Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » শেখ হাসিনা পদ্মা সেতু নির্মাণ ছাড়াও অনেক উন্নয়নমূলক কাজ করছেন : মোজাম্মেল হক




শেখ হাসিনা পদ্মা সেতু নির্মাণ ছাড়াও অনেক উন্নয়নমূলক কাজ করছেন : মোজাম্মেল হক

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ.ক.ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের জন্য শুধু পদ্মা সেতু নির্মাণই নয়, তিনি ১০টাকা মূল্যের ভিজিএফ’র চাল, কর্নফুলি টানেল নির্মাণসহ অনেক উন্নয়নমূলক কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু বলতেন, আমার ধর্ম আমার, তোমার ধর্ম তোমার। অর্থাৎ যার যার ধর্ম সে স্বাধীনভাবে পালন করবে। রাষ্ট্র তাতে কোন প্রকার বাধা দেবে না। প্রত্যেক নাগরিক সমান অধিকার ভোগ করবে। তার কণ্যা প্রধানমন্ত্রীও বলেন, ধর্ম যার যার উৎসব সবার। আজ গাজীপুর প্রেসক্লাবের সামনে শ্রীশ্রী মানিক্য মাধবের রথযাত্রা ও রথমেলা’র উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। তিনি প্রধানমন্ত্রীর জন্য উপস্থিত পূন্যার্থীসহ সকলের কাছে দোয়া ও আশির্বাদ চেয়েছেন। গাজীপুরের জেলা প্রশাসক আনিসুর রহমানের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. আজমত উল্লাহ খান, গাজীপুর সিটি মেয়র (ভারপ্রাপ্ত মেয়র) আসাদুর রহমান কিরণ, পুলিশ সুপার এসএম সফিউল্লাহ, গাজীপুর মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার মো. জাকির হাসান, মহানগর আওয়ামী লীগের সদস্য আব্দুল হাদী শামীম, ২৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হাসান আজমল ভুঁইয়া ও মনীন্দ্র চন্দ্র মন্ডল। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন গাজীপুর রথমেলা পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব মুকুল কুমার মল্লিক। মন্ত্রী বলেন, বেদখল হওয়া দেবোত্তর সম্পত্তি উদ্ধার করে তাতে রথমেলা ও রথযাত্রার জন্য জমির পরিসর বাড়ানোর পরিকল্পনা রয়েছে। গাজীপুর শহরে ভাওয়াল কোর্ট অব এ্যাওয়ার্ডসের যে জায়গা রয়েছে, তা পরিকল্পিতভাবে ব্যবহারের জন্য জেলা প্রশাসক ও সিটি মেয়রকে নির্দেশনা দিয়ে তিনি বলেন ‘আমাদের সিটিকে বাঁচাতে হবে। এখানে শিশুপার্ক, জিমনেসিয়াম ও সুইমিংপুল নেই, জেলা প্রশাসকের কার্যালয় নির্মাণের জন্যও জমি প্রয়োজন। মন্ত্রী গাজীপুর সিটির সৌন্দর্য বর্ধনের জন্য ভাওয়াল কোর্ট অব এ্যাওয়ার্ডসের জমির দখলদারদের পূনর্বাসনের জন্য ন্যূনতম জমি বরাদ্দ দিয়ে অবশিষ্ট জমিতে পরিকল্পিতভাবে প্রয়োজনীয় ও গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা নির্মাণ করার জন্য জেলা প্রশাসক ও সিটি মেয়রকে নির্দেশ দেন। রথযাত্রা উপলক্ষে আয়োজিত সংক্ষিপ্ত আলোচনাসভা শেষে প্রধান অতিথি পূণ্যার্থীদের নিয়ে রথ টেনে রথযাত্রা ও রথমেলার উদ্বোধন করেন। এরআগে পালকি সহযোগে দেবতা মাণিক্য মাধবকে রথে অধিষ্ঠান করানো হয়। রথ টানের মধ্য দিয়ে মাণিক্য মাধব নিজ বাড়ি থেকে শ্বশুর বাড়ি যাচ্ছেন। আগামী ৯ জুলাই, শনিবার উল্টো রথযাত্রায় মাণিক্যমাধবের নিজ বাড়ি ফেরার মধ্য দিয়ে এবারের ৯ দিনব্যাপী রথযাত্রার শেষ হবে। রথযাত্রা উপলক্ষে ২০ দিনব্যাপী রথমেলা শুরু হয়েছে। মেলায় শিশুদের খেলনা, মিষ্টির দোকান, তৈজষপত্র, আসবাবপত্রসহ নানা বাহারী সব জিনিসের পসরা নিয়ে বসেছেন দোকানীরা। এছাড়াও মনোরঞ্জনের জন্য মেলায় এসেছে নাগরদোলা ও সার্কাস। রথমেলায় হাজারো পূণ্যার্থী এবং সাধারণ মানুষ অংশ নিচ্ছেন। প্রায় দেড়শো বছর আগে গাজীপুরের ভাওয়াল রাজপরিবারের পক্ষ থেকে এই ঐতিহ্যবাহী শ্রী শ্রী মাণিক্য মাধবের রথযাত্রা ও রথমেলার প্রচলন করেন।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply