sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » তামাপিঠ লাটোরা (ইংরেজি: bay-backed shrike) বৈজ্ঞানিক নাম[76]




মহসিন আলী আঙ্গুর//

তামাপিঠ লাটোরা Lanius vittatus Bay-backed Shrike (Lanius vittatus) in Anantgiri, AP W IMG 8868.jpg L. vittatus অন্ধ্রপ্রদেশ, ভারত। সংরক্ষণ অবস্থা ন্যূনতম বিপদগ্রস্ত (আইইউসিএন ৩.১)[১] বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস জগৎ: Animalia পর্ব: কর্ডাটা শ্রেণী: পক্ষী বর্গ: Passeriformes পরিবার: Laniidae গণ: Lanius প্রজাতি: L. vittatus দ্বিপদী নাম Lanius vittatus (Valenciennes, 1826) তামাপিঠ লাটোরা (ইংরেজি: bay-backed shrike) বৈজ্ঞানিক নাম (Lanius vittatus) দক্ষিণ এশিয়ায় দেখা যায়। এটি একটি পরিযায়ী পাখি। বিবরণ L. vittatus সুলতানপুর ন্যাশনাল পার্ক গুরগাঁও জেলা হরিয়াণা, ভারত. তামাপিঠ লাটোরা পাখির দেহের দৈর্ঘ্য ১৮ সেন্টিমিটার, ওজন ২০ গ্রাম। ডানা ৮.৫ সেমি, ঠোঁট ১.৭ সেমি, পা ২.৩ সেমি আর লেজ ৮.৮ সেমি।[২] প্রাপ্তবয়স্ক পাখির পিঠ কালো, সাদা ও মেরুন রঙে বৈচিত্র্যময়। দেহের নিচের দিক সাদা। কালো লেজের আগা ও পাশ সাদা। মাথার চাঁদি ও ঘাড়ের পেছনের অংশ ফিকে ধূসর। কাঁধের পালক গাঢ় মেরুন। কোমর ও গলার পালক সাদাটে। মেয়ে পাখির মাথার চাঁদিও কালো ফিতা সরু। চোখ বাদামি, ঠোঁট কালচে বাদামি। স্বভাব ও খাদ্যাভ্যাস এই পাখির খাদ্যতালিকায় রয়েছে পঙ্গপাল, ঝিঁঝি পোকা, ফড়িং, টিকটিকি, ছোট ইঁদুর ইত্যাদি। দক্ষিণ এশিয়ার বেশকটি দেশে এই পাখিটি দেখা যায়। ভারত, নেপাল, ভুটান, ইরান, তুরস্ক, পাকিস্তান ও বাংলাদেশে এ প্রজাতির পাখি দেখা যায়। তবে নিয়মিত বাংলাদেশে আসে না। এটি বিশ্বে বিপদমুক্ত (বিপন্ন নয়) পাখি বলে বিবেচিত। এটি পরিযায়ী পাখি।[৩] তথ্যসূত্র BirdLife International (২০১২)। "Lanius vittatus"। বিপদগ্রস্ত প্রজাতির আইইউসিএন লাল তালিকা। সংস্করণ 2013.2। প্রকৃতি সংরক্ষণের জন্য আন্তর্জাতিক ইউনিয়ন। সংগ্রহের তারিখ ২৬ নভেম্বর ২০১৩। দৈনিক ইত্তেফাকের প্রতিবেদন: সেই পাখিটি ফিরে এলো ৭০ বছর পর!






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply