sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » মেঘনায় ট্রলারডুবিতে নববধূসহ নিহত ৭, নিখোঁজ ৮




নোয়াখালীর হাতিয়ার মেঘনা নদীতে নলেরচর থেকে ভোলার মনপুরা যাওয়ার সময় মঙ্গলবার (১৫ ডিসেম্বর) বিকেল ৩টায় ডালচর এলাকায় বর যাত্রীবাহী একটি ট্রলার ডুবির ঘটনায় ৭ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে এবং এখনও ৮ জন নিখোঁজ রয়েছেন। বুধবার (১৬ ডিসেম্বর) দুপুর সাড়ে ১২টায় নৌপুলিশের বরাত দিয়ে এ তথ্য নিশ্চিত করেন হাতিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো.ইমরান হোসেন। ইউএনও বলেন, মঙ্গলবার সন্ধ্যা পর্যন্ত নববধূ, নারী ও শিশুসহ ৭ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হলেও এখনও সাত শিশুসহ ৮ জন নিখোঁজ রয়েছেন। নিখোঁজরা হলেন- জাকিয়া বেগম (৫৫), মো. হাছান (৭), নার্গিস বেগম (৪), হালিমা (৪), লামিয়া (৩), নিহা (১), আমির হোসেন ও আলিফ। স্থানীয়দের ভাষ্যমতে, হাতিয়ার নলেরচরে বিয়ে অনুষ্ঠান শেষে বর-কনেসহ ট্রলারযোগে ভোলার মনপুরা যাওয়ার পথে ডালেরচর এসে পৌছঁলে মেঘনা নদীর তীব্র স্রোতের মুখে পড়ে ট্রলারটি ডুবে যায়। এ ঘটনায় নববধূসহ ৭ জনের লাশ উদ্ধার করা গেছে। নিহতরা হলেন- হাতিয়ার চানন্দী ইউনিয়নের থানার হাট এলাকার ইব্রাহীম সওদাগরের মেয়ে নববধূ তাছলিমা (২০), হরণী ইউনিয়নের মোহম্মদপুর গ্রামের আক্তার হোসেনের মেয়ে আসমা বেগম (১৯), সদর উপজেলার বদরপুর গ্রামের আকবর হোসেনের মেয়ে আফরিনা আক্তার লামিয়া (৯), একই এলাকার আলমগির হোসেনের মেয়ে লিলি আক্তার ( ৮), নলেরচরের কালাদুর গ্রামের ফয়জ্জুল্লার মেয়ে হোসনে আরা বেগম (৫), চানন্দী ইউনিয়নের পূর্ব আজিম নগর গ্রামের আলা উদ্দিনের স্ত্রী রাহেনা বেগম (৩০), একই এলাকার খোরশেদ আলমের স্ত্রী নুরজাহান (৬৫)। নিহত নববধূর পিতা ইব্রাহীম সওদাগর জানায়, তার মেয়ে তাছলিমার সাথে হাতিয়ার ঢালচরের বেলাল মেস্তুরীর ছেলে ফরিদ উদ্দিনের বিবাহ হয়। মঙ্গলবার তাছলিমাকে আনুষ্ঠানিকভাবে বরের বাড়ীতে নেওয়ার পথে এই দুর্ঘটনা ঘটে। নৌ-পুলিশের ইনচার্জ আকরাম উল্লাহ জানান, গতকাল দুর্ঘটনার পরপরই হাতিয়ার নৌ-পুলিশ ও কোষ্টগার্ড উদ্ধার অভিযানে নামে। তবে সন্ধ্যা নেমে আসায় উদ্ধার অভিযান থেমে যায়। বুধবার সকাল থেকে পুনঃরায় উদ্ধার অভিযান শুরু হয়। দুর্ঘটনা কবলিত ট্রলারটি উদ্ধার করে হাতিয়ার ডালচরে রাখা হয়েছে। হাতিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ইমরান হোসেন বলেন, নিহত ৭ জনের পরিবারকে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ২০ হাজার টাকা করে অনুদান দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া আরও মৃতদেহ পাওয়া গেলে তাদেরকেও অনুরুপভাবে আর্থিক সহযোগিতা দেওয়া হবে। এদিকে, আজ রাতেই তাদের মৃতদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে বলেও জানান ইউএনও।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply