sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » বারাক ওবামা ‘ভয়ংকয়’, বললেন ট্রাম্প




 

বারাক ওবামা ‘ভয়ংকয়’, বললেন ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ, এশীয় আমেরিকান নারী ভাইস প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হলেন ক্যালিফোর্নিয়ার সিনেটর কমলা হ্যারিস। ডেমোক্র্যাটদের কনভেনশনের তৃতীয় রাতে আনুষ্ঠানিকভাবে মনোনয়ন দেয়া হয় তাকে। এসময় কমলা মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে বর্ণবাদী উল্লেখ করে বলেন, বর্ণবাদের কোন ভ্যাকসিন নেই। মার্কিন গণতন্ত্র এখন ঝুঁকিতে, ট্রাম্প আবারও নির্বাচিত হলে যুক্তরাষ্ট্রে গণতন্ত্র বলে কিছু থাকবে না বলে মন্তব্য করেছেন সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। তবে ট্রাম্প কটাক্ষ করে বলেন, যুক্তরাষ্ট্রকে ভয়াবহ অবস্থায় রেখে গিয়েছিলেন ওবামা। ডেমোক্র্যাট দলীয় প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হিসেবে বাইডেনের মনোনয়ন চূড়ান্ত হওয়ার পর সবাই নিশ্চিত ছিলো তার রানিং মেট হিসেবে কমলা হ্যারিসও মনোনয়ন পাবেন। দলটির চলমান কনভেনশনের তৃতীয় রাতে আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করা হলো কমলা হ্যারিসের নাম। আর এর মধ্য দিয়ে প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ, এশীয়-আমেরিকান নারী ভাইস প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হলেন ক্যালিফোর্নিয়ার এই সিনেটর। মনোনয়ন নিশ্চিত হবার পর ভার্চুয়াল কনভেনশনে কমলাকে শুভেচ্ছা জানান দলের সদস্যরা। হাজির হন প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী বাইেডন। এসময় কমলা ট্রাম্পকে বর্ণবাদী উল্লেখ করে বলেন, বর্ণবাদের কোন ভ্যাকসিন নেই। প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী বাইেডন বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের মানুষের মধ্যে পার্থক্য তৈরি হয়েছে, আর তা করেছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। তিনি নেতৃত্ব দিতে ব্যর্থ হয়েছেন। আর সেজন্য মূল্য দিতে হচ্ছে বহু মানুষকে। কত মানুষ চাকরি হারাচ্ছে। কৃষ্ণাঙ্গ এবং আদিবাসীরা শিক্ষা, স্বাস্থ্য সবক্ষেত্রে বৈষম্যের শিকার। জো বাইডেনের রাজনীতি হচ্ছে যে যেমনই হোক সবাই তার কাছে সমান, কিন্তু ট্রাম্প সবাইকে সমান চোখে দেখেন না। কমলা হ্যারিসের মনোনয়ন পাওয়ার পর কনভেনশনে বক্তব্য রাখেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। ডেমোক্র্যাটদলীয় এ নেতা অভিযোগ করেন ট্রাম্প প্রেসিডেন্টের দায়িত্বটা বুঝতেই পারেননি। মার্কিন গণতন্ত্র এখন ঝুঁকিতে, ট্রাম্প আবারও নির্বাচিত হলে যুক্তরাষ্ট্রে গণতন্ত্র বলে কিছু থাকবে না। ট্রাম্প ক্ষমতায় আসার পর এই প্রথমবার ওবামা তাকে এভাবে আক্রমণ করলেন। সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বলেন, আপনার গণতন্ত্রকে এভাবে কেড়ে নিতে দেবেন না, কিভাবে এ অবস্থার পরিবর্তন আনা যায় তার পরিকল্পনা করুন। বসবাসের অযোগ্য এ পৃথিবীতে আমাদের সন্তানকে রেখে যাওয়া যাবে না। এদেশের কোন শিশু যেন বর্ণবাদের শিকার না হয়। তবে এ সমালোচনাকে পাত্তা না দিয়ে ট্রাম্প উল্টো কটাক্ষ করেছেন ওবামা একজন ভয়ঙ্কর প্রেসিডেন্ট ছিলেন। ওবামা যুক্তরাষ্ট্রকে ভয়াবহ অবস্থায় রেখে গিয়েছিলেন বলেও মন্তব্য করেন ট্রাম্প। তবে ট্রাম্প যদি আবারও নির্বাচিত হন তাহলে যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থা আরও খারাপ হবে বলে মন্তব্য করেছেন সাবেক মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটন। ট্রাম্পের নানা নেতিবাচক দিক তুলে ধরে জো বাইডেন এবং কমলা হ্যারিসকে ভোট দেয়ার আহ্বান জানিয়ে হিলারি বলেন ভোট দিন, যেন ট্রাম্প ভোট চুরি করতে না পারে। হিলারি বলেন, আমাদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। আমাদের স্বাস্থ্য খাতসহ বহু খাতের চরম দুর্দশা চলছে। মার্কিনদের মধ্যে হতাশা বেড়েই চলেছে।আমাদের সবাইকে এক হয়ে এ পরিস্থিতির উন্নতি করতে হবে। আর ট্রাম্প নারীদের সম্মান করেন না বলে মন্তব্য করলেন প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি। যখন নারীরা সফল হবে তখন যুক্তরাষ্ট্রও সফল হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। এদিকে, ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রকে ধ্বংস করে দিচ্ছেন বলে মন্তব্য করেছেন বিলি আইলিশ, প্রিন্স রয়সেসহ মার্কিন অনেক তারকা। একইসঙ্গে কনভেনশনের তৃতীয় রাতটি তারা স্মরণীয় করে রাখেন তাদের পারফর্মেন্স দিয়ে।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply