sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » জরিপে ট্রাম্পের থেকে এগিয়ে জো বাইডেন




ছবি: সিএনএন। মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অপেক্ষা ইলেক্টোরাল ভোটেই নির্ধারিত হয় জয়-পরাজয়। তাই, বেশি ভোট পেয়েও ইলেক্টোরাল ভোটের সমীকরণে হেরে যাওয়ার নজির আছে অনেক। ডোনাল্ড ট্রাম্প ও জো বাইডেন- এই দুই প্রার্থী তাই জোর দিচ্ছেন সুইং স্টেটগুলোর ইলেক্টোরাল ভোট নিশ্চিত করার ওপর। ২০১৬ সালের নির্বাচনে ডেমোক্র্যাট প্রার্থী হিলারি ক্লিনটনের চেয়ে প্রায় ৩০ লাখ ভোট কম পেয়েও প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প। এর আগে, জর্জ ডব্লিউ বুশসহ আরও ৪ প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন কম ভোট পেয়ে। এর কারণ, যুক্তরাষ্ট্রের জটিল নির্বাচনী পদ্ধতি। যুক্তরাষ্ট্রে এবার ভোটার সংখ্যা সাড়ে ২৪ কোটি। যদিও, ফলাফলের ক্ষেত্রে মোট ভোটসংখ্যা বা পপুলার ভোটের তেমন গুরুত্ব নেই। প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারিত হয় ইলেক্টোরাল কলেজ পদ্ধতিতে। জনসংখ্যার ভিত্তিতে ৫০ রাজ্যে ৫৩৮টি ইলেক্টোরাল ভোট রয়েছে। বেশি জনবহুল হওয়ায় স্বাভাবিকভাবেই ক্যালিফোর্নিয়া, টেক্সাস, নিউইয়র্ক, ফ্লোরিডার মতো রাজ্যগুলোয় ইলেক্টোরাল ভোটের সংখ্যা বেশি। তবে ৫৩৮ সদস্যের ইলেক্টোরাল কলেজের নিজস্ব কোনো ক্ষমতা নেই। আইন অনুসারে কোনো রাজ্যে যে প্রার্থী বেশি ভোট পাবেন, সেই রাজ্যের সব ইলেক্টোরাল ভোট যাবে সেই প্রার্থীর পক্ষে। আর এই বিধানের কারণেই মোট ভোট বেশি পেলেও ইলেক্টোরাল ভোট কম পাওয়ার নজির আছে আমেরিকায়। প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার জন্য প্রয়োজন অন্তত ২৭০টি ইলেক্টোরাল ভোট। ঘাটি হিসেবে পরিচিত রাজ্যগুলোর প্রায় দেড়শ’ করে ভোট নিশ্চিত থাকে ডেমোক্র্যাট ও রিপাবলিকান প্রার্থীদের। মূলত নির্বাচনে লড়াই চলে, বাকি ১২০-৩০টি ইলেক্টোরাল ভোটের জন্য। দোদুল্যমান থাকা, টেক্সাস, ফ্লোরিডা, পেনসিলভানিয়া, ওহাইও’র মতো ১০ থেকে ১২টি অঙ্গরাজ্য। মার্কিনীদের কাছে যেগুলো পরিচিত সুইং স্টেটস’ নামে। জনমত জরিপ বলছে, এখন পর্যন্ত সুইং স্টেটগুলোতে ট্রাম্পের চেয়ে এগিয়ে ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন। যুক্তরাষ্ট্রের সাংবাদিক এবং রাজনৈতিক বিশ্লেষক আনা ক্যাসপারিয়ান বলেন, টিভি বিতর্কের পর করোনা আক্রান্ত ট্রাম্প হোয়াইট হাউজের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্নের মুখে রয়েছেন। এর প্রভাব স্পষ্ট ভাগ্য নির্ধারণী অঙ্গরাজ্য গুলোতেও। জরিপে অ্যারিজোনা, ফ্লোরিডায়, মিশিগানসহ বেশির ভাগ অঙ্গরাজ্যে বাইডেনের চেয়ে পিছিয়ে রয়েছে ট্রাম্প। স্বাভাবিকভাবেই, প্রচারণায় সুইং স্টেটগুলোকে বেশি গুরুত্ব দেন প্রার্থীরা। শক্ত ঘাটিগুলোতে ভোটের ব্যবধান বাড়ানোর চেয়ে প্রাধান্য পায় ফল নির্ধারণী রাজ্যগুলোতে সামান্য ব্যবধানে হলেও জয়।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply