sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » সেই মায়া সান্তোসের ৩২ থেকে ৫৬ বছরের কারাদণ্ড







বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির ঘটনায় ফিলিপিন্সের রিজাল কমার্শিয়াল ব্যাংকিং কর্পোরেশন- আরসিবিসি'র সাবেক ম্যানেজার মায়া সান্তোস দেগুইতোকে ৩২ থেকে ৫৬ বছরের কারাদণ্ড ও প্রায় ১১ কোটি ডলার অর্থদণ্ড দিয়েছে দেশটির এক আদালত। বৃহস্পতিবার (১০ জানুয়ারি) মাকাতি শহরের বিচারিক আদালত এ আদেশ দেন।


 ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ থেকে সুইফট কোড জালিয়াতির মাধ্যমে চুরি হয় ১০ কোটি ১০ লাখ ডলার। চুরি হওয়া এ অর্থ যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউইয়র্কে স্থানান্তরের জন্য ৩৫ টি নির্দেশনা যায়। যার মধ্যে কার্যকর হয়ে যায় ৫ টি নির্দেশনা। বেহাত হওয়া ৮ কোটি ১০ লাখ ডলার ফিলিপিন্সে চলে যায়। বাকি ২ কোটি ডলার যায় শ্রীলঙ্কায়। সেই টাকা ফেরত পাওয়া গেলেও ফিলিপিন্সের মাকাতি শাখা থেকে ৮ কোটি ১০ লাখ ডলার চলে যায় ক্যাসিনোয়।

এ ঘটনায় রিজাল কমার্শিয়াল ব্যাংকিং কর্পোরেশন আরসিবিসি'র সাবেক ম্যানেজার মায়া দেগুইতো'কে অভিযুক্ত করা হয়। প্রায় দুই বছর পর বৃহস্পতিবার ফিলিপিন্সের মাকাতি শহরের আঞ্চলিক আদালতে দোষী সাব্যস্ত হলেন মায়া। ৮টি অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় প্রতিটি ধারায় ৪ থেকে ৭ বছরের কারাদণ্ড এবং ১০ কোটি ৯০ লাখ ডলার জরিমানা করা হয় তাকে। এর আগেই মায়া দেগুইতোকে বহিস্কার করে আরসিবিসি কর্তৃপক্ষ।

এ বিষয়ে ফিলিপিন্সের আদালতে দফায় দফায় শুনানি হয়। মামলার অগ্রগতি দেখতে বিভিন্ন সময় গেছেন বাংলাদেশের প্রতিনিধিদলও। নিউইয়র্কের ফেডারেল রিজার্ভের হস্তক্ষেপ আর দুই দেশের যৌথ তৎপরতায় বাংলাদেশে ফেরত আসে ১ কোটি ৪৫ লাখ ডলার। এখনো ৬ কোটি ৬৫ লাখ ডলার পাওয়া বাকি। নভেম্বরে অর্থ ফেরত আনতে যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছেন সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply