sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » মেহেরপুরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ধর্ষণ মামলার আসামি নিহত





মেহেরপুরের গাংনী উপজেলায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ধর্ষণ মামলার আসামি কাজল নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন বলে পুলিশের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে।
গতকাল শুক্রবার দিবারাত দেড়টার দিকে উপজেলার রামকৃষ্ণপুর ধলা গ্রামের গাড়াডোব-আমঝুপি সড়কের একটি বাঁশবাগানে ওই বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে বলে পুলিশের দাবি। গাংনী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হরেন্দ্রনাথ সরকার দাবি করেন, দীর্ঘদিন ধরে উপজেলার ধলা গ্রামে আত্মগোপনে ছিলেন ধর্ষণ মামলার আসামি কাজল। সেখানে অবস্থানকালে স্থানীয় এক মেয়ের ওপরেও কুনজর পড়ে তাঁর। এরই পরিপ্রেক্ষিতে গত বুধবার বিকেলে কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় মেয়েটির মুখে এসিড নিক্ষেপ করেন কাজল। পরবর্তী সময়ে ওই ঘটনায় ক্ষুব্ধ গ্রামবাসীরা কাজলকে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেন। ‘পরে পুলিশের কাছে দেওয়া জবানবন্দির তথ্য অনুসারে, গতকাল রাতে গাড়াডোব-আমঝুপির একটি বাঁশবাগানে কাজলকে নিয়ে অস্ত্র ও গুলি উদ্ধারে যায় পুলিশের একটি দল। সেখানে পৌঁছলে সন্ত্রাসীদের একটি দল পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি করে। পুলিশও পাল্টা গুলি করলে বন্দুকযুদ্ধের মাঝে পড়ে কাজল গুলিবিদ্ধ হন।’ পরে কাজলকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয় বলেও দাবি করেন ওসি। ওসি আরো জানান, কাজলের বিরুদ্ধে গাংনী থানায় একটি ধর্ষণ মামলা রয়েছে। পুলিশের হাতে আটক হওয়া থেকে রক্ষা পেতে তিনি দীর্ঘদিন ধলা গ্রামে আত্মগোপনে ছিলেন। মেহেরপুরের ধর্ষণ ও এসিড নিক্ষেপ মামলার আসামি কাজল স্কুল ছাত্রী ধর্ষণ ও গৃহবধুকে এসিড নিক্ষেপ মামলার আসামি ইয়াকুব আলী কাজল (২৩) পুলিশের সাথে তার বাহিনীর গুলাগুলির ঘটনায় নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশের এসআই সহ ২ জন আহত হয়েছেন। শুক্রবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার গাড়াডোব গ্রামের একটি বাঁশবাগানে এ ঘটনা ঘটে। নিহত কাজল গাড়াডোব গ্রামের জালাল উদ্দীন হাবুর ছেলে। গাংনী থানার পরিদর্শক তদন্ত সাজেদুল ইসলাম জানান, পুলিশের কাছে স্বাীকরোক্তিতে ধর্ষণ ও এসিড নিক্ষেপের অপরাধ স্বীকার করে কাজল। তার নেতৃত্বে গাড়াডোব গ্রামের বেশ কয়েক যুবক বিভিন্ন অপরাধ মূলক কর্মকা-ের সাথে জড়িত। তাদের কাছে রয়েছে বেশ কয়েকটি অস্ত্র। তার স্বীকারোক্তি মোতাবেক অস্ত্র উদ্ধারে গাড়াডোব গ্রামে যায় পুলিশের একটি দল। এসময় কাজলের দলের লোকজন পুলিশের উপর গুলি বর্ষণ শুরু করে। পুলিশও পাল্টা গুলি বর্ষণ করলে গুলাগুলি শুরু হয়। কিছুক্ষণ গুলির লড়াইয়ে পুলিশের ২ জন আহত হয়। ঘটনাস্থল থেকে কাজলকে উদ্ধার করে গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ভক্সপপ: সাজেদুল ইসলাম, পরিদর্শক-তদন্ত, গাংনী থানা, মেহেরপুর।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply