবাথ জয়সুরিয়ার। বিশাল লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে পাকিস্তান অধিনায়ক বাবর ও মোহাম্মদ রিজওয়ানের ব্যাটে যখন প্রতিরোধ গড়ে তুলেছে দলটি, তখনই মায়াবী ছোবল নিয়ে হাজির হন জয়সুরিয়া। প্রথম ইনিংসে ৩ উইকেট শিকার করা বাঁহাতি এই স্পিনার পাকিস্তানকে রুখে দেন দ্বিতীয় ইনিংসে ৫ উইকেট শিকার করে। ১১৭ রানের বিনিময়ে ৫ উইকেট নেন তিনি। যা মাত্র তিন টেস্টের ক্যারিয়ারে তার চতুর্থবার পাঁচ বা ততোধিক উইকেট শিকার। আর এর মধ্যদিয়ে এই তিন টেস্টেই ২০.৩৭ গড়ে দখল করলেন ২৯টি উইকেট। এদিকে, জয়সুরিয়া ছাড়াও লঙ্কান ডানহাতি স্পিনার রমেশ মেন্ডিস ১০১ রানে নিয়েছেন ৪টি উইকেট। বাকি উইকেটটি কাটা পড়ে রান আউটের শিকার হয়ে। এর আগে এদিন সকালে ইমাম উল হককে সঙ্গী করে দলীয় ১ উইকেটে ৮৯ রান নিয়ে ক্রিজে আসেন বাবর। আগের দিনের ৪৬ রানে অপরাজিত ইমাম আর মাত্র ৩টি রান যোগ করতেই পথ ধরেন সাজঘরের। তৃতীয় উইকেটে রিজওয়ানকে নিয়ে ৭৯ রানের জুটি গড়েন বাবর। ৩৭ রান করা এই রিজওয়ানকে ফিরিয়েই শেষ দিনে উইকেট শিকার শুরু করেন জয়সুরিয়া। এরপর একই স্পেলে আগা সালমান ও বাবর আজমকেও তুলে নিয়ে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিজেদের অনুকূলে নিয়ে নেন ত্রিশোর্ধ এই স্পিনার। আউট হওয়ার আগে ৮১ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস খেলেন অধিনায়ক বাবর। শেষ দিকে ইয়াসির শাহ-এর ৬টি চারের মারে করা ২৭ রানে ভর করে আড়াই শ’র কোটা পেরোয় পাকিস্তান। ইয়াসিরকে ফিরিয়েই তিন টেস্টের ক্যারিয়ারে চতুর্থ ফাইফার তুলে নেন জয়সুরিয়া। এর আগে গলে দ্বিতীয় টেস্টে নিজেদের প্রথম ইনিংসে দিনেশ চান্দিমালের ৮০ রানের সুবাদে ৩৭৮ রান করেছিল শ্রীলঙ্কা। জবাবে আগা সালমানের ৬২ রানে ভর করে ২৩১ রান তুলতেই শেষ হয় পাকিস্তানের ইনিংস। লঙ্কানরা নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ধনাঞ্জয়া ডি সিলভার শতকে ৮ উইকেটে ৩৬০ রান তুলে ছেড়ে দিলে শেষ ইনিংসে ৫০৮ রানের লক্ষ্য পায় পাকিস্তান। মোট একটি উইকেট ও শতকসহ দুই ইনিংসে মোট ১৪২ রান করে ম্যাচ সেরা হন ধনাঞ্জয়া। আর দুই টেস্টে ১৭টি উইকেট নিয়ে সিরিজ সেরা হন লঙ্কান নতুন রেকর্ড ম্যান জয়সুরিয়া।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply