sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » শ্বেতদ্রোণ পাতা বেটে সেই রস সারাদেহ ভালো মাখলে চুলকানি ও চর্মরোগ ভালো হয়




শ্বেতদ্রোণ বিরুত জাতীয় সপুষ্পক উদ্ভিদ। এটি লিউকাস গণের একটি উদ্ভিদ। এদের কচি পাতা ও কাণ্ড শাক হিসেবে রান্না করে খাওয়া যায়। বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকায় এই শাকের বিভিন্ন নাম আছে। প্রাকৃতিক পরিবেশে এমনিতেই জন্মানো এই শাক চাষ করার কোনো ঘটনা জানা যায় না। শ্বেতদ্রোণ বা দণ্ডকলস মাটি থেকে সাধারণত একহাত পর্য্ন্ত লম্বা হয়ে থাকে। সাধারণত এই গাছের পাতা গাঢ় সবুজ রঙের এবং কান্ড হালকা সবুজ রঙের হয়ে থাকে। সাধারণত পরিপক্ক গাছে ধবধবে সাদা রঙের ফুল হয়ে থাকে এবং ফুলের মধু মিষ্টি হয়ে থাকে। ফুল খেকে সবুজ রঙের ফল হয় এবং এই ফল পাকলে ফলের ভেতরে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র কালো রঙের বীজ হয়ে থাকে। বীজের বংশবৃদ্ধি ঘটে। প্রচুর বীজ হয়। এর নানা ধরনের ঔষধি গুণাগুণ রয়েছে। এখন এর ঔষধি গুণাগুণ সম্পর্কে জানব। উপকারিতা কফ কাশি : কফ কাশি হলে ঘলঘসিয়ার পাতার রস ওথানকুনি পাতার রস এক সাথে খেলে উপকার পাওয়া যায়। কৃমি হলে : কৃমি হলে এই গাছের পাতার রস অল্প লবন মিশিয়ে খেলে কৃমি নাশ হয় । আমাশয় রোগ হলে : আমাশয় রোঘ খুব ক্ষতিকর। আমাশয় হলে এর পাতা নিয়ে গোলমরিচ একসঙ্গে পিষে খেলে আমাশয় রোগ ভালো হয়। কমলা রোগে : কমলা রোগ হলে প্রতিদিন এই পাতার রস খেলে ভালো হয়ে যায়। শোথ ভালো করতে : শ্বেতদ্রোণ পাতার রস গরম করে মধুর সাথে মিশিয়ে খেলে শোথ ভালো হয়ে যায়। চুলকানি ও চর্মরোগ : শ্বেতদ্রোণ পাতা বেটে সেই রস সারাদেহ ভালো মাখলে চুলকানি ও চর্মরোগ ভালো হয়।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply