sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » বেনজেমার জোড়া গোলে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন রিয়াল




উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগে বাঁচা-মরার ম্যাচে পরিকল্পিত ফুটবল খেলে শুধু জয় নয়, সেই সঙ্গে গ্রুপ সেরা হয়েই নকআউট পর্বের টিকেট নিশ্চিত করলো রিয়াল মাদ্রিদ। গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচের আগ পর্যন্ত শেষ ষোলোতে যাওয়ার সুযোগ ছিল চারটি দলের সামনেই। তবে শঙ্কায় ছিল রিয়াল, কিন্তু এদিন করিম বেনজেমার জোড়া গোলে বরুশিয়া মনশেনগ্লাডবাখকে হারিয়ে সব শঙ্কা দূর করে পরের পর্বে স্থান করে নিল জিদান শিষ্যরা। বুধবার রাতে আলফ্রেদো দি স্তেফানো স্টেডিয়ামে ‘বি’ গ্রুপের ম্যাচটি ২-০ গোলে জিতেছে রিয়াল মাদ্রিদ। দলের হয়ে জয়সূচক দুটি গোলই করেছেন করিম বেনজেমা। তিনি ম্যাচের ৯ ও ৩১ মিনিটে গোল দুটি করেন। ঘরের মাঠে ম্যাচের ৯ মিনিটেই রিয়ালকে এগিয়ে নেন করিম বেনজেমা। এ সময় ডানদিক থেকে লুকাস ভাসকেজের ক্রসে হেড দিয়ে বল জালে পাঠান তিনি। ২৫তম মিনিটে বিপদে পড়তে পারতো রিয়াল। প্রতি-আক্রমণে গোলরক্ষক থিবো কোর্তোয়াকে একা পেয়েছিলেন আলাসাঁ প্লিয়া। তবে ফরাসি এই ফরোয়ার্ডের শট পোস্টের বাইরে দিয়ে যায়। এর ছয় মিনিট পর আরেকটি নিখুঁত হেডে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন বেনজেমা। ডান দিক থেকে একজনের বাধা এড়িয়ে রদ্রিগোর বাড়ানো দারুণ ক্রসে ঠিকানা খুঁজে নেন ফরাসি ফরোয়ার্ড। এ নিয়ে আসরে তার গোল হলো চারটি। আর ২-০ গোলে এগিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় রিয়াল। বিরতির পর অবশ্য কোনো দলই গোল পায়নি। তবে দ্বিতীয়ার্ধের চতুর্থ মিনিটে আরেকটি হেডে ব্যবধান আরও বাড়ানোর সুযোগ পেয়েছিলেন বেনজেমা। তবে এ যাত্রায় হেডে তেমন জোর দিতে পারেননি তিনি, গোলরক্ষক বেশ সহজেই ধরে ফেলেন। ৬৩তম মিনিটে টনি ক্রুসের বুলেট গতির শট ঝাঁপিয়ে কর্নারের বিনিময়ে ঠেকান গোলরক্ষক সমের। ৭৩তম মিনিটে রামোসের জোরালো হেডও ঝাঁপিয়ে ফেরান সমের। ফিরতি বলে বেনজেমার জোরালো শট বাধা পায় ক্রসবারে। পাঁচ মিনিট পর আবারও দুর্ভাগ্য বাধ সাধে; বেনজেমার পাস ডি-বক্সে পেয়ে ভাসকেসের জোরালো শট ফেরে পোস্টে লেগে। নির্ধারিত সময়ের শেষ মিনিটেও হ্যাটট্রিক পূরণের সুযোগ পেয়েছিলেন বেনজেমা, কিন্তু সমেরের বাধা পেরুতে পারেননি তিনি। হ্যাটট্রিক না মিললেও কঠিন পরিস্থিতিতে দলকে পথ দেখানোয় ম্যাচের নায়ক তিনিই। এই জয়ের মধ্য দিয়ে ১৯৯৭ সাল থেকে টানা ২৫ বছর ধরে চ্যাম্পিয়নস লিগের নকআউট পর্বে খেলার রেকর্ড গড়েছে রিয়াল। ৬ ম্যাচ থেকে ১০ পয়েন্ট সংগ্রহ করে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে শেষ ষোলোতে পা রেখেছে মাদ্রিদের ক্লাবটি। অন্যদিকে মোশেনগ্লাডবাখ হারলেও ৬ ম্যাচ থেকে ৮ পয়েন্ট ও +৭ গোল গড় নিয়ে রিয়ালের সঙ্গে শেষ ষোলোতে জায়গা করে নিয়েছে। দুই-দুইবার রিয়ালকে হারানো শাখতার দনেৎস্কের সংগ্রহ মোশেনগ্লাডবাখের সমান ৮ পয়েন্ট হলেও গোল ব্যবধানে পিছিয়ে থেকে বিদায় নিয়েছে তারা। আর বিদায় নিয়েছে ইন্টার মিলানও। শেষ ম্যাচে শাখতার দনেৎস্ক ইন্টার মিলানকে হারাতে পারলে অবশ্য সুযোগ ছিল তাদের। কিন্তু ইন্টারের মাঠে তারা জয় পায়নি। শেষ ম্যাচটি করেছে গোলশূন্য ড্র।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply