sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » প্রথমবারের মতো হোয়াইট হাউস ছাড়ার বিষয়ে ইঙ্গিত--ট্রাম্প




মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড

প্রথমবারের মতো হোয়াইট হাউস ছাড়ার বিষয়ে ইঙ্গিত দিয়েছেন। তবে তিনি প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে তাঁর পরাজয় কখনো স্বীকার না-ও করতে পারেন। এ অবস্থায় ট্রাম্প বলেছেন, সময় তাঁর পক্ষে নয়, বাকি সবকিছুই পক্ষে। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ইলেক্টোরাল কলেজ ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রার্থী জো বাইডেনকে নির্বাচিত করলে ট্রাম্প হোয়াইট হাউস ছেড়ে যাবেন বলে জানিয়েছেন। ২৬ নভেম্বর প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সাংবাদিকদের সঙ্গে সরাসরি কথা বলেন। তিনি সবাইকে ‘থ্যাংকস গিভিং’ উপলক্ষে শুভেচ্ছা জানান। ৩ নভেম্বরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের পর প্রথমবারের মতো সাংবাদিকদের সঙ্গে এভাবে সরাসরি কথা বললেন ট্রাম্প। বিজ্ঞাপন ট্রাম্প মনে করেন, নির্বাচনে জালিয়াতি হয়েছে। ট্রাম্প বলেন, ভোট জালিয়াতির কারণে নির্বাচনে পরাজয় মেনে নেওয়াটা তাঁর জন্য খুব কঠিন। কোনো প্রমাণ ছাড়াই ট্রাম্প নির্বাচনে জালিয়াতির অভিযোগ করে আসছেন। সময় তাঁর পক্ষে নয় উল্লেখ করে ট্রাম্প বলেন, বাকি সবকিছুই তাঁদের পক্ষে। ভোটে জালিয়াতি হয়েছে—এমন অভিযোগের সত্যতাও তাঁর পক্ষে বলে দাবি করেন ট্রাম্প। যদিও ঠিক কোনো প্রমাণ তাঁর কাছে আছে, তা তিনি উল্লেখ করেননি। ইলেক্টোরাল কলেজ বাইডেনকে নির্বাচিত করলে ভুল করবে বলে মন্তব্য করেন ট্রাম্প। এ নিয়ে সাংবাদিকেরা পাল্টা প্রশ্ন করলে ট্রাম্প বলেন, ‘আমার সঙ্গে এভাবে কথা বলবেন না। আমি যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট।’ নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট বাইডেনের অভিষেক অনুষ্ঠানে ট্রাম্প উপস্থিত থাকার বিষয়ে কোনো ইঙ্গিত দেননি। বাইডেনকে গত সোমবার জেনারেল সার্ভিস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন চিঠি দেয়। তারপর আনুষ্ঠানিকভাবে ক্ষমতা হস্তান্তর কার্যক্রম শুরু হয়। বাইডেন ইতিমধ্যে তাঁর প্রশাসনের কয়েকজন মন্ত্রীকে বাছাই করেছেন। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় বলেন, বাইডেন মন্ত্রিসভার জন্য লোক বাছাই করে ভুল কাজ করছেন বলে তিনি মনে করেন। একপর্যায়ে ট্রাম্প সাংবাদিকদের বলেন, করোনার টিকা নিয়ে বাইডেনকে যেন কৃতিত্ব দেওয়া না হয়। সবকিছু তাঁর তত্ত্বাবধানে হয়েছে। যা কখনো আগে হয়নি—এমন দ্রুততার সঙ্গে তিনিই সব পদক্ষেপ নিয়েছেন। অঙ্গরাজ্যগুলোর ইলেক্টোরাল কলেজ আগামী ১৪ ডিসেম্বর বসবে। প্রতিটি অঙ্গরাজ্য আনুষ্ঠানিকভাবে প্রার্থীদের পক্ষে তাদের ভোট দেবে। বিজ্ঞাপন আগামী ৬ জানুয়ারি কংগ্রেসে সব অঙ্গরাজ্যের ভোট আবার গণনা করা হবে। পেনসিলভানিয়া, মিশিগান, জর্জিয়াসহ কিছু অঙ্গরাজ্যের ভোটে কথিত অনিয়ম নিয়ে ট্রাম্পের আইনজীবীরা এখনো নানা দিকে দৌড়ঝাঁপ চালাচ্ছেন। তাঁদের এই প্রয়াস আদৌ সফল হওয়ার কোনো সম্ভাবনা কেউ দেখছে না। ট্রাম্প শিবির থেকে এখনো সুপ্রিম কোর্ট পর্যন্ত যাওয়ার প্রক্রিয়া অব্যাহত রয়েছে। সাংবাদিকদের কাছে ট্রাম্পের দেওয়া বক্তব্য নিয়ে বাইডেনের প্রচার শিবিরের মুখপাত্র মাইকেল গুইন বলেছেন, নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট (বাইডেন) ৩০৬টি ইলেক্টোরাল ভোট পেয়েছেন। অঙ্গরাজ্যগুলো ক্রমাগত ফলাফল সার্টিফাই করে যাচ্ছে। ইলেক্টোরাল কলেজ দ্রুত সভা করবে উল্লেখ করে মাইকেল গুইন বলেন, বাইডেনই আগামী ২০ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ গ্রহণ করবেন।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply