sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » বাজেটে ভর্তুকি ও প্রনোদনা ৫৩ হাজার কোটি টাকা





বাজেটে ভর্তুকি ও প্রনোদনা ৫৩ হাজার কোটি টাকা আসছে বাজেটে ভর্তুকি আর প্রনোদনা বাবদ প্রায় ৫৩ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হচ্ছে। যা চলতি অর্থবছরের চেয়ে ১১ ভাগের মতো বেশি। হিসেব বলছে, এই অর্থের বড় অংশই যাবে, কৃষি, খাদ্য আর বিদ্যুৎখাতে। যৌক্তিকতা যাচাই করে এসব অর্থের উপযুক্ত ব্যবহারের পরামর্শ অর্থনীতিবিদের।

জাতিসংঘের বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি-ডব্লিউএফপি বলছে, করোনাভাইরাসের প্রভাবে গোটা বিশ্বেই খাদ্য সঙ্কট দেখা দেবে। যার প্রভাব পড়বে দেশের খাদ্য নিরাপত্তাতেও। তাই আগামী বাজেটে খাদ্য উৎপাদন ও সরবরাহে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে। এবার খাদ্য ও কৃষিতে ভর্তুকি ও প্রণোদনা খাতে বরাদ্দ দেয়া হচ্ছে ১৫ হাজার ৪৫৩ কোটি টাকা, যা চলতি বাজেটের চেয়ে আড়াই হাজার কোটি টাকা বেশি। বৈধ পথে রেমিট্যান্স পাঠালে প্রতি ১০০ টাকায়, বাড়তি ২ টাকা করে দেয় সরকার। এই বাবদ এবার বাজেটে বরাদ্দ রাখা হচ্ছে ৩ হাজার ৬০ কোটি টাকা। রপ্তানি আয়ের বিপরীতে নগদ প্রনোদনায় বরাদ্দ হতে পারে চলতি বছরের মতোই, ৬ হাজার ৮২৫ কোটি টাকা। সবমিলিয়ে আসছে বাজেটে নগদ প্রণোদনা বাবদ ২২ হাজার ৮৮৫ কোটি টাকার বরাদ্দ দেয়া হতে পারে। আগামী বাজেটে বিদ্যুৎ খাতে ভর্তুকি দেয়া হতে পারে ৯ হাজার কোটি টাকার মতো। জ্বালানি আমদানিসহ, আসছে বছরে ভর্তুকির মোট পরিমান দাঁড়াচ্ছে প্রায় ২৪ হাজার কোটি টাকা। ভর্তুকি, প্রণোদনা আর নগদ ঋণ সহায়তায় এবার বাজেটে বরাদ্দ থাকছে প্রায় ৫৩ হাজার কোটি টাকা। চলতি বাজেটে যার পরিমান সাড়ে ৪৭ হাজার কোটি টাকা। করোনার সঙ্কট মোকাবিলা করে অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে আসছে বাজেটে নগদ ঋণ খাতে ৬ হাজার কোটি টাকা রাখার প্রস্তাব করতে পারে সরকার।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply