Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » মিয়ানমারে বিদ্রোহী গোষ্ঠীর সঙ্গে সংঘর্ষে ২০ সেনা নিহত




মিয়ানমারের বিভিন্ন অঞ্চলে বিদ্রোহী গোষ্ঠীর সঙ্গে সংঘর্ষে দুদিনে ২০ জন সেনা সদস্য নিহত হয়েছে বলে দাবি করেছে পিপলস ডিফেন্স ফোর্স। অন্যদিকে, মিয়ানমার সেনাদের হামলায় সশস্ত্র গোষ্ঠীর চার সদস্য ও শিশুসহ অন্তত ১০ বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম ইরাবতী। এদিকে, মিয়ানমারের পরিস্থিতি দিন দিন খারাপ হওয়ায় নিজ দেশ ছেড়ে অন্যত্র পাড়ি জমাচ্ছেন শিক্ষিত নাগরিকরা। এতে, দেশটি মেধাশূন্য হয়ে পড়ছে বলে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন বিশ্লেষকরা। মিয়ানমারে বেসামরিক নাগরিকদের ওপর জান্তা বাহিনীর নির্বিচার অত্যাচার নির্যাতনের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলো। দিন যত যাচ্ছে, ততই তীব্র হচ্ছে লড়াই। বৃহস্পতিবার দেশটির বাগো, মেন্দালে, তানিনথারি অঞ্চলসহ চিন, কায়াহ ও কারেন রাজ্যে জান্তা বাহিনীদের ক্যাম্প লক্ষ্য করে দফায় দফায় বোমা হামলা ও মাইন বিস্ফোরণ চালায় পিপলস ডিফেন্স ফোর্সসহ আরও কয়েকটি সশস্ত্র গোষ্ঠী। এসব হামলায় বেশ কয়েকজন মিয়ানমার সেনা হতাহত হয়েছেন বলে দাবি করেছে বিদ্রোহী গোষ্ঠীগুলো। সংবাদমাধ্যম ইরাবতী জানায়, একই দিন মিয়ানমারের ম্যাগুই অঞ্চলের একটি গ্রামে জান্তা বাহিনীর সদস্যরা আগুন ধরিয়ে দিলে কয়েকজন বেসামরিকের প্রাণহানি ঘটে। ওই দিনই, চিন রাজ্যে জান্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে চিন ডিফেন্স ফোর্সের কয়েকজন সদস্যও নিহত হন বলে দাবি করে বিদ্রোহী গোষ্ঠী। আরও পড়ন: মিয়ানমার সেনাবাহিনীর ‘বড় শত্রু’ তরুণ-যুবকরা এর আগে, বুধবারও মিয়ানমার সেনাদের লক্ষ্য করে হামলা চালায় বিদ্রোহী গোষ্ঠীরা। তানিনথারি অঞ্চলে সামরিক বহর লক্ষ্য করে পিপলস ডিফেন্স ফোর্স হামলা চালালে কয়েকজন সেনা সদস্য নিহত হন। এদিনও কারেন রাজ্যের কয়েকটি গ্রামে মিয়ানমার সেনারা এলোপাথাড়ি গুলি চালালে শিশুসহ কয়েকজন বেসামরিক নাগরিকেরও প্রাণহানি ঘটে। এদিকে, মিয়ানমারের আর্থ-সামাজিক ও রাজনৈতিক পরিস্থিতির দিন দিন অবনতি হওয়ায় দেশটির তরুণ প্রজন্ম ও শিক্ষিত শ্রেণির অনেকে উন্নত ভবিষ্যতের আশায় বিভিন্ন দেশে পাড়ি জমাচ্ছেন। এতে, দেশটি মেধাশূন্য হয়ে পড়ছে বলে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন বিশ্লেষকরা।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply