sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » পাকিস্তানকে হোয়াইটওয়াশ করে নিউজিল্যান্ডের বছর শুরু




জয় দিয়ে বছর শুরু করল নিউজিল্যান্ড। ছবি : সংগৃহীত নিউজিল্যান্ডের দেওয়া বিশাল টার্গেটের জবাবে ন্যূনতম লড়াইটাও করতে পারল না পাকিস্তান। পেসার কাইল জেমিসনের দুর্দান্ত বোলিংয়ের সামনে ইনিংস ও ১৭৬ রানের ব্যবধানে হেরেছে সফরকারীরা। দুই ম্যাচের সিরিজে পাকিস্তানকে হোয়াইটওয়াশ করে নতুন বছর শুরু করেছে কেইন উইলিয়ামসনের দল। এর আগে সিরিজের প্রথম টেস্টে পাকিস্তানকে ১০১ রানে হারিয়েছিল নিউজিল্যান্ড। এবার হারাল ইনিংস ব্যবধানে। ক্রাইস্টচার্চে আজ বুধবার টেস্টের চতুর্থ দিনে দ্বিতীয় ইনিংসে ১৮৬ রানেই গুটিয়ে যায় পাকিস্তান। দলের পক্ষে ব্যাট হাতে তেমন আলো ছড়াতে পারেননি কেউ। সর্বোচ্চ ৩৭ রান করেছেন আজহার আলি ও জাফর। বাকিরা কেউ ত্রিশের ঘর পার করতে পারেননি। পাকিস্তানের ব্যাটিং লাইনআপ গুড়িয়ে দিয়েছেন বোলার জেমিসন। দুর্দান্ত সুইং আর বাউন্সারে ৪৮ রান দিয়ে ছয় উইকেট নিয়েছেন তিনি। এর আগে প্রথম ইনিংসে নিয়েছেন পাঁচটি উইকেট। এক টেস্টে মোট ১১টি উইকেট নিলেন এই পেসার। কিউইদের ইতিহাসে জেমিসনের চেয়ে এত ভালো বোলিং ফিগার পেসারদের মধ্যে আছে কেবল স্যার রিচার্ড হ্যাডলির। অবশ্য দারুণ ব্যাটিংয়ে ম্যাচের ভাগ্য আগেই নির্ধারণ করে দিয়েছেন উইলিয়ামসন। তাঁর ডাবল সেঞ্চুরিতে প্রথম ইনিংসে ৬৫৯ রানের পাহাড় সমান সংগ্রহ পায় স্বাগতিকেরা। ২৩৮ রানের অসাধারণ ইনিংস খেলেছেন উইলিয়ামসন। ৩৬৩ বলে ২৮ বাউন্ডারি দিয়ে সাজানো ছিল তাঁর ইনিংস। উইলিয়ামসন ছাড়াও দারুণ খেলেছেন হেনরি নিকোলস ও ড্যারিল মিচেল। দুজনেই পেয়েছেন সেঞ্চুরি। এর মধ্য নিকোলস খেলেছেন ১৫৭ রানের ইনিংস। অন্যদিকে মিচেল করেন ১০২ রান। এই রান করার পথে টেস্ট ক্রিকেটে সাত হাজার রান করার মাইলফলক স্পর্শ করেন উইলিয়ামসন। সেটাও আবার ব্রায়ান লারা, রিকি পন্টিং, এবি ডি ভিলিয়ার্সদের চেয়েও দ্রুততম সময়ে। ছয় হাজার ৮৭৭ রান নিয়ে চলতি টেস্টটি শুরু করেন উইলিয়ামসন। এই রান করতে মাত্র এক ইনিংস সময় নিলেন তিনি। পাকিস্তানের বিপক্ষে নিজের ৮৩তম ম্যাচের প্রথম ইনিংসে নিজের লক্ষ্যে পৌঁছে যান উইলিয়ামসন। সংক্ষিপ্ত স্কোর: পাকিস্তান ১ম ইনিংস : ২৯৭ নিউজিল্যান্ড ১ম ইনিংস : ৬৫৯/৬ (ডি.) পাকিস্তান ২য় ইনিংস : ৮১.৪ ওভারে ১৮৬ (আগের দিন ৮/১) (মাসুদ ০, আবিদ ২৬,, আব্বাস ৩, আজহার ৩৭, হারিস ১৫, ফাওয়াদ ১৬, রিজওয়ান ১০, ফাহিম ২৮, গোহার ৩৭, আফ্রিদি ৭, নাসিম ০*; সাউদি ২০-৮-৪৫-০, বোল্ট ১৮.৪-৬-৪৩-৩, জেমিসন ২০-৬-৪৮-৬, হেনরি ১৫-৫-২৫-০, মিচেল ৫-১-৮-০, উইলিয়ামসন ৩-০-১৬-১)। ফল : নিউজিল্যান্ড ইনিংস ও ১৭৬ রানে জয়ী সিরিজ : ২ ম্যাচ সিরিজে নিউ জিল্যান্ড ২-০তে জয়ী ম্যান অব দ্য ম্যাচ : কাইল জেমিসন। ম্যান অব দ্য সিরিজ : কেইন উইলিয়ামসন






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply