Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » কেন এফডিসিতে আসেন না, জানালেন জায়েদ খান




শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক থাকাকালীন জায়েদ খানকে নিয়মিত দেখা যেত। সর্বশেষ নির্বাচনে নিপুণের সঙ্গে সাধারণ সম্পাদকের পদ নিয়ে বিতর্কের পর থেকে দূরে আছেন এই নায়ক। সমিতির সাধারণ সম্পাদকের চেয়ারটি আসলে কার, এই সিদ্ধান্তের বিষয়টি আদালতে বিচারাধীন। Google News চ্যানেল আই’র সর্বশেষ খবর ও বিনোদন গুগল নিউজ চ্যানেলে এদিকে, শিল্পীর সমিতির নির্বাচনের পর থেকে গত তিন মাস এফডিসিতে আসেন না জায়েদ খান, এমনকি কোনো ছবির শুটিংও করছেন না। চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট কোনো অনুষ্ঠানেও জায়েদকে আগের মতো দেখাই যায় না। তবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সক্রিয় জায়েদ। গত কয়েকমাস ধরে নিজের ফেসবুকে প্রতিনিয়ত নিজ এলাকা পিরোজপুরের বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের আপডেট দিচ্ছেন। তাকে পাওয়া যাচ্ছে না চলচ্চিত্রে সংশ্লিষ্ট কোনো কাজে! এতে অনেকের মনে প্রশ্ন জেগেছে, জায়েদ খান কি গ্রামে ফিরে গেছেন? একটি গণমাধ্যমে সাক্ষাৎকার দেয়ার সময় ‘অন্তর জ্বালা’ ছবির এই নায়ক জানিয়েছেন, ব্যক্তিগত কাজে গত ১৫ দিন ধরে নিজের এলাকা পিরোজপুরে অবস্থান। তিনি বলেন, বাবা মায়ের কবরস্থান ঠিকঠাক করাসহ কিছু কাজ ছিল সেগুলো করেছি। যেহেতু শুটিং ব্যস্ততা কম, এই সুযোগে নিজ এলাকায় উন্নয়নে সময় দিচ্ছেন। আগামী ৪ থেকে ৫ দিন পর ঢাকায় ফিরবেন। জায়েদ খান বলেন, পিরোজপুরের নেছারাবাদের শারদীয় দুর্গাপূজার আয়োজনে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে গিয়েছিলাম। আমার আসার কথা শুনে ঝড়-বৃষ্টির মধ্যেও হাজার মানুষ উপস্থিত হয়েছিল। এছাড়া নিজ এলাকায় ‘সাপোর্ট মানবকল্যাণ সংস্থা’ সংগঠনের মাধ্যমে সহস্রাধিক বনজ ও ফলদ গাছ বৃক্ষরোপণ করেছি। আগে নিয়মিত এফডিসিতে গেলেও কেন সেখানে যান না জানতে চাইলেন জায়েদ খান বলেন, অনেকে মনে করে অন্য কারো ভয়ে হয়তো যাচ্ছি না। আসল কথা হচ্ছে এফডিসিতে এখন আর যাওয়ার পরিবেশ নেই। আমরা যে সুন্দর একটা পরিবেশের জন্ম দিয়েছিলাম সেটি এখন আর নেই। এখন সেখানে ইউটিউবারসহ অনেকেই এসে পরিবেশটা একেবারে নষ্ট করে দিয়েছে। কারা তাদের এখানে আসার সুযোগ দিয়েছে এটা এখন সবাই জানে। জায়েদ খান অভিনীত ‘সোনার চর’ ছবিটি মুক্তির অপেক্ষায় আছে। এছাড়া বঙ্গবন্ধুর বায়োপিকে তিনি টিক্কা খানের চরিত্রে অভিনয় করেন। এই ছবিটিও রয়েছে মুক্তির অপেক্ষায়। জায়েদ জানান, সোনার চরের শুটিং ৮ থেকে ৯ মাস হয়ে গেছে। ঢাকায় ফিরে এই ছবির ডাবিং করবেন।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply