sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » রাজীব গান্ধী ফাউন্ডেশনকে কেন বিপুল টাকা চাঁদা দিয়েছিল চিন, জানতে চায় দেশবাসী'





'রাজীব গান্ধী ফাউন্ডেশনকে কেন বিপুল টাকা চাঁদা দিয়েছিল চিন, জানতে চায় দেশবাসী' রাহুল গান্ধী অভিযোগ করেছিলেন, দেশের ভূখণ্ড চিনের হাতে তুলে দিয়েছেন মোদী লাদাখে চিনা সেনার উপস্থিতি নিয়ে কেন্দ্রকে ক্রমাগত নিশানা করে চলেছে কংগ্রেস। রাহুল গান্ধী, সোনিয়া গান্ধী, কপিল সিব্বল, পি চিদম্বরম-কে নে

ই সেই ব্রিগেডে। রাহুল গান্ধীর সাফ দাবি, চিনের কাছে সারেন্ডার করেছেন মোদী। পাশাপাশি কপিল সিব্বলের দাবি, প্রধানমন্ত্রী চিনা দখলদারির প্রতিবাদ করুন প্রকাশ্যে। এবার এনিয়ে পাল্টা আক্রমণ শানালেন, বিজেপি সভাপতি জে পি নাড্ডা। গত দুদিন ধরে তিনি ক্রমাগত কংগ্রেসকে তুলোধনা করছেন। কংগ্রেসের সঙ্গে চিনের সখ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন। শনিবার জে পি নাড্ডা বলেন, ২০০৫ সাল থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত টানা রাজীব গান্ধী ফাউন্ডেশন চিনা দূতাবাস থেকে ডোনেশন নিয়েছিল। ২০০৬ সাল থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত লুক্সেমবুর্গ থেকে ফাউন্ডেশেন চাঁদা নিয়েছিল। এর অর্থ কী! এনজিও ও কোম্পানিগুলির স্বার্থ ছিল তাই চাঁদা দিয়েছে। বিদেশি কোনও দেশে কাছ থেকে কোনও ব্যক্তিগত ট্রাস্টে চাঁদা নেওয়া দেশের স্বার্থ বিরোধী। দেশের মানুষ জানতে চান রাজীব গান্ধী ফাউন্ডেশনের সঙ্গে চিনের সম্পর্ক কী। শুক্রবারও কংগ্রেসকে আক্রমণ করেন নাড্ডা। একের পর এক টুইট করে নাড্ডা বলেন, একটি পরিবারের টাকার লোভ দেশের ক্ষতি করছে। সোনিয়া গান্ধীর নেতৃত্বাধীন ট্রাস্টও প্রধানমন্ত্রী রিলিফ ফান্ড থেকে টাকা নিয়েছে। রাজীব গান্ধী ফাউন্ডেশনের পরিচালন পদ্ধতি নিয়েও প্রশ্ন তুলে দেন নাড্ডা। শনিবার তিনি বলেন, দেশের মানুষ জানতে চায়, রাজীব গান্ধী ফাউন্ডেশনের কেন ক্যাগ অর্ডিট হয় না। কেন এই ফাউন্ডেশনের তথ্য জানার জন্য আরটিআই করা যায় না।! মেহুল চোকসির মতো ব্যাঙ্ক জালিয়াতের সঙ্গেও রাজীব গান্ধী ফাউন্ডেশনকে জড়িয়ে দেন নাড্ডা। তাঁর প্রশ্ন, চোকসির মতো একজনের কাছ থেকে কেন চাঁদা নিয়েছিল রাজীব গান্ধী ফাউন্ডেশন! তার সঙ্গে ফাউন্ডেশনের সম্পর্ক কী! দেশবাসী জানতে চায়। উল্লেখ্য, রাহুল গান্ধী অভিযোগ করেছিলেন, দেশের ভূখণ্ড চিনের হাতে তুলে দিয়েছেন মোদী। পাশাপাশি সোনিয়া অভিযোগ করেন, মোদী সরকার অব্যবস্থার ফল হল লাদাখ সমস্যা। এনিয়ে নাড্ডা বলেন, সেনাবাহিনী দেশরক্ষার পুরো ক্ষমতা রাখে। এনিয়ে সন্দেহের কোনও অবকাশ নেই।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply