sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » সাতক্ষীরা পৌর কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ঝাড়ু-জুতা মিছিল




সাতক্ষীরা পৌর কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ঝাড়ু-জুতা মিছিল

সাতক্ষীরার বদ্দীপুর এলাকার স্থায়ী জলাবদ্ধতা নিরসনে ব্যর্থতা ও ত্রাণ নিয়ে মিথ্যাচারের প্রতিবাদে সাতক্ষীরা পৌর মেয়র ও কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে ঝাড়ু ও জুতা মিছিল এবং প্রতিবাদ সভা করেছে এলাকাবাসী। শুক্রবার (৪ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টায় সাতক্ষীরা পৌর ৩নং ওয়ার্ডের বদ্দীপুর এলাকায় অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন, নাগরিক আন্দোলন মঞ্চের সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহমান মাসুম, বদ্দীপুর জনকল্যাণ সমিতির সভাপতি লুৎফর রহমান, সাধারণ সম্পাদক আলমগীর হোসেন মনু, রবিউল ইসলাম, আব্দুর রহমান। এর আগে এলাকাবাসী ঝাড়ু ও জুতা নিয়ে জলামগ্ন বদ্দীপুরের বিভিন্ন মোড় প্রদক্ষিণ করে এবং জলাবদ্ধতা নিরসনে ব্যর্থ মেয়র ও কাউন্সিলের পদত্যাগ দাবি করেন। বক্তারা বলেন, বদ্দীপুর এলাকায় বছরের প্রায় ৬ মাস পানিতে তলিয়ে থাকে। প্রতিবারই ভোটের আগ মুহূর্তে মেম্বার চেয়ারম্যানরা প্রতিশ্রুতি দেন নির্বাচিত হলে পানি নিষ্কাশনসহ বদ্দীপুরবাসীর উন্নয়নে কাজ করবেন। পরে দেখা যায় তাদের কোনো খবর নেই। প্রতি বছরই আমাদের এভাবে পানিতে ডুবতে হয়। এ বিষয়ে জনপ্রতিনিধিসহ সরকারি কর্মকর্তাদের অবগত করালে তারা পরিদর্শনেই সীমাবদ্ধ রাখেন। এ বছরও তার ব্যতিক্রম হয়নি। বক্তারা আরো বলেন,গত কয়েকদিন পূর্বে সাতক্ষীরা পৌর মেয়র তাজকিন আহমেদ চিশতী, সংশ্লিষ্ট কাউন্সিলর সেলিমসহ পৌর কর্তৃপক্ষ বদ্দীপুর পরিদর্শনে আসেন। সে সময় মানুষের চলাচলের সুবিধার্থে দুইটি ট্রলি বরাদ্দ দেন। যাতে মানুষ বিনামূল্যে যাতায়াত করতে পারে। অথচ ট্রলি দুটি সকালে একবার আসে, তারপর আর খুঁজে পাওয়া যায় না। মানুষকে সেই ১০ টাকা হারে ভাড়া দিয়ে যাতায়াত করতে হচ্ছে। এখানকার মানুষকে পর্যাপ্ত খাদ্য সহযোগিতায় দিয়েছেন বলেও তিনি প্রচার দিয়েছেন। অথচ এখানে দুজন ব্যক্তি ছাড়া আর কেউ খাদ্য সহযোগিতা পায়নি। বক্তারা বলেন, তিনি দিচ্ছেন সামান্য আর পত্রিকায় ফলাও করে বলছেন পর্যাপ্ত দেয়া হচ্ছে। আমরা কোনো ত্রাণ চাই না, কোনো সহযোগিতা চাই না। আমরা জলাবদ্ধতা নিরসনে কার্যকর পদপেক্ষ চাই। দ্রুত পানি নিষ্কাশনে পদক্ষেপ না নিলে আরও কঠোর কর্মসূচি গ্রহণের ঘোষণা দেন তারা।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply