sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » গাংনী উপজেলার ধানখোলা গ্রামে গম কাটাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে নারীসহ ৮ জন আহত




হয়েছেন। গতকাল শুক্রবার সকাল ৮ টার দিকে এলাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। আহতদের গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতরা হলেন, এক পক্ষের সালেহা খাতুন, মিনারুল ইসলাম, জিনারুল ইসলাম, সেন্টু হোসেন, সিরাজুল ইসলাম। অপর পক্ষের আহতরা হলেন, একই উপজেলার সানঘাট গ্রামের শাবান আলী, আসাদুল ইসলাম ও জিয়াউল ইসলাম। এ ঘটনায় হাসপাতাল চত্বরে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। আহতদের মধ্যে শাবান আলী ও আসাদুল ইসলামের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাদের কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। জমির শরীক নাহিদ হোসেন জানান, ৯ একর ১৩ শতক শরীকানা জমি নিয়ে ইকলাস মন্ডল ও ইসলাম আলীর সাথে প্রায় ৪৭ বছর মামলা চলে আসছিলো। ৪৭ বছর মামলা চলার পর মুনসেফ কোর্ট, জ্বজ কোর্ট ও হাই কোর্টের তিনটি রায় ইকলাস মন্ডলের পক্ষে হয়। পরপর তিনটি রাই পক্ষে পাওয়ায় পর জমি দখলে নেন ইকলাস মন্ডলের ছেলে তোফাজ্জেল হোসেন ও তাদের শরীকরা। চলতি মৌসুমে ওই জমিতে তারা গম রোপন করেন। গতকাল সকালে তোফাজ্জেল হোসেনের লোকজন গম কেটে বাড়ি আসার সময়, ধানখোলা গ্রামের কামরুজ্জামান, সানঘাট গ্রামের শাবান আলী ও আসাদুল ইসলামের নেতৃত্বে অর্ধশত লোকজন লাঠি শোঠা ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে নাহিদ হোসেনের বাড়ির পিছনে হামলা চালিয়ে সিরাজুল ইসলাম, সেন্টু হোসেন, জিনারুল ইসলাম, আমোদ আলী ও সালেহা বেগমকে রক্তাক্ত জখম করেন। পরে উভয় গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ সৃষ্টি হলে প্রায় আট জন আহত হন। গাংনী থানার ওসি বজলুর রহমান জানান, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। মামলা দিলে তা গ্রহন করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply