sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » জানুয়ারির সেরার সংক্ষিপ্ত তালিকায় যারা




বিশ্ব ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি এ বছর থেকে নতুন নিয়ম চালু করেছে। প্রতিমাসের সেরা পারফর্মকে পুরস্কৃত করবে তারা। সেই মতে জানুয়ারি মাসের ‘প্লেয়ার অব দ্য মান্থ’ নির্বাচনের সংক্ষিপ্ত তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। এর মধ্য থেকে আগামী সোমবার ঘোষণা করা হবে বিজয়ীর নাম। আজ মঙ্গলবার (২ ফেব্রুয়ারি) এক বিজ্ঞপ্তিতে পুরুষ ও নারী দলের তিনজন করে মনোনীত সদস্যের নাম প্রকাশ করেছে আইসিসি। পুরুষ ক্রিকেটার হিসেবে মাসের সেরা হওয়ার দৌড়ে আছেন ভারতের ব্যাটসম্যান ঋষভ পান্ত, ইংল্যান্ডের অধিনায়ক জো রুট ও আয়ারল্যান্ডের ওপেনার পল স্টার্লিং। আর সেরা তিনে থাকা তিন নারী ক্রিকেটার হলেন- পাকিস্তানের ডায়ানা বেগ, দক্ষিণ আফ্রিকার শাবনিম ইসমাইল ও মারিজান্নে ক্যাপ। আইসিসি ভোটিং একাডেমি ও বিশ্বজুড়ে ক্রিকেট সমর্থকদের যৌথ ভোটে নির্বাচন করা হবে প্রতি মাসের সেরা ক্রিকেটার। আইসিসি ভোটিং একাডেমিতে থাকবেন জ্যেষ্ঠ ক্রীড়া সাংবাদিক, সাবেক ক্রিকেটার ও ধারাভাষ্যকাররা। তবে ভোটিং একাডেমির ভোট বিবেচনায় নেওয়া হবে শতকরা ৯০ ভাগ, আর বাকি ১০ ভাগ সমর্থকদের ভোট। শুধুমাত্র নিবন্ধিত ভক্তরা আইসিসির ওয়েবসাইটে গিয়ে প্রত্যেক মাসের প্রথম দিন ভোট দিতে পারবেন। প্রতি মাসের দ্বিতীয় সোমবার আইসিসির ডিজিটাল চ্যানেলগুলোতে প্রকাশ করা হবে বিজয়ীর নাম। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দারুণ এক সিরিজ পার করেন পান্ত। সিডনি টেস্টে ৯৭ রানের ইনিংস খেলে দলের জয়ের সম্ভাবনা জাগান ভারতের কিপার ব্যাটসম্যান। পরে ব্রিজবেনে ৮৯ রানের অপরাজিত ইনিংসে দলকে ঐতিহাসিক জয় এনে দেওয়ার পাশপাশি জেতান সিরিজও। শ্রীলঙ্কার স্পিন উইকেটে দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ের প্রদর্শনী মেলে ধরেন রুট। প্রথম টেস্টে ডাবল সেঞ্চুরি তুলে নেওয়া ইংলিশ অধিনায়ক পরের টেস্টেও জাগিয়েছিলেন ডাবল সেঞ্চুরির সম্ভাবনা। ইংল্যান্ড দুই ম্যাচের সিরিজে স্বাগতিকদের হোয়াইটওয়াশ করে। সংযুক্ত আরব আমিরাত ও আফগানিস্তান সিরিজ মিলিয়ে পাঁচটি ওয়ানডে খেলেছেন স্টার্লিং। আইরিশ এই ওপেনার টানা দুটিসহ করেন তিনটি সেঞ্চুরি। অপরদিকে নারী ক্রিকেটারদের মধ্যে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে তিন ওয়ানডে ও দুটি টি-টোয়েন্টি খেলেন ডায়ানা। তিন ম্যাচের সিরিজে এই পাকিস্তানি বোলার নেন ৯ উইকেট। এই দুটি সিরিজেই দক্ষিণ আফ্রিকার শাবনিমও সমান সংখ্যক ম্যাচ খেলে নেন ৭ উইকেট। দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে পাঁচ উইকেট পান তিনি। তার স্বদেশী অলরাউন্ডার মারিজান্নে ক্যাপ দুটি করে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি খেলেছেন পাকিস্তানের বিপক্ষে। ওয়ানডে সিরিজে ১১০.৫৭ স্ট্রাইক রেটে করেছেন ১১৫ রান এবং নেন চার উইকেট






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply