sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » ভুতুড়ে বিলের মাধ্যমে জনগণের রক্ত টেনে নিচ্ছে সরকার : রুহুল কবির রিজভী





ভুতুড়ে বিলের মাধ্যমে জনগণের রক্ত টেনে নিচ্ছে সরকার : রিজভী বিদ্যুতের ‘ভুতুড়ে’ বিলের মাধ্যমে সরকার সিরিঞ্জ দিয়ে জনগণের রক্ত টেনে নিচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। রিজভী বলেন, ‘বাড়িতে বাড়িতে বহু লোক আমাদের বলছেন, যেখানে বিদ্যুৎ বিল হওয়ার কথা এক হাজার থেকে ১১০০ বা ১২০০ টাকা। সেখানে ২০ হাজার-২৫ হাজার টাকা বিল আসছে। এই ভুতুড়ে বিল নিয়ে গণমাধ্যমে অনেক প্রতিবেদন ছাপা হয়েছে, (কিন্তু) সরকারের এদিকে কোনো ভ্রুক্ষেপ নেই। তারা নির্লজ্জভাবে গায়ের জোরে বছরে কয়েকবার বিদ্যুৎ ও জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধি করছে।’ নয়া পল্টনে আজ শনিবার বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ‘ফিউচার অব বাংলাদেশ’-এর উদ্যোগে বিদ্যুৎ-জ্বালানির দাম বৃদ্ধি সংক্রান্ত বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন আইন (সংশোধন) বিল সংসদে উত্থাপনের প্রতিবাদে এক মানববন্ধন কর্মসূচিতে বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব এসব মন্তব্য করেন। রিজভী বলেন, ‘এখন সিরিঞ্জে করে যেমন রক্ত টান দেয়, এ সরকার জনগণের শরীরে সিরিঞ্জ দিয়ে রক্ত টান দিচ্ছে এ বিদ্যুৎ-জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধি করে। আমরা তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। সরকার সংসদে বিল উপস্থাপন করেছে। তাদের (সরকার) টাকা দরকার। এ টাকা কোথায় যাচ্ছে জানেন? এটাও গতকাল বিভিন্ন পত্রিকায় বেরিয়েছে— পাঁচ হাজার কয়েকশ কোটি টাকা সুইস ব্যাংকের জমা আছে। এ টাকা কার? এ টাকা মন্ত্রীদের। এ টাকা আমলাদের। এ টাকা ক্ষমতাসীন দলের লোকদের।’ সাবেক এ ছাত্রনেতা আরো বলেন, ‘আজ ১১ থেকে ১২ বছর জনগণের এ টাকা আত্মসাৎ করে সুইস ব্যাংককে ফুলে-ফেঁপে একেবারে বিশাল মহিরুহে পরিণত করেছে তারা। এখন আরো টাকা দরকার। সুইস ব্যাংকে আরো কালো টাকা পাঠাতে হবে— এ লক্ষ্য নিয়ে বছরে কয়েকবার বিদ্যুৎ-জ্বালানি তেলের দাম তারা বৃদ্ধি করছে।’ করোনাভাইসরাসের সংক্রমণ পরিস্থিতির কথা তুলে ধরে রিজভী বলেন, ‘মানুষ মরছে। অক্সিজেন সিলিন্ডার নেই, অক্সিমিটার নেই, চিকিৎসা নেই ঢাকার কয়েকটি হাসপাতাল ছাড়া। কথা হয়তো গণমাধ্যমে আসছে, কিন্তু সব আসছে না। হাসপাতালে গিয়ে করোনা রোগী কোনো চিকিৎসা পাচ্ছে না। কারণ জনগণকে সুবিধা দেওয়া, জনগণের কষ্ট লাঘব করার কোনো কাজ তারা (সরকার) করেনি। বাংলাদেশের স্বাস্থ্য খাত ভেঙে গেছে। একেবারে ভঙ্গুর। মানুষ এখন কুকুর-বিড়ালের মতো রাস্তায় মরা যাচ্ছে। করোনায় আক্রান্ত মানুষ রাস্তায় মারা যাচ্ছে, এটাই হচ্ছে শেখ হাসিনার উপহার, এটাই হচ্ছে আওয়ামী লীগ সরকারের উপহার।’ বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব বলেন, “কোনো এক দেশের সম্রাট বলেছিলেন, ‘আই অ্যাম ল বা আমিই হলাম আইন’। শেখ হাসিনা হলেন সে সম্রাটের মতো। সরকার মনে করে, আমি যেটা বলব সেটাই আইন। বেশি কথা বলো না, বেশি কথা বললে একেবারে লালঘরে পাঠিয়ে দেব। বিরোধী দল ও বিরোধী মতের জন্য একেবারে পার্মানেন্ট করে রেখেছে লাল ঘর।” রিজভী আরো বলেন, ‘আমরা বলতে চাই, আমাদের বন্দি করবেন, তারপরও আমরা প্রতিবাদ করব। আমাদের মামলা দেবেন, আমাদের কারাগারে নিয়ে যাবেন, আমরা তো প্রস্তুত সব সময়। কিন্তু আপনার অন্যায়-অবিচার-অত্যাচার-জুলুম আর এ দেশের জনগণ কখনোই মেনে নেবে না।’ 1






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply