sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » ইতালি জিতলো ৬-০ গোলে!




ইতালি জিতলো ৬-০ গোলে!

প্রতিপক্ষকে গুড়িয়ে দিয়ে জয়ের হাসি হাসলো ইতালি। ৬-০ গোলে হারালো মলডোভাকে। আর্তেমিও ফ্রাঞ্চি স্টেডিয়ামে টানা দুই ম্যাচে জয় নিয়ে খেলতে আসে ইতালি। রবার্তো মানচিনির অধীনে উড়তে থাকা দলটাকে নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করবার মতো কোন অবকাশ ছিলোনা এ দিনও। প্রতিপক্ষ যে একেবারেই নির্বিষ মলডোভা। তবে, ইতিহাস কিংবা র‌্যাংকিং এ ভরসা করার পাত্র নন মানচিনি। তাই তো, বিশ্রামের নামে মূল একাদশ নিয়ে খুব একটা পরীক্ষায় যান নি এ ইতালিয়ান। প্রতিপক্ষকে যথেষ্ট সমীহ করেই, ফর্মেশন সাজান তিনি। আজ্জুরিদের চিরায়ত ৪-৩-৩ ই ছিলো মলডোভা বধের কৌশলে। যদিও, ব্লুদের আটকাতে বেশ অভিনব উপায় ধরেছিলেন ফিরাত। ৩-৫-১-১ এর মতো উদ্ভট এক কৌশল নিয়ে মাঠে নামান দলকে। তবে, অভিজ্ঞতা আর তারকা দ্যুতিতে উজ্জ্বল ইতালি ছিলো দুরন্ত। তাদেরকে আটকাতে আন-অর্থোডক্স পরিকল্পনাটাও ভেস্তে যায় নিমিষেই। আধ ডজন গোলের সূচনা করেন ক্রিস্টান্টে। বোনাভেঞ্চুরার অ্যাসিস্ট থেকে ১৮ মিনিটেই গোল মুখ খুলে ফেলেন তিনি। যেটা আর বন্ধ করতে পারেনি আতিথিরা। পরের গোলের জন্য অপেক্ষা মাত্র ৫ মিনিটের। ২৩ মিনিটেই ব্যবধান দ্বিগুণ করেন কাপুতো। ৯০ মিনিটের ম্যাচটা অর্ধেক সময়েই শেষ করে ফেলার চিন্তা নিয়ে খেলতে থাকে আজ্জুরিরা। ৩০ মিনিটে এগিয়ে যায় তিন গোলে। এবার স্কোরশিটে নাম লেখান এল শারাওয়ি। ৭ মিনিট বাদে আবারো গোলের বাঁশি বাজান রেফারি। তবে এটা ইতালিয়ান কারো পা থেকে আসেনি। আত্মঘাতি গোল করে দলের যন্ত্রণা আরো বাড়িয়ে দেন পোসমাক। বিরতিতে যাওয়ার আগ মুহূর্তে ৫ম গোল পায় মানচিনি বাহিনী। স্কোরার পুরানো ঘোড়া, এল শারাওয়ি। ফিরে এসে অবশ্য ক্লান্তি ধরে ইতালিয়ানদের। গোল করার চেয়ে বল দখলে নিয়ে সময় কাটানোতেই মনোযোগ দেয় তারা। যদিও, এর মাঝেই ৭২ মিনিটে দলের হয়ে আধ ডজন গোল পূরণ করেন বেরার্দি। এরপর আর কোন গোল না হলেও, বিশাল জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ইতালি।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply