sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » যুক্তরাষ্ট্রে প্রথম অ্যাটর্নি হচ্ছেন একজন মুসলিম




যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথম অ্যাটর্নি হিসেবে নিয়োগ পেতে যাচ্ছেন একজন মুসলিম। তিনি হচ্ছেন পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত সায়মা মোহসিন। মিশিগানের বর্তমান অ্যাটর্নি ম্যাথু সিনডারের স্থলাভিষিক্ত হবেন তিনি। মিশিগানের পূর্বাঞ্চলীয় অঞ্চলে তিন বছর দায়িত্ব পালন করার পরে আগামী ১ ফেব্রুয়ারি পদত্যাগ করতে যাচ্ছেন বর্তমান ইউএস অ্যাটর্নি ম্যাথু সিনডার। তার বদলে দায়িত্ব গ্রহণ করবেন সায়মা মোহসিন। ৫২ বছর বয়সী সায়মা বর্তমানে পূর্ব মিশিগানের সহকারী ইউএস অ্যাটর্নি হিসাবে কর্মরত রয়েছেন। মিশিগানের বহুল প্রচারিত একটি পত্রিকা জানিয়েছে, আগামী ২ ফেব্রুয়ারি নিজের দায়িত্ব বুঝে নেবেন ৫২ বছর বয়সী সায়মা মোহসিন। তাকে নিয়ে ওই পত্রিকাটি বলেছে, এশীয় বংশোদ্ভূত একজন অভিবাসী হিসেবে একটি গুরুত্বপূর্ণ পদে বৈচিত্র্য নিয়ে আসবেন তিনি। রাজ্যের পূর্বাঞ্চলের প্রধান আইন প্রয়োগকারী কর্মকর্তাও হবেন তিনি। ২০০২ সাল থেকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাটর্নি অফিসে কর্মরত ছিলেন সায়মা মোহসিন। এছাড়া মার্কিন অ্যাটর্নি অফিসের সহিংস ও সংঘবদ্ধ অপরাধ ইউনিট, ড্রাগ টাস্কফোর্স, সাধারণ অপরাধ ইউনিট ও মার্কিন বিচার মন্ত্রণালয়েও দায়িত্ব পালন করেছেন সায়মা। যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিটি জেলার প্রধান কেন্দ্রীয় আইন প্রয়োগকারী কর্মকর্তা হলেন অ্যাটর্নিরা। এ ছাড়া দেওয়ানি মামলাগুলোতে যেখানে সরকার একটি পক্ষ, তাতেও যুক্ত থাকেন তারা। বর্তমান অ্যাটর্নি ম্যাথু সিনডার বলেছেন, ‘আমার জানা মতে সেরা ফেডারেল প্রসিকিউটরদের একজন সায়মা মোহসিন। তার হাতে এই অফিসটি ছেড়ে চলে যেতে পেরে আমি অত্যন্ত সন্তুষ্ট।’ তিনি আরও বলেন, ‘সায়মা একজন প্রগতিশীল আইনজীবী এবং একজন মেধাবী ব্যবস্থাপক।’ সায়মা মোহসিন নিউজার্সির রুটজার্স বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক এবং আইনের উপরে ডিগ্রি অর্জন করেছেন। তিনি নিউইয়র্ক সিটিতে সহকারী জেলা অ্যাটর্নি হয়েছিলেন এবং তারপরে নিউজার্সির ফৌজদারি বিচার বিভাগের পক্ষ থেকে রাজ্যের হয়ে কাজ করেছিলেন। তিনি সংগঠিত অপরাধ ও জালিয়াতির ক্ষেত্রে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। এক বিবৃতিতে সায়মা মোহসিন বলেছেন, ‘ভারপ্রাপ্ত ইউএস অ্যাটর্নি হিসাবে মিশিগানের পূর্ব জেলার নাগরিকদের প্রতি দায়িত্ব পালন করা আমার পক্ষে এক বড় সম্মানের বিষয়।’ তিনি আরও বলেন, ‘বিশ্বস্তভাবে আইন কার্যকর করা এবং সবার জন্য ন্যায়বিচার নিশ্চিত করাই আমাদের মূল লক্ষ্য। এই দায়িত্ব পালন করার জন্য আমি আন্তরিক প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।’ তবে স্থায়ী অ্যাটর্নি হিসেবে মনোনীত হতে সিনিটের অনুমোদন লাগবে সায়মা মোহসিনের।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply