sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

আদি বুড়িগঙ্গা চ্যানেল উদ্ধার করা হবে, নো কম্প্রোমাইজ :স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

আদি বুড়িগঙ্গা চ্যানেল উদ্ধার করা হবে, নো কম্প্রোমাইজ : মন্ত্রী
, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম আজ রোববার মন্ত্রণালয়ে স্থানীয় সরকার বিভাগের সম্মেলনকক্ষে একটি সভায় বক্তব্য দেন। রাজধানীতে যারা ভুয়া কাগজপত্র বানিয়ে আদি বুড়িগঙ্গা চ্যানেলসহ খাল দখল করে অবৈধভাবে বিভিন্ন অবকাঠামো নির্মাণ করেছে সেগুলো উচ্ছেদ করা হবে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম। নাগরিক সেবা প্রদানে কোনো কম্প্রোমাইজ করা হবে না বলেও জানান তিনি। আজ রোববার মন্ত্রণালয়ে স্থানীয় সরকার বিভাগের সম্মেলনকক্ষে ঢাকা মহানগরীর জলাবদ্ধতা নিরসনে বৃষ্টির পানি নিষ্কাশন এবং প্রাকৃতিক খালসমূহের ব্যবস্থাপনাকল্পে সমন্বিত কর্মপরিকল্পনা প্রণয়নের লক্ষ্যে আয়োজিত সভা শেষে সাংবাদিকদের মন্ত্রী এসব কথা বলেন। স্থানীয় সরকারমন্ত্রী বলেন, গণপূর্ত মন্ত্রণালয়, ঢাকা জেলা প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্ট সবার সমন্বয়ে সিএস এবং আরএস দেখে ধাপে ধাপে সব জায়গা চিহ্নিত করা হবে। এরপর নদী-খাল দখল করে যত অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ করা হয়েছে ঢাকা দুই সিটি করপোরেশন সরকারের অন্যান্য সংশ্লিষ্ট সব প্রতিষ্ঠানের সহযোগিতা নিয়ে উচ্ছেদ অভিযান চালাবে এবং দুই মেয়র সফল হবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি। গণপূর্ত মন্ত্রণালয় এবং অন্যান্য সরকারি প্রতিষ্ঠানের অধীন যেসব খাল রয়েছে সেগুলো সিটি করপোরেশনের কাছে হস্তান্তর করা হবে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, জনপ্রতিনিধিত্বমূলক প্রতিষ্ঠান অধিক দায়িত্বশীল হবে বলেই ওয়াসা থেকে খালের দায়িত্ব দুই সিটি করপোরেশনকে দেওয়া হয়েছে। অন্য প্রতিষ্ঠানের অধীনে থাকা খালের দায়িত্বও দুই সিটি করপোরেশনেকে দেওয়ার বিষয়ে সভায় আলোচনা হয়েছে এবং এ লক্ষ্যে একটি আন্তমন্ত্রণালয় বৈঠক করা হবে। মন্ত্রী বলেন, দেশের মানুষকে উন্নত জীবনমান নিশ্চিত করতে কারো সঙ্গে কোনো কম্প্রোমাইজ করা হবে না। ঢাকাকে শুধু বাসযোগ্য নয়, দৃষ্টিনন্দন করে বিনোদনকেন্দ্রে পরিণত করা হবে। তিনি আরো বলেন, শুধু বৃষ্টির পানি যাওয়ার এবং খালগুলোকে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করার জন্য সিটি করপোরেশনের কাছে এটা হস্তান্তর করা হয়নি। খাল হস্তান্তরের উদ্দেশ্য হলো যেসব খালের জায়গা অবৈধভাবে দখল হয়েছে তা দখলমুক্ত করে সংস্কার করা এবং নগরীকে জলাবদ্ধতা থেকে মুক্ত করা। সভায় ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন দীর্ঘ (আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে), মধ্য (আগামী দুই বছরের মধ্যে) এবং স্বল্পমেয়াদে (আগামী ছয় মাসের মধ্যে) কর্মপরিকল্পনা গ্রহণের কথা উল্লেখ করে। এ ছাড়া দক্ষিণ সিটি করপোরেশন চলতি বছর থেকে শুরু করে ২০২৪ সাল পর্যন্ত নিজস্ব এবং সরকারি অর্থায়নে বিভিন্ন পরিকল্পনা বাস্তবায়নের কথা জানায়। সভায় ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস, স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ, ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাকসিম এ খান, রাজউক চেয়ারম্যান সাঈদ নূর আলম, দুই সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। গত ৩১ ডিসেম্বর রাজধানীর বৃষ্টির পানি নিষ্কাশনের দায়িত্ব ঢাকা ওয়াসার কাছে থেকে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

প্রাথমিক বিদ্যালয় খোলার প্রস্তুতি নিতে নির্দেশনা

প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলো খুলে দিতে প্রস্তুতি নেওয়ার নির্দেশনা জারি করেছে অধিদপ্তর। একইসঙ্গে করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে জনস্বাস্থ্য ও স্বাস্থবিধি মেনে বিদ্যালয় চালুর বিষয়ে নির্দেশিকাও দিয়েছে। রোববার রাতে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের যুগ্ম সচিব (পরিচালক, পলিসি ও অপারেশন) মনীষ চাকমা এ নির্দেশনা জারি করেন। নির্দেশনা অনুযায়ী, শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মচারীদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করে বিদ্যালয়গুলো পুনরায় চালু করতে আগামী ৪ ফেব্রুয়ারির মধ্যে প্রস্তুতি সম্পন্ন করার অনুরোধ করা হয়েছে। যেন ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশ পাওয়া মাত্রই বিদ্যালয়গুলোতে পাঠদান কার্যক্রম শুরু করা যায়। দেশে গত বছরের ৮ মার্চ প্রথম করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। এ কারণে গত ১৭ মার্চ থেকে দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো (কওমি মাদ্রাসা ছাড়া) বন্ধ রয়েছে। এরমধ্যে কয়েক ধাপে বাড়ানোর পর গত ১৬ জানুয়ারি পর্যন্ত ছুটি ছিল। সেই চলমান ছুটি বাড়িয়ে ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত করে সরকার।

দ. চীন সাগরে গেছে থিওডোর রুজভেল্ট; চীন-আমেরিকা উত্তেজনা বাড়ছে

চীনের উপকূলরক্ষী বাহিনীকে বিদেশি জাহাজে গুলি করার অনুমতি দিয়ে বেইজিং সরকার নতুন একটি আইন পাস করার পর দক্ষিণ চীন সাগরে বিমানবাহী রণতরী পাঠিয়েছে আমেরিকা। মার্কিন সরকারের এই সিদ্ধান্তের ফলে দক্ষিণ চীন সাগরের সামরিক উত্তেজনা চরম আকার ধারণ করতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। মার্কিন সামরিক বাহিনী আজ (রোববার) জানিয়েছে, ইউএসএস থিওডোর রুজভেল্ট বিমানবাহী রণতরী গতকাল শনিবার দক্ষিণ চীন সাগরে প্রবেশ করেছে। রণতরীর কমান্ডার ডগ ভেরিসিমো সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, ৩০ বছরের কর্মজীবনে তিনি দক্ষিণ চীন সাগরের পানিসীমা দিয়ে বহুবার যাতায়াত করেছেন, আবার দক্ষিণ চীন সাগরে ফিরতে পেরে তিনি উল্লসিত। ভেরিসিমো তার ভাষায় বলেন, দক্ষিণ চীন সাগরের জলরাশিতে জাহাজ চলাচলের স্বাধীনতা নিশ্চিত করার জন্য কাজ করবেন তারা এবং মিত্রদেরকে আশ্বস্ত করবেন। কমান্ডার ভেরিসিমো বলেন, বিশ্বের দুই-তৃতীয়াংশ বাণিজ্য এই গুরুত্বপূর্ণ অঞ্চল দিয়ে হয়ে থাকে। ফলে এই অঞ্চলে আমেরিকার উপস্থিতি মৌলিক বিষয়। দক্ষিণ চীন সাগরের প্রায় পুরো এলাকার ওপর সার্বভৌমত্ব দাবি করছে চীন। তবে ওই এলাকার প্রতিবেশী কয়েকটি দেশের পক্ষ নিয়েছে আমেরিকা। মার্কিন সরকার দক্ষিণ চীন সাগরে প্রায়ই যুদ্ধজাহাজ এবং জঙ্গিবিমান পাঠিয়ে থাকে; তারা দাবি করে আসছে যে এটি তাদের জাহাজ চলাচলের স্বাধীনতা। অন্যদিকে চীন বারবার আমেরিকাকে দক্ষিণ চীন সাগরে সামরিক তৎপরতার জন্য হুঁশিয়ার করে আসছে।#

রেশম শিল্পকে বিশ্বমানে রূপান্তরে সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে : পাটমন্ত্রী

বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী, বীরপ্রতীক, এমপি বলেছেন, দেশের রেশম শিল্পের সম্প্রসারণ ও উন্নয়ন করে বিশ্বমানে রূপান্তরের জন্য সরকারি-বেসরকারি সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে । তিনি আজ দুপুরে রাজধানীর জেডিপিসি মিলনায়তনে রাজশাহীর ঐতিহ্যবাহী রেশম পণ্যের প্রদর্শনী ও বিক্রয় কেন্দ্রের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন। বাংলাদেশ রেশম উন্নয়ন বোর্ডের মহাপরিচালক মু.আবদুল হাকিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অন্যান্যের মধ্যে বস্ত্র সচিব লোকমান হোসেন মিয়া, জেডিপিসি’র নির্বাহী পরিচালক মোহাম্মদ আবুল কালাম সহ মন্ত্রণালয় ও রেশম উন্নয়ন বোর্ডের উর্দ্ধতন কর্মকর্তা এবং বেসরকারি উদ্যোক্তারা উপস্থিত ছিলেন । গোলাম দস্তগীর গাজী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকার এই শিল্পকে আধুনিক ও বিশ্বমানের করে গড়ে তুলতে কাজ করছে। বর্তমান সরকারের লক্ষ্য হলো রেশম শিল্প এবং রেশম চাষিদের ভাগ্যোন্নয়নে পরিকল্পনা প্রণয়ন করে আত্মকর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি, দারিদ্র বিমোচন ও রেশম চাষিদের আর্থ সামাজিক অবস্থার উন্নয়ন করা। তিনি বলেন, এই শিল্পের ঐতিহ্য বিশ্বব্যাপি তুলে ধরতে এ শিল্পকে আধুনিকায়ন করা হবে। রেশমের সুতা উৎপাদনে প্রযুক্তির ব্যবহার তাঁত শিল্পকে অধিকতর মানসম্পন্ন করে তুলবে। এজন্য বেসরকারি খাতকে সঙ্গে নিয়ে সমন্বিত পরিকল্পনা প্রণয়ন করতে হবে। কম খরচে উন্নতমানের রেশম কাপড় তৈরি করার জন্য প্রযুক্তির উৎকর্ষ অপরিহার্য। প্রয়োজনে বিদেশ থেকে উন্নত প্রযুক্তি আনতে হবে। এই শিল্পের সাথে সংশ্লিষ্টদের বিদেশে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে। মন্ত্রী বলেন, বিদেশ থেকে আমদানিকৃত সুতার উপরে প্রায় ৬০ শতাংশ কর আরোপ করার পরও প্রতিযোগি দেশের সাথে পেরে উঠতে পারছি না। সুতরাং আমাদের প্রযুক্তিগত কোথাও না কোথাও ঘাটতি রয়েছে। তিনি আরো বলেন, আমাদেরকে সমস্যাগুলো খুঁজে বের করতে হবে। প্রযুক্তির সহযোগিতা নিয়ে সমস্যা সমাধান করতে হবে। যাতে আমরা বিদেশের চেয়ে ভালো মানের সুতা উৎপাদন করতে পারি।

উইন্ডিজকে বাংলাওয়াশের টার্গেটে কাল মাঠে নামছে টাইগাররা

বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজের শেষ ওয়ানডে কাল চট্টগ্রামে। দূর্বল ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে হোয়াইটওয়াশের লক্ষ্য স্বাগতিকদের। বিপরীতে ঘুরে দাঁড়াতে মরিয়া ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সাগরিকায় ১৬ মাস পর ফিরছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট। ম্যাচটি শুরু হবে যথারীতি সকালে সাড়ে এগারোটায়। ষোলো মাস পর ক্রিকেটারদের পদচারনায় মুখর জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম। ঘরের মাঠে নতুন পরিচয়ে ফিরছেন তামিম ইকবাল। অধিনায়ক হয়ে। সিরিজ জেতার প্রথম লক্ষ্যপূরণ হয়েছে বাংলাদেশের। তবে পুরো দল এখনো একাট্টা বাকি ম্যাচ জিতে প্রতিপক্ষকে হোয়াইটওয়াশ করতে। তাই দলে পরিবর্তন আসলেও ব্যাপক হবে না তার পরিধি। গুঞ্জন রুবেল হোসেনকে বাইরে রেখে একাদশে দেখা যেতে পারে পেস বোলিং অলরাউন্ডার সাইফউদ্দিনকে। এই মাঠে ১৯ ম্যাচের ১২ ওয়ানডে জিতে পরিসংখ্যানে অনেক এগিয়ে স্বাগতিকরা। ১৩ ম্যাচে পরে ব্যাট করা দল জিতেছে। সিরিজেও প্রথম দুই ওয়ানডেতে বাংলাদেশ জিতেছে পরে ব্যাট করে। যেখানে ব্যাটসম্যানদের খুব বেশি পরীক্ষা হয়নি। বড় স্কোর করায় বা তাড়া করায়। তারপরও নেটে তামিম, সাকিব, মুশফিক, মাহমুদউল্লাহরা প্রস্তুতি নিয়েছেন যে কোনো পরিস্থিতির জন্য। প্রথম দুই ম্যাচেই লিটন দাস আর নাজমুল হোসেন শান্ত ব্যর্থ বড় স্কোর করতে। তাদেরও দেখা মিলেছে ব্যাট আর বলের সংযোগ স্থাপনে। বিপরিতে বোলিং ডিপার্টমেন্ট সফল। সাকিব, মেহেদী মিরাজের স্পিনের বিষে নীল ক্যারিবিয়রা। সাগরিকার উইকেটও বরাবরই স্পিন ফ্রেন্ডলি। তাই শেষ ওয়ানডেতেও ব্যবধান গড়ে দিতে পারেন ঘূর্ণিবলের জাদুকররা। ক্যারিবিয় আকিল হোসেনকেও গোনায় ধরতে হবে। এবার প্রতিপক্ষকে হোয়াইটওয়াশ করতে পারলে তা হবে ক্যারিবিয়দের বিপক্ষে দ্বিতীয়। ২০০৯ এ ওয়েস্ট ইন্ডিজ গিয়ে যে কাজটা প্রথম করেছিলো বাংলাদেশ। ওয়ানডেতে ১৩বার হোয়াইটওয়াশ করার কীর্তি আছে বাংলাদেশের।

রমজানের আগে টিসিবির মাধ্যমে ৩ গুণ ভোজ্যতেল আমদানির সিদ্ধান্ত

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুন্সি বলেছেন, যারা কোনোদিন তেল হাত দিয়ে স্পর্শ করেননি অথচ ড্রইংরুমে বসে বিনা পয়সা কামাচ্ছেন, সেইসব মধ্যস্বত্তভোগী ফড়িয়াদের দৌরাত্ম্য কমাতে কঠোর বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। ব্যবসায়ীদের সাথে এক মতবিনিময় সভায় তিনি বলেন, আমদানি নির্ভর হওয়ায় দীর্ঘমেয়াদে দাম নির্ধারণ করে দেয়া সম্ভব নয়। আশ্বাস দেন, আমদানির ক্ষেত্রে থাকা একাধিক শুল্কস্তর কমিয়ে আনার। আসছে রমজান সামনে রেখে টিসিবির মাধ্যমে অন্য বছরের চেয়ে ৩ গুন বেশি পণ্য আমদানি করা হবে বলেও জানান তিনি। দীর্ঘদিন ধরেই দেশীয় বাজারে ঊর্ধ্বমুখী ভোজ্য তেলের বাজার। যার প্রধান কারণ, আন্তর্জাতিক বাজারে দাম বৃদ্ধি। বিভিন্ন উৎসের তথ্য উপাত্ত বলছে, বর্তমানে প্রতি টন সয়াবিন বিক্রি হচ্ছে সাড়ে এগারশ মার্কিন ডলারে। যা মাস দেড়েকের ব্যবধানে বেড়েছে ৩০ শতাংশের ওপরে। একই প্রবণতা ছিল পাম তেলের দরেও। দেশীয় বাজারেও দাম বাড়ার হার ছিল প্রায় একই। তাই নিত্য প্রয়োজনীয় এই পণ্যের লাগাম টানার উপায় খুঁজতে ব্যবসায়ীদের সাথে বসে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। দেশের বর্তমানে ২৪ লাখ টনের মতো চাহিদা আছে তেলের। যার ৯৫ শতাংশই আনতে হয় বিদেশ থেকে। আমদানির এই প্রক্রিয়ার মধ্যে আবার শুল্ক ব্যবস্থা রাখা হয়েছে চার ধাপে। যে কারণে বাড়তি সময়সহ খরচের ধাক্কাও নিতে হয় কম-বেশি। অনুষ্ঠানে সেটি সমাধানের আশ্বাস দেন বাণিজ্যমন্ত্রী। স্বাভাবিক সময়ের দ্বিগুণের মতো ভোজ্য তেলের চাহিদা বাড়ে রমজানে। তালিকায় থাকে আরো কয়েকটি নিত্যপণ্য। তাই, সেগুলোর পর্যাপ্ত সরবরাহ এবং দাম নিয়ন্ত্রণের বিষয়টিও সামনে আনেন মন্ত্রী।

সাধারণ শিক্ষার পাশাপাশি গবেষণায়ও মনোনিবেশের আহ্বান রাষ্ট্রপতির

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস্ (বিইউপি) কতৃপক্ষকে সাধারণ শিক্ষা কার্যক্রমের সঙ্গে সঙ্গে গবেষণা কার্যক্রমের দিকে মনোনিবেশ করতে বলেছেন। বিইউপি উপাচার্য মেজর জেনারেল মো. মোশফেকুর রহমান আজ সন্ধ্যায় বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ কালে তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার সঙ্গে সঙ্গে গবেষণা কার্যক্রমের উপর মনোযোগ দিন। বৈঠক শেষে রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব মোহাম্মদ জয়নাল আবেদীনকে এ কথা বলেন। বিইউপির সামগ্রিক কর্মকান্ডে সন্তোষ প্রকাশ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, বিইউপি ইতোমধ্যে তার বিভিন্ন কার্যক্রমের জন্য সুনাম অর্জন করেছে, যার মধ্যে রয়েছে শিক্ষা এবং শিক্ষার অনুকূল পরিবেশ বজায় রাখা। বৈঠকে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আবদুল হামিদকে বিইউপির একাডেমিক ও উন্নয়ন কার্যক্রম সম্পর্কে অবহিত করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্যক্রম যথাযথভাবে পরিচালনায় রাষ্ট্রপতির সহযোগিতা ও নির্দেশনা চাওয়ায় রাষ্ট্রপতি ভিসিকে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা প্রদানের আশ্বাস দেন। রাষ্ট্রপতির সংশ্লিষ্ট সচিবগণ এসময় উপস্থিত ছিলেন।