sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » হংকং-এ গণতন্ত্রপন্থীদের ধরপাকড়, নিন্দা অ্যামনেস্টির




বিতর্কিত জাতীয় নিরাপত্তা আইন লঙ্ঘনের অভিযোগে হংকং-এর অর্ধশত গণতন্ত্রপন্থী কর্মী ও আইনপ্রণেতাকে আটক করেছে নিরাপত্তা বাহিনী। চীনের বিশেষায়িত অঞ্চল হংকং-এ চাপিয়ে দেয়া এই আইন কার্যকর হওয়ার পর বুধবার (৬ শনিবার) সর্বোচ্চ সংখ্যক গণতন্ত্রপন্থী আটকের শিকার হলেন। আটককৃতদের কার্যক্রমকে 'বিধ্বংসী' অ্যাখা দিয়েছেন হংকং-এর নিরাপত্তা বিষয়ক সেক্রেটারি। হংকংয়ের গণতন্ত্রপন্থী ডেমোক্রেটিক পার্টির ফেসবুক পেজে বলা হয়েছে, গ্রেপ্তার হওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে জেমস টু, লাম চেউক টিং, লেস্টার শুমের মতো বহুল পরিচিত বিরোধী নেতা রয়েছেন। আটকের ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছে মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি। যদিও চীন এ বিষয়ে কোন মন্তব্য করেনি। কঠোর সমালোচনা ও বিরোধিতা উপেক্ষা করে গত বছরের জুনে হংকংয়ে জাতীয় নিরাপত্তা আইন কার্যকর করে চীন। আইনটি কার্যকরের পর থেকেই বিরোধীদের ধরপাকড় শুরু করে। নতুন জাতীয় নিরাপত্তা আইন অনুসারে, জাতীয় নিরাপত্তাসংক্রান্ত অপরাধ সংঘটিত হলে বিচারে অপরাধীর সর্বোচ্চ সাজা হিসেবে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হতে পারে। আরো পড়ুন: ৩০০ ইহুদিকে দেশে ফিরিয়ে আনল ইসরাইল আইনে বিচ্ছিন্নতাবাদ, কেন্দ্রীয় সরকার পতন, সন্ত্রাসবাদ ও জাতীয় নিরাপত্তা বিপন্ন করতে বিদেশি বাহিনীর সঙ্গে আঁতাতমূলক যেকোনো কাজ শাস্তিমূলক অপরাধ হিসেবে গণ্য হবে। এ ধরনের অপরাধের সর্বোচ্চ শাস্তি যাবজ্জীবন কারাদণ্ড। আইনটিতে হংকংয়ের আইনসভাকে পাশ কাটিয়ে যেকোনো নিরাপত্তাসংক্রান্ত পদক্ষেপ নেওয়ার ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে। পশ্চিমারা ও গণতন্ত্রপন্থীরা বলে আসছেন, এই আইন হংকংয়ের স্বায়ত্ত্বশাসন-স্বাধীনতার ঘোর বিরোধী। আইনটি হংকংয়ের স্বাধীনতাকে গুরুতর ঝুঁকিতে ফেলেছে। এই আইন আন্তর্জাতিক আইনগত বাধ্যবাধকতারও লঙ্ঘন।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply