sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » ‘একাত্তরের পরাজিত শক্তি বিশৃঙ্খলার ষড়যন্ত্র করছে’




একাত্তরের পরাজিত শক্তি বিশৃঙ্খলার ষড়যন্ত্র করছে’

দেশের অগ্রগতিকে বাধাগ্রস্ত করতে একাত্তরের পরাজিত শত্রুরা বিশৃঙ্খলা তৈরির অপচেষ্টা চালাচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। শনিবার (২৬ ডিসেম্বর) মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে “জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা বিনির্মাণে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ ও ডিজিটাল প্রযুক্তির সর্বোত্তম ব্যবহার” শীর্ষক ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন তিনি। এসময় প্রতিমন্ত্রী বলেন, ধর্মনিরপেক্ষতা মানে ধর্মহীনতা নয়। রাজনৈতিক কারণে ধর্মকে ব্যবহার করা যাবে না। বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করার পর থেকে ২১ বছর ধর্মকেই রাজনীতিতে ব্যবহার করে বাংলাদেশকে উন্নয়নের পথ থেকে সরিয়ে অন্ধকারের পথে নিয়ে যাওয়ার অপচেষ্টা করেছে ৭১ এর পরাজিত শক্তি, ৭৫ এর ঘাতকরা। মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাসকে তরুণ প্রজন্মের কাছ থেকে দুরে সরিয়ে রাখা হয়েছে। এসব মোকাবিলা করে প্রযুক্তি নির্ভর ডিজিটাল অর্থনীতির দিকে বাংলাদেশের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। করোনার মধ্যেও আসিয়ান ও সাউথ এশিয়ায় দুটি দেশ জিডিপি প্রবৃদ্ধি অর্জন করেছে। তারমধ্যে বাংলাদেশ একটি। প্রযুক্তি ব্যবহার করে সকল কার্যক্রম চালু রাখায় করোনার মধ্যেও মাথাপিছু আয় বেড়ে ২ হাজার ৫৯ ডলারে উন্নীত হয়েছে। জুনাইদ আহমেদ পলক আরো বলেন, বিগত ১২ বছরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা অর্থনৈতিক মুক্তির দ্বারপ্রান্তে রয়েছি। বৈষম্যমুক্ত, অন্তর্ভুক্তিমূলক সমাজ প্রতিষ্ঠায় প্রধানমন্ত্রী প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। বর্তমানে দেশের ১১ কোটি মানুষ ইন্টারনেট ব্যবহার করছে। আইসিটি সেক্টর ১০ লক্ষ ছেলে-মেয়ে কাজ করছে। ঘরে বসেই ফ্রিল্যান্সাররা বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করছে। করোনার সময় ১০ লক্ষ ই-নথি সম্পূর্ণ হয়েছে। যার মাধ্যমে সরকারের প্রশাসনিক কার্যক্রম সচল রাখা সম্ভব হয়েছে বলে তিনি জানান। এছাড়াও প্রযুক্তির কল্যাণে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, সরবরাহসহ সবকিছু সচল রাখা সম্ভব হয়েছে। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ও মুখ্য আলোচক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপাচার্য ডক্টর আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বলেন, সোনার বাংলা গড়ার জন্য সোনার মানুষ চাই । সোনার বাংলা বিনির্মাণে প্রাণশক্তি মুক্তিযুদ্ধের চেতনা উল্লেখ করে তিনি বলেন মুজিব জন্মশত শতবর্ষে আমাদের সকল আয়োজনের মূল লক্ষ্যই হচ্ছে সোনার মানুষ তৈরির করা। আরেফিন সিদ্দিক আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু কারিগরি,বৃত্তিমূলক ও বিজ্ঞান-প্রযুক্তি শিক্ষার ওপর গুরুত্ব দিয়েছিলেন। সাধারণ জনগণের মাঝে তথ্য প্রযুক্তির সুবিধা পৌঁছে দেয়া ও বঙ্গবন্ধুর জীবনাদর্শ বাস্তবায়নের মাধ্যমে স্বপ্নের সোনার বাংলা তথা প্রযুক্তি নির্ভর সাম্যের বাংলাদেশ গড়ে তোলার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান তিনি। অনুষ্ঠানে অন্যানের মধ্যে বক্তৃতা করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম, বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনেআরা বেগম, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের নির্বাহী পরিচালক পার্থপ্রতিম দেব, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এবিএম আরশাদ হোসেন, ডিজিটাল সিকিউরিটি এজেন্সির মহাপরিচালক রেজাউল করিম।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply