sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » বাধ্যতামূলকভাবে ৭ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে ইউরোপ ফেরত যাত্রীদের’




স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক জানিয়েছেন, যুক্তরাজ্য থেকে আসা যাত্রীদের মধ্যে যাদের সঙ্গে করোনাভাইরাস পরীক্ষার ‘নেগেটিভ’ সনদ থাকবে না, তাদের বাধ্যতামূলকভাবে সাত দিন কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। আজ বুধবার (২৩ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে রাজধানীর আশকোনা হজ ক্যাম্পে ‘জিন এক্সপার্ট মেশিন ও মোবাইল ল্যাবরেটরি’ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, যুক্তরাজ্যে শনাক্ত হওয়া করোনাভাইরাসের নতুন ধরনটি যাতে বাংলাদেশে ছড়াতে না পারে, তাই সতর্কতা হিসেবে এই ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। তিনি বলেন, করোনা মোকাবিলায় আমাদের সক্ষমতা আছে, তবে নতুন নতুন ল্যাব উদ্বোধনের মাধ্যমে এ সক্ষমতা আরও বৃদ্ধি পেলো। স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, আগে ইউরোপ থেকে আসা যাত্রীদের তিন দিনের হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হতো। তাদের করোনা পরীক্ষা করা হতো। ইউরোপে করোনার নতুন ধরন দেখা দেয়ায় আমরা তিন দিনের পরিবর্তে ইউরোপ ফেরত যাত্রীদের সাতদিন করে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখবো। স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ইউরোপ, আমেরিকা, ইন্ডিয়ায় যেখানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে সেখানে আমরা নিয়ন্ত্রণে রাখতে সক্ষম হয়েছি। করোনা নিয়ন্ত্রণে আছে বলেই দেশে শান্তি রয়েছে, শৃঙ্খলার মধ্যে আমরা জীবন যাপন করছি। দেশের অর্থনীতি ভালো অবস্থানে আছে, রপ্তানির বড় খাত পোশাক খাত চালু আছে। তিনি বলেন, দেশের মধ্যে লকডাউনর পরিবেশ এখনও তৈরি হয়নি। পর্যাপ্ত বেড রয়েছে আমাদের, তবে যদি বেড বাড়ানোর প্রয়োজন হয় তাহলে আমরা আরও বাড়াবো। তিনি আরও বলেন, আমাদের অক্সিজেন সরবরাহে কোনও ঘাটতি নাই, তবে আমাদের একটা অক্সিজেন কারখানা বন্ধ থাকায় ভারত থেকে অক্সিজেন আমদানি অব্যাহত রেখেছি আমরা। পুনরায় কারখানা চালু না হওয়া পর্যন্ত এ ধারা অব্যাহত থাকবে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানার পরিচালনায় অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আবুল বাশার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম, আর্মি কোয়ারেন্টিন ইনচার্জ এবং ১৬ বীর ইনচার্জ লেফটেন্যান্ট কর্নেল সাইফ, হজ ক্যাম্প কোয়ারেন্টিন ইনচার্জ মেজর মোস্তফা, ডি এম আর ল্যাব প্রধান ফয়জুর রহমান।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply