sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » দেশেই একদিন পরিবহণ ও যুদ্ধবিমান তৈরি হবে : প্রধানমন্ত্রীর আশাবাদ




যশোরের বিমানবাহিনী একাডেমিতে আজ শনিবার রাষ্ট্রপতি কুচকাওয়াজে ভার্চুয়ালি অংশ নিয়ে বক্তৃতা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি : সংগৃহীত দেশেই একদিন পরিবহণ ও যুদ্ধবিমান তৈরি হবে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। যশোরের বিমানবাহিনী একাডেমিতে আজ শনিবার সকালে রাষ্ট্রপতি কুচকাওয়াজে ভার্চুয়ালি অংশ নিয়ে বক্তৃতাকালে এমন মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রী। এ সময় দেশপ্রেম, সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করতে বিমানবাহিনীর সদস্যদের প্রতি আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘যাঁরা নবীন কর্মকর্তা হতে যাচ্ছেন, অর্থাৎ প্রশিক্ষণ শেষ করে দায়িত্ব নিতে যাচ্ছেন, সেই দায়িত্ববোধ ও দেশপ্রেম থাকতে হবে। আর সেইসঙ্গে আত্মবিশ্বাস থাকতে হবে।’ বিমানবাহিনীর নতুন কর্মকর্তাদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নির্দেশনা, বক্তব্য বা কথাগুলো মনে রাখতে পারলে আমি মনে করি, নিজেদের সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে জীবনে প্রতিষ্ঠিত করতে পারবে এবং দেশকেও অনেক কিছু দেওয়ার সুযোগ পাবে। আমি তোমাদের সবাইকে অভিনন্দন জানাই।’ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘করোনাভাইরাসের কারণে এখন আমরা হয়তো ততটা অর্থ ব্যয় করতে পারছি না। তবে আমাদের পরিকল্পনা আছে আমাদের বিমানবাহিনীকে আরো যুগোপযোগী করে গড়ে তোলার। লালমনিরহাটে আমরা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান অ্যাভিয়েশন অ্যান্ড অ্যারোস্পেস বিশ্ববিদ্যালয় চালু করছি। এই বিশ্ববিদ্যালয়ে বিমান চলাচল, বিমান নির্মাণ নিয়ে গবেষণা হবে, চর্চা হবে। যার মাধ্যমে আমি আশা করি, হয়তো একদিন এই দেশেই পরিবহণ, যুদ্ধবিমান ও হেলিকপ্টার তৈরি হবে। মহাকাশে বিজ্ঞান চর্চা করা। হয়তো একদিন আমরা মহাকাশে পৌছেও যেতে পারি। সেই প্রচেষ্টাও আমাদের থাকবে।’ প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে কাজ করছি। আমরা জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন করছি। যদিও আমাদের যে আকাঙ্ক্ষা ছিল, জন্মশতবার্ষিকী আমরা ব্যাপকভাবে করব। করোনার কারণে সেভাবে পারিনি। ভার্চুয়ালি এবং ডিজিটাল পদ্ধতিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে যতটুকু করার ততটুকু করেছি। ২০২১ সালে আমরা স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন করব। জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী আর স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী আমরা একইভাবে উদযাপন করব।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply