sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » নিউক্যাসেলকে উড়িয়ে দিল ম্যানচেস্টার সিটি





নিউক্যাসেলকে উড়িয়ে দিল ম্যানচেস্টার সিটি

নিউক্যাসেলকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দিয়ে জয়ে ফিরল ম্যানচেস্টার সিটি। এ জয়ে ৩৪ ম্যাচ শেষে সিটির সংগ্রহ ৬৯ পয়েন্ট। আরেক ম্যাচে, ব্রাইটন অ্যান্ড হোভ অ্যালবিওনের বিপক্ষে ৩-১ গোলের জয় পেয়েছে লিভারপুল। সমান ম্যাচে বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের সংগ্রহ ৯২ পয়েন্ট।

শিরোপার স্বপ্ন ভেঙ্গে চূড়মার হয়ে গেছে আগেই। ইপিএলের রাজা এখন লিভারপুল। স্বপ্ন ভাঙ্গা ম্যানচেস্টার সিটির গেল ম্যাচটাও কেটেছে দুর্বিসহ। সিটিজেনদের হারের তিক্ততা দেয় সাউদাম্পটন। তাই ঘুরে দাঁড়াতে মরিয়া হয়ে ছিল গার্দিওয়ালা বাহিনী।

ভেন্যু ইতিহাদ। তাই বাড়তি আত্মবিশ্বাস যুগিয়েছেন সমর্থকরা। দশ মিনিটেই গোলের শুরু করেন গ্যাব্রিয়েল জেসুস। ব্রাজিলিয়ান তারকার বলে যোগান দিয়েছেন ডেভিড সিলভা।

গোলের আনন্দ হজম করে ওঠার আগেই আবারো স্বাগতিকদের উল্লাসে মাতান মাহরেজ। ২১ মিনিটে ডি ব্রুইনির সঙ্গে মাহরেজের গোল স্বস্তি আনে সিটিজেন শিবিরে।

২-০ গোলে এগিয়ে গিয়ে কিছুটা ছন্নছাড়া হয়ে পড়ে সিটি। বিরতির আগে বেশ কিছু সহজ সুযোগ হারায় তারা। ৫৮ মিনিটে নিউক্যাসেলের ভুলে ব্যবধান ৩-০ তে নিয়ে যায় ম্যানচেস্টার সিটি। আত্মঘাতী গোল করেন ফেদেরিকো ফার্নান্দেস।

এতক্ষণ সতীর্থের বলে সহায়তা করেছেন। এবার নিজেই বনে যান রাজা। ৬৫ মিনিটে অসাধারণ এক ফ্রি কিকে দলকে আরো এগিয়ে নেন ডেভিড সিলভা।

গোলের নেশায় পেয়ে বসা সিটি ফরোয়ার্ডরা এরপর আক্রমণের পর আক্রমণে গিয়ে কোনঠাসা করে ফেলে নিউক্যাসেলের রক্ষণভাগ। ম্যাচের যোগ করা সময়ে আরও একবার অতিথিদের লজ্জায় ডোবান জেসুসের পরিবর্তে মাঠে নামা স্টার্লিং। তার গোলেই বড় জয়ের উৎসব মেতে মাঠ ছেড়েছে ম্যানচেস্টার সিটি।

আরেক ম্যাচে ব্রাইটনের মাঠে নামে লিভারপুল। স্বাগতিকদের শুরু থেকেই চাপে রাখে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। শিরোপা আগেই নিশ্চিত হয়ে গেলেও, একটা বিষয় নিয়ে মনখারাপ ছিল অলরেড সমর্থকদের। অ্যাওয়ে ম্যাচে গোলক্ষরা কাটছিল না লিভারপুলের। সে আক্ষেপ এদিন ঘুচিয়ে দিলেন মোহাম্মদ সালাহ।

৬ মিনিটে কেইটার সঙ্গে চমৎকার বোঝাপড়ায় গোল করেন এই মিশরীয় ফুটবলার। দু' মিনিট পরই ব্যবধান দ্বিগুণ করেন হেন্ডারসন। এরপর কয়েকটচি ভাল সুযোগ নষ্ট করেন চেম্বারলাইন ও সালাহ। সুযোগটা লুফে নেয় ব্রাইটন।

যোগ করা সময়ে গোল করেন লেয়ান্দ্রো। ম্যাচে ফেরে স্বাগতিকরা। তাদের সে আনন্দ বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি। ৭৬ মিনিটে আবারো নিজের ঝলক দেখান সালাহ। এ নিয়ে ইপিএলে ১৯টি গোল হল সালার। ২২ গোল নিয়ে শীর্ষে আছেন জেমি ভার্ডি। শেষ পর্যন্ত ৩-১ এ জয় পায় লিভারপুল।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply