sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » বঙ্গবন্ধুর নামে পুরস্কার প্রবর্তনের সিদ্ধান্ত ইউনেসকোর




ঢাকা: জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে একটি আন্তর্জাতিক পুরস্কার প্রবর্তনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে জাতিসংঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি বিষয়ক সংস্থা ইউনেসকো। পুরস্কারটির নাম হবে ‘ইউনেসকো-বাংলাদেশ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ইন্টারন্যাশনাল প্রাইজ ইন দ্য ফিল্ড অব ক্রিয়েটিভ ইকোনমি’। ইউনেসকোর নির্বাহী বোর্ডের ২১০তম অধিবেশনে এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। এ সিদ্ধান্ত সংক্রান্ত নথি ইউনেসকোর ওয়েবসাইটেই আপলোড করা হয়েছে। এতে জানানো হয়েছে, এই পুরস্কার বিশ্বব্যাপী সৃজনশীল অর্থনীতিতে যুবকদের উদ্যোগকে পুরস্কৃত করবে। রোববার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, আমাদের আরেকটি সুখবর। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষে এ সুখবর।ইউনেসকোর ওয়েবসাইটে গেলে আপনারা এটা দেখতে পাবেন। ইউনেসকো বঙ্গবন্ধুর নামে একটি আন্তর্জা্তিক পুরস্কার প্রবর্তনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। এটির নাম ইউনেসকো-বাংলাদেশ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ইন্টারন্যাশনাল প্রাইজ ইন দ্য ফিল্ড অব ক্রিয়েটিভ ইকোনমি। মন্ত্রী বলেন, গত ১১ ডিসেম্বর সমাপ্ত ইউনেসকোর নির্বাহী বোর্ডের ২১০তম অধিবেশনে সর্বসম্মতিক্রমে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এই প্রথম জাতিসংঘের কোনো অঙ্গ সংস্থা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে একটি আন্তর্জা্তিক পুরস্কার প্রবর্তন করল।আমরা সবাই এতে গর্বিত। ইউনেসকো শিক্ষা, সংস্কৃতি, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিসহ স্বীয় অধিক্ষেত্রে বিভিন্ন অঙ্গনে অবদান রাখার স্বীকৃতিস্বরূপ সদস্য রাষ্ট্রগুলোর আর্থিক সহযোগিতায় আন্তর্জাতিক পুরস্কার প্রবর্তন করে থাকে। ইউনেসকো অধিক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে খ্যাতিমান ব্যক্তি তথা প্রতিষ্ঠানের নামে ২৩টি ইউনেসকো আন্তর্জাতিক পুরস্কার প্রবর্তিত রয়েছে। মন্ত্রী জানান, প্রতি দুই বছর পর এ পুরস্কার দেওয়া হবে। যার অর্থমান হবে ৫০ হাজার মার্কিন ডলার। পুরস্কারটি প্রথমবারের মতো ২০২১ সালের নভেম্বরে অনুষ্ঠিতব্য ইউনেসকোর ৪১ তম সাধারণ সভা চলাকালে দেওয়া হবে। ইউনেসকো তাদের কর্মকাণ্ডে নারী-পুরুষ সমতা এবং যুব উন্নয়নকে নীতিগত প্রাধান্য দিয়ে থাকে। সেদিক থেকেও এ পুরস্কার ইউনেসকোর কর্মকাণ্ডের সঙ্গে সংগতিপূর্ণ। পুরস্কার দেওয়ার ক্ষেত্রে সমাজের অনগ্রসর নারী, অভিবাসী ও প্রবাসী জনগোষ্ঠীর সৃজনশীল অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডকে প্রাধান্য দেওয়া হবে।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply