sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

ম্যান বুকার পেলেন অ্যাটউড ও এভারিস্তো

বিশ্ব সাহিত্যের অন্যতম মর্যাদাসম্পন্ন পুরস্কার ম্যান বুকার পুরস্কার পেলেন মার্গারেট অ্যাটউড এবং বার্নার্ডিন এভারিস্তো। তবে এবারের বুকারে অর্ধশতাব্দীর প্রথা ভেঙ্গে প্রথমবারের মতো এক কৃষ্ণাঙ্গের হাতে উঠলো ইংরেজি সাহিত্যের মর্যাদাপূর্ণ পুরস্কারটি। ৬০ বছর বয়সী ব্রিটিশ লেখক বার্নার্ডিন এভারিস্তো তার ‘উইমেন’ বইয়ের জন্য এই পুরস্কার পান। তবে আরেকটি প্রথাও ভাঙতে হয়েছে কর্তৃপক্ষকে। যৌথভাবে দু’জনকে পুরস্কার দিতে হয়েছে তাদের। কর্তৃপক্ষ জানায়, অনেক চেষ্টা করেও একজনকে বেছে নিতে পারেননি বিচারকরা। বার্নার্ডিনের সঙ্গে যৌথভাবে এই পুরস্কার কানাডিয়ান ঔপন্যাসিক মার্গারেট অটউড (৭৯)। তার উপন্যাসের নাম ‘দ্য হ্যান্ডমেইডস টেল’। সোমবার লন্ডনের গিল্ডহলে তাদের নাম ঘোষণা করেন বিচারকরা। অ্যাটউড দ্য টেস্টামেন্টস এবং এভারিস্তো গার্ল ওমেন বইয়ের জন্য এই পুরস্কার পান তারা। পুরস্কারের অর্থ প্রায় ৬৩ হাজার মার্কিন ডলার। জুরিবোর্ডের চেয়ারপারসন পিটার ফ্লোরেন্স বলেন, অসাধারণ কাজের জন্যই তাদের পুরস্কারটি প্রদান করা হচ্ছে। ১৯৬৯ সালে ম্যান বুকার পুরস্কার দেয়া শুরু হয়। বুকারের ইতিহাসে এটি মাত্র তৃতীয়বার যৌথভাবে পুরস্কার জেতার ঘটনা। ১৯৯৩ সালে নিয়ম করা হয়েছিল, এই পুরস্কার আর কখনোই ভাগাভাগি করে দেওয়া হবে না। তবে সেটা রক্ষা করতে পারেননি বিচারকরা। বুকার প্রাইজ ফাউন্ডেশনের সাহিত্য বিষয়ক পরিচালক গ্যাবি উড বলেন, বুকারের বিচারকেরা টানা পাঁচ ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে সংক্ষিপ্ত তালকায় থাকা জনপ্রিয় বইগুলো নিয়ে আলাপ-আলোচনা করে বুঝতে পারেন, এর মধ্য থেকে একজন বিজয়ী বের করা অসম্ভব। বুকার পুরস্কারের ওয়েবসাইটের তথ্যমতে, এর আগে মাত্র দু’বার বুকার পুরস্কার ভাগাভাগির ঘটনা ঘটেছে। ১৯৭৪ সালে নাদিন গোরডাইমার ও স্ট্যানলি মিডলটন এবং ১৯৯২ সালে মাইকেল ওন্দাজে ও ব্যারি আন্সওর্থ যৌথভাবে এ পুরস্কার জেতেন। চলতি বছর বুকার পুরস্কারের জন্য সংক্ষিপ্ত তালিকায় ছিল ছয়জনের নাম। বুকার পুরস্কারের সাহিত্য পরিচালক বিচারকদের বারবার অনুরোধ করেছিলেন যাতে যেকোনো একজনকে দেওয়া হয় ইংরেজি সাহিত্যের মর্যাদাপূর্ণ এ পুরস্কারটি। তবে বিচারকরা সে নিয়ম রক্ষা করতে পারেননি।

মেট্রোরেলের আওতায় আসছে হেমায়েতপুর-ভাটারা, কুড়িল-পূর্বাচল

৯৩ হাজার ৭৯৯ কোটি ৯৭ লাখ ৭৭ হাজার টাকা প্রকল্পের অনুমোদন রাজধানীর যানজট নিরসন ও যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নত করতে এমআরটি লাইন-১ ও এমআরটি লাইন-৫ নামে আরও দুটি মেট্রোরেল লাইনের কাজ শুরু করতে যাচ্ছে সরকার। ‘ঢাকা ম্যাস র‌্যাপিড ট্রানজিট ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট (লাইন-১)’ ও ‘ঢাকা ম্যাস র‌্যাপিড ট্রানজিট ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট (লাইন-৫): নর্দান রুট’ শিরোনামে এই দুটি আলাদা প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে। প্রকল্প দুটিতে মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ৯৩ হাজার ৭৯৯ কোটি ৯৭ লাখ ৭৭ হাজার টাকা। মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি-একনেক সভায় এসব প্রকল্পের অনুমোদন দিয়েছে। সভা শেষে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান প্রকল্প সম্পর্কে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন। তিনি বলেন, মেট্রোরেল প্রকল্পসহ মোট ১০ প্রকল্পের অনুমোদন দেয়া হয়েছে সভায়। এসব প্রকল্পে মোট ব্যয় ধরা হয়েছে প্রায় এক লাখ ২৫ হাজার ২৩ কোটি টাকা। এর মধ্যে সরকার দেবে ৩০ হাজার ৪৬৬ কোটি, সংস্থার নিজস্ব অর্থায়ন ৫১৫ কোটি ৮৪ লাখ এবং বৈদেশিক ঋণ ৬৯ হাজার ৪৩ কোটি ৩৭ লাখ টাকা। মোট টাকার মধ্যে দুই মেট্রোরেল প্রকল্পেই ব্যয় ধরা হয়েছে ৯৩ হাজার ৭৯৯ কোটি ৯৮ লাখ টাকা। দুই মেট্রোরেল যথাঃ লাইন-১ এর আওতায় মোট ৩১ দশমিক ২৪১ কিলোমিটার মেট্রোরেল নির্মাণ করা হবে। এর মধ্যে বিমানবন্দর থেকে কমলাপুর পর্যন্ত ১৬ দশমিক ২১৫ কিলোমিটার পাতাল (আন্ডারগ্রাউন্ড) মেট্রোরেল এবং কুড়িল থেকে পূর্বাচল ডিপো পর্যন্ত ১১ দশমিক ৩৬৯ কিলোমিটার এলিভেটেড মেট্রোরেল হবে। এতে খরচ হবে প্রায় ৫২ হাজার কোটি টাকা। এ লাইনের কাজ শেষ হবে ২০২৬ সালে। এই প্রকল্পের মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ৫২ হাজার ৫৬১ কোটি ৪৩ লাখ টাকা। এর মধ্যে বাংলাদেশ সরকার দেবে ১৩ হাজার ১১১ কোটি ১১ লাখ এবং বৈদেশিক ঋণ ৩৯ হাজার ৪৫০ কোটি ৩২ লাখ টাকা। প্রকল্পটি ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বর থেকে ২০২৬ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে বাস্তবায়নের লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে। এছাড়া লাইন-৫ এর আওতায় ২০ কিলোমিটার মেট্রোরেল নির্মাণ করা হবে। এর মধ্যে হেমায়েতপুর থেকে আমিনবাজার পর্যন্ত ৬ দশমিক ৫ কিলোমিটার এলিভেটেড মেট্রোরেল এবং আমিনবাজার থেকে ভাটারা পর্যন্ত ১৩ দশমিক ৫ কিলোমিটার পাতাল (আন্ডারগ্রাউন্ড) মেট্রোরেল হবে। এই প্রকল্পের মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ৪১ হাজার ২৩৮ কোটি ৫৪ লাখ ৭৭ হাজার টাকা। এর মধ্যে ১২ হাজার ১২১ কোটি ৪৯ লাখ ৬৭ হাজার টাকা দেবে বাংলাদেশ সরকার এবং ২৯ হাজার ১১৭ কোটি ৫ লাখ ১০ হাজার আসবে বৈদেশিক ঋণ থেকে। ২০১৯ সালের জুলাই থেকে ২০২৮ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে এ কাজ বাস্তবায়নের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। পাতাল রেলে ৫০ ফুট গভীরে তৈরি হবে স্টেশন। প্রতিটিতে ট্রেন থামবে সর্বোচ্চ ৩০ সেকেন্ড। বিদ্যুত চালিত ট্রেনে ২০ কিলোমিটার রাস্তা অতিক্রম করতে সময় লাগবে ২০ মিনিট। একনেকে অনুমোদিত প্রকল্প সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের ‘ঢাকা ম্যাস র্যাপিড ট্রানজিট ডেভলপমেন্ট প্রজেক্ট (লাইন-১)’; ‘ঢাকা ম্যাস র‌্যাপিড ট্রানজিট ডেভলপমেন্ট প্রজেক্ট (লাইন-৫): নর্দান রুট; ‘ডোমার-চিলাহাটি-ভাউলাগঞ্জ (জেড-৫৭০৬), ডোমার (বোড়াগাড়ী)-জলঢাকা-(ভাদুরদরগাহ) (জেড-৫৭০৪) এবং জলঢাকা-ভাদুরদরগাহ-ডিমলা (জেড-৫৭০৩) জেলা মহাসড়ক যথাযথ মান ও প্রশস্ততায় উন্নীতকরণ’ ও ‘কিশোরগঞ্জ-করিমগঞ্জ-চামড়াঘাট জেলা মহাসড়ক যথাযথ মানে উন্নীতকরণসহ ছয়না-যশোদল-চৌদ্দশত বাজার সংযোগ সড়ক নির্মাণ’ প্রকল্প; স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের ‘গৃহায়ণ ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বিভিন্ন অবকাঠামো উন্নয়ন (দ্বিতীয় সংশোধন) প্রকল্প’; গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের ‘ঢাকাস্থ মিরপুর পাইকপাড়ায় সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য বহুতল আবাসিক ফ্ল্যাট নির্মাণ’ ও ‘ঢাকার আজিমপুরে বিচারকদের জন্য বহুতল ভবন নির্মাণ (প্রথম সংশোধন) প্রকল্প; পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের ‘ইরিগেশন ম্যানেজমেন্ট ইনম্প্রুভমেন্ট প্রজেক্ট ফর মুহরী ইরিগেশন প্রজেক্ট (দ্বিতীয় সংশোধন) প্রকল্প এবং পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের ‘জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব নিরসনে সিলেট বন বিভাগে পুনঃবনায়ন ও অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প। একনেক সভায় উপস্থিত ছিলেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন প্রমুখ।

রাজধানীতে ৪১ মাদকসেবী-বিক্রেতার বিভিন্ন মেয়াদে দণ্ড

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় পৃথক অভিযান চালিয়ে ৪১ জনকে দণ্ড দিয়েছেন র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) ভ্রাম্যমাণ আদালত। মঙ্গলবার র‌্যাব-২ থেকে পাঠানো প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। এতে বলা হয়, রাজধানীর তেজগাঁও, শেরেবাংলা নগর, মোহাম্মদপুর ও কলাবাগান থানা এলাকায় পৃথক অভিযান চালিয়ে ৪১ জনকে আটক করে বিভিন্ন মেয়াদে দণ্ড দিয়েছেন র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। দণ্ডিতদের মধ্যে চারজন ছিনতাইকারী ও মাদকসেবী এবং মাদকবিক্রেতা রয়েছেন।

বরিশালে বাস-থ্রি হুইলার সংঘর্ষে এক নারী সহ ২ জন নিহত

বরিশালে বাস-থ্রি হুইলার সংঘর্ষে এক নারী সহ ২ জন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে আরো ৫জন। আজ মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে বরিশালের কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল নথুল্লাবাদ সংলগ্ন নগরীর সিএ্যান্ডবি রোডে এ দুর্ঘটনা ঘটে। হতাহতরা সবাই থ্রি হুইলারের যাত্রী ছিলেন। পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস জানায়, নথুল্লাবাদ থেকে শিক্ষার্থীদের নিয়ে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্দেশ্যে যাচ্ছিলো বিআরটিসির একটি বাস। যাত্রী নিয়ে রূপাতলী বাসস্ট্যান্ড থেকে ছেড়ে আসা থ্রি হুইলার আলফা মাহিন্দ্রার সাথে পথিমধ্যে বাসের সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই নিহত হন মাহিন্দ্রার যাত্রী আব্দুল খালেক। আহতদের উদ্ধার করে শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পর মৃত্যু হয় নিপা মিস্ত্রী নামে আরো এক যাত্রীর। অপর আহত শাফিন, ফয়সাল, রাজিব, হৃদয় ও ইলিয়াসকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাসটি আটক করা হলেও চালক পালিয়েছে।

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায়দেড় বছরের শিশুকে ৪ তলা থেকে ফেলে হত্যা, মা আটক

দেড় বছরের শিশুকে ৪ তলা থেকে ফেলে হত্যা, মা আটক
দেড় বছর শিশু পুত্রকে চার তলা থেকে ফেলে দিয়ে হত্যা করেছে মানসিক ভারসাম্যহীন এক মা। সোমবার দুপুরে সদর উপজেলার ফতুল্লা থানার পাগলা পশ্চিম নন্দলালপুর এলাকার আমান উল্লাহ প্রধানের বাড়িতে এ মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর অভিযুক্ত মা রোকসানা আক্তারকে পুলিশ আটক করেছে। তবে অভিযোগ রয়েছে, দুপুরে এ ঘটনার পর ওই পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা বিষয়টি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করে। পরে রাত সাড়ে দশটায় পুলিশ স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে মানুষিক ভারসাম্যহীন মা রোকসানা আক্তারকে আটক করে। নিহত শিশুটির নাম আশফাক জামান জাহিন। শিশুটির বাবা নুরুজ্জামান মারুফ জানান, গত চার থেকে পাঁচ বছর আগে পারিবারিকভাবে একই এলাকার রোকসানা আক্তারের সাথে তার বিয়ে হয়। তবে বিয়ের কিছুদিন পর থেকেই তার স্ত্রী রোকসানা মানসিক ভারসাম্যহীন তা ধরা পরে। বিভিন্নভাবে চিকিৎসা করেও তার অবস্থার কোন উন্নতি হয় নি। এভাবেই চলছিল তাদের অস্বাভাবিক দাম্পত্য জীবন। নুরুজ্জামান মারুফ আরো জানান, সোমবার দুপুরে তার বড় মেয়ে অর্পার মোবাইল ফোন পেয়ে শহরের চাষাড়ায় পপুলার হাসপাতালে ছুটে যান। সেখানে গিয়ে জানতে পারেন তার স্ত্রী রোকসানা তাদের দেড় বছরের শিশু পুত্র জাহিনকে বাড়ির ছাদ থেকে ফেলে দিয়েছেন। পপুলার হাসপাতাল থেকে পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক জাহিনকে মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ফতুল্লা মডেল থানার ওসি আসলাম হোসেন জানান, ফতুল্লার পাগলা পশ্চিম নন্দলালপুর আমান উল্লাহ প্রধানের বাড়িতে খন্দকার নুরুজ্জামান মারুফ তার স্ত্রী রোকসানা আক্তার ও দুই ছেলে এক মেয়েকে নিয়ে ভাড়া থাকেন। তাদের মধ্যে রোকসানা আক্তার মানসিক ভারসাম্যহীন রোগী বলে পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। সন্ধ্যার সময় চারতলা বাড়ির ছাদ থেকে শিশু জাহিনকে তার মা রোকসানা আক্তার (২৮) ফেলে দেন। এ ঘটনায় পুলিশ অভিযুক্ত রোকসানাকে গ্রেফতার করেছে।

বিমানের ফ্যানে লেগে বিচ্ছিন্ন নারী যাত্রীর হাত

একটি ছোট প্রাইভেট বিমানে চড়েছিলেন যাত্রী। অসাবধানতা বশত বিমানের প্রপেলারে (বিশেষ ধরনের ফ্যান) লেগে যায় তার একটি হাত। চলন্ত প্রপেলার কেটে বিচ্ছিন্ন করে ফেলে হাতটি। এরপর দ্রুত তাকে হাসপাতালে নেয়া হলে অবস্থার উন্নতি হয়। তবে হাতটি চিরদিনের জন্য তিনি হারিয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্রের মায়ামির নিকটবর্তী ‘কী ওয়েস্ট’ নামক এলাকায় গত শনিবার এই ঘটনা ঘটে। ৪৫ বছর বয়সী ভিকটিম নারীর নাম রেবেকা লিন গ্রে। ঘটনাটি ঘটে বিমানটি চালু করার পরেই কিন্তু উড্ডয়নের আগ মুহূর্তে। বিমান চালাচ্ছিলেন রেবেকার স্বামী ওয়াল্টার গ্রে। তার চোখের সামনেই কেটে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় স্ত্রীর হাত।

ঢাকা কলেজ ছাড়লেন আবরারের ছোট ভাই ফাইয়াজ

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) নিহত ছাত্র আবরার ফাহাদের ছোট ভাই আবরার ফাইয়াজ আর ঢাকায় পড়তে চান না। ফাইয়াজ ঢাকা কলেজের একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিলেন। ভাইয়ের নির্মম মৃত্যুর পর সম্প্রতি বলেছিলেন তিনি আর ঢাকায় পড়তে চাননা। আজ মঙ্গলবার ঢাকা কলেজ থেকে ছাড়পত্র নিয়েছেন তিনি। ঢাকা কলেজ ছেড়ে কুষ্টিয়া সরকারি কলেজে পড়বেন ফায়াজ। ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের কলেজ শাখার এক কর্মকর্তা জানান, আবরারের ছোট ভাইয়ের ছাড়পত্র হয়ে গেছে। সে কুষ্টিয়া সরকারি কলেজে পড়বে। বিশেষ ব্যবস্থায় সে আজকে আবেদন করেছে এবং আজকেই তার ছাড়পত্র মঞ্জুর করা হয়েছে। এ বিষয়ে তার বাবা বরকত উল্লাহ বলেন, ‘ছাড়পত্র নেওয়ার সব কাজ শেষ হয়েছে। ঢাকা কলেজের অধ্যক্ষের সঙ্গে দেখা করে ছাড়পত্র নেওয়া হয়। কুষ্টিয়ায় ফিরে কুষ্টিয়া সরকারি কলেজে বিজ্ঞান বিভাগে তাকে ভর্তি করা হবে।