Sponsor



Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে আশা বাঁচিয়ে রাখল ইংল্যান্ড




নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে আশা বাঁচিয়ে রাখল ইংল্যান্ড

ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার ম্যাচ। ছবি : সংগৃহীত বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে যাওয়ার স্বপ্ন টিকিয়ে রাখতে হলে জিততেই হতো ইংল্যান্ডকে। এমন সমীকরণের ম্যাচে সুযোগ হাতছাড়া করল না ইংলিশরা। বাঁচা-মরার ম্যাচে নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে বিশ্বকাপে নিজেদের আশা বাঁচিয়ে রাখল জস বাটলারের দল। নিজেদের চতুর্থ ম্যাচে আজ মঙ্গলবার নিউজিল্যান্ডকে ২০ রানে হারিয়েছে ইংল্যান্ড। এই জয়ে নিউজিল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার পাশাপাশি সেমিতে যাওয়ার মিশনে সমান আশা বাঁচিয়ে রাখল ইংলিশরা। সমান ৪ ম্যাচ খেলে তিন দলেরই এখন সেমিতে যাওয়ার সুযোগ সমান। ফলে জমে উঠলো ‘এ’ গ্রুপের লড়াই। আজ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিজেদের চতুর্থ ম্যাচে টস জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেটে রান সংগ্রহ করেছে ইংল্যান্ড। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৭৩ রান করেছেন অধিনায়ক জস বাটলার। জবাব দিতে নেমে ১৫৯ রানে থামে নিউজিল্যান্ড। বড় লক্ষ্য তাড়ায় নিউজিল্যান্ড শুরুতেই ধাক্কা খায়। পরে জুটি গড়লেও রানের গতি ছিল মন্থর। এক পর্যায়ে কিছুটা আশা জাগান কেইন উইলিয়ামসন ও গ্লেন ফিলিপস। কিন্তু জুটি ভাঙলে ফিকে হয়ে যায় নিউজিল্যান্ডের আশা। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ করেছেন ফিলিপস। তিনি ৩৬ বলে করেছেন ৬২ রান। এ ছাড়া ৪০ রান করেছেন উইলিয়ামসন। ১৬ রান আসে ফিন অ্যালানের ব্যাট থেকে। ব্রিসবেনে ম্যাচটিতে আগে ব্যাট করতে নেমে ভালো শুরুর আভাস দেন দুই ওপেনার জস বাটলার ও এলেক্স হেলস। দুই ওপেনারই উইকেটে থিতু হয়ে যান। তাদের প্রতিরোধ ভাঙতে ১১তম ওভার পর্যন্ত অপেক্ষা করেছে নিউজিল্যান্ড। অবশেষে দলীয় ৮১ রানে ভাঙে এই জুটি। হাফসেঞ্চুরিয়ান হেলসকে বিদায় করেন স্যান্টনার। ৪০ বলে ৫২ করে আউট হন হেলস। মাঝে মঈন আলি এসে থিতু হতে পারেননি। এরপর লিয়াম লিভিংস্টোনকে নিয়ে লড়াই করেন বাটলার। এই জুটির কল্যানে শেষ পর্যন্ত ১৭৯ রানের সংগ্রহ গড়ে ইংলিশরা। ব্যাট হাতে সর্বোচ্চ ৭৩ করা বাটলার ৪৭ বল খেলেন। মারনে ৭টি চার ও ২টি ছক্কা। এ ছাড়া লিয়াম লিভিংস্টোন করেন ১৪ বলে ২০ রানে। মঈন আলি করেন ৫ রান। শেষ দিকে বেন স্টোকস করেন ৮ রান। সংক্ষিপ্ত স্কোর ইংল্যান্ড : ২০ ওভারে ১৭৯/৬ (জস বাটলার ৭৩, অ্যালেক্স হেলস ৫২, হ্যারি ব্রুক ৭, মঈন ৫, লিভিংস্টোন ২০, স্টোকস ৮, কারান ৬, মালান ৩; মিচেল স্যান্টনার ৪-০-২৫-১, ইশ সোদি ৪-০-২৩-১, টিম সাউদি ৪-০-৪৩-০, লকি ফার্গুসন ৪-০-৪৫-১, ট্রেন্ট বোল্ট ৪-০-৪০-০)। নিউজিল্যান্ড : ২০ ওভারে ১৫৯/৬ (ফিন অ্যালান ১৬, ডেভন কনওয়ে ৩, কেইন উইলিয়ামসন ৪০, গ্লেন ফিলিপস ৬২, ডার্লি মিশেল ৩, জিমি নিশাম ৬, মিচেল স্যান্টনার ১৬, ইশ সোদি ৭; স্যাম কারান ৪-০-৩৬-২, ক্রিস ওকস ৪-০-৩৪-২, মার্ক উড ৩-০-২৫-১, আদিল রশিদ ৪-০-৩৩-০, স্টোকস ১-০-১০-০)। ফল : ২০ রানে জয়ী ইংল্যান্ড






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply