sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় বন্দুকযুদ্ধে ইয়াবা ব্যবসায়ী রোহিঙ্গা নিহত




বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ-বিজিবির সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে মো. আদহাম (৩০) নামের এক রোহিঙ্গা ইয়াবা ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। উদ্ধারকৃত ইয়াবার মূল্য এক কোটি ২০ লাখ টাকা। বুধবার (২১ অক্টোবর) ভোরে বাইশফাঁড়ির সীমান্ত পিলার ৩৫ ও ৩৬/২ এস এর মধ্যবর্তী সীমান্তের শূন্য রেখার ২০০ গজ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ইয়াবা, অস্ত্র এবং গুলিও উদ্ধার করেছে বিজিবি সদস্যরা। আদহাম (২৩) নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার তুমব্রু কোনারপাড়া রোহিঙ্গা শিবিরের আবুল হাসেমের ছেলে। কক্সবাজারস্থ বিজিবির ৩৪ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল আলী হায়দার আজাদ আহমেদ জানান, বিজিবির বাইশফাঁড়ি বিওপির সদস্যরা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারেন কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী বিপুল পরিমাণ ইয়াবা নিয়ে মিয়ানমার হতে বাংলাদেশে প্রবেশ করবে। এ তথ্য জানার পর বিজিবির দুটি চৌকস টহল দল সীমান্ত পিলার-৩৫ ও ৩৬/২এস-এর মধ্যবর্তী সীমান্তের শূন্যরেখা হতে ২০০ গজ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে দক্ষিণ বাইশফাঁড়ি মক্করটিলা হতে ১০০ গজ উত্তর দিকে রাস্তার ঢালুতে অবস্থান নেয়। পরে ভোরে ১০-১২ জনের ১টি দল পাহাড়ি এলাকা দিয়ে বাংলাদেশের দিকে আসতে দেখে তাদের চ্যালেঞ্জ করে। তাদের হাতে থাকা অস্ত্র-শস্ত্র দিয়ে টহল দলকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলিবর্ষণ শুরু করে। এ সময় টহল দল তাদের জানমাল রক্ষার্থে পাল্টাগুলি করে। একপর্যায়ে অজ্ঞাতনামা ইয়াবা ব্যবসায়ীরা পাহাড়ি জঙ্গলের মধ্য দিয়ে মিয়ানমারের ভেতরে পালিয়ে যায়। এরপর টহল দল ঘটনাস্থলে অজ্ঞাতনামা এক ব্যক্তিকে গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত অবস্থায় এবং তার পার্শ্বে ইয়াবাসদৃশ বস্তু ও দেশীয় তৈরি একনলা বন্দুক পড়ে থাকতে দেখে। তারপর আহত ব্যক্তির জীবন রক্ষার্থে চিকিৎসার জন্য উখিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আহত ব্যক্তিকে উদ্ধার করে উখিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পথে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তার নাম ও ঠিকানা পাওয়া যায়। এ ব্যাপারে আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। আর ঘটনাস্থল হতে ৪০ হাজার ইয়াবা, ১টি দেশীয় তৈরি একনলা বন্দুক ও ২ রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করা হয় বলেও জানায় বিজিবির এ কর্মকর্তা। উদ্ধারকৃত ইয়াবার মূল্য প্রায় এককোটি ২০ লাখ টাকা। উল্লেখ্য, গত ০১ জানুয়ারি হতে অদ্যাবধি পর্যন্ত চোরাচালান ও মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা করে বিজিবি টহলদল ২১ লাখ ৯৪ হাজার ৪১ পিস ইয়াবাসহ ১৭৩ জন আসামি আটক করে বিজিবি। বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম ইউনিয়নের বাইশফাড়ি সীমান্তে বর্ডার গার্ড-বিজিবির সঙ্গে বন্ধুকযুদ্ধে মো. আদহাম (৩০) নামের এক রোহিঙ্গা ইয়াবা ব্যাবসায়ী নিহত হয়েছে। সে তুমব্রু কোনাপাড়া রোহিঙ্গা শিবিরের আবুল হাশেমের ছেলে। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে একটি দেশীয় তৈরি একনলা বন্দুক, ২ রাউন্ড কার্তুজ ও ৪০ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply