sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » » » » মন্ত্রী তাজুল ইসলাম ও প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন ঐতিহাসিক মুজিবনগর স্মৃতিসৌধের পুষ্পার্ঘ অর্পণ




গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের স্থানীয় সরকার ,পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের মাননীয়
শেষে মুজিবনগর - কলকাতা স্বাধীনতা সড়ক পরিদর্শন করেন।ভারতের সাথে এই সড়কটি বাংলাদেশের সেতুবন্ধন হিসাবে কাজ করবে এলজিআরডি মন্ত্রী মেহেরপুরের মুজিবনগরে স্বাধীনতা সড়ক পরিদর্শনে এসে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে একথা বলেন বাংলাদেশ সরকারের স্হানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী তাজুল ইসলাম তিনি বলেন বাংঙ্গালী জাতির জীবনে এই রাস্তাটির গুরুত্ব অপরিসিম ১৯৭১ সালের ১৭ ই এপ্রিল জাতীয় চার নেতা এই পথ দিয়ে এসে মুজিবনগর আম্রকাননে বাংলাদেশ প্রথম সরকার শপথ গ্রহন করে। এই পথ দিয়েই পাকিস্হানের অত্যাচার থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য এবং বাংলাদেশের মানুষের এবং সারা বিশ্বের মানুষের জনমত সৃষ্টি করার জন্য মন্ত্রী পরিষদের সদস্য বৃন্দ এই পথ দিয়ে ভারতে গিয়েছে তাই ভারতে সাথে সড়ক টি আমাদের সেতুবন্ধন হিসাবে কাজ করছে। তিনি আরো বলেন স্বাধীনতা যুদ্ধে ভারত আমাদের অভূতপূর্ব সাহায্য করেছে ১ কোটি মানুষকে আশ্রয় দিয়েছে বাংলাদেশের জন্মলগ্নে এই দু:সময়ে যারা আমাদের পাশে ছিল তাদের প্রতি কৃতগ্নতা প্রদর্শন করব কিন্তু বাংলাদেশ একটি স্বাধীন সার্বভৌম দেশ এবং সমমর্যাদার ভিত্তিতে এ দেশের বর্তমান ১৭ কোটি মানুষ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়নের অর্গযাত্রায় এগিয়ে যাচ্ছে। আমরা আমাদের দু:সময়ে যারা আমাদের পাশে ছিল তাদের আমরা স্বরণ করি তেমন গুরুত্ব দিয়ে আমাদের দেশের মানুষকেও স্বরণ করি এবং আজকে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষকীতে এবং স্বাধীনতার সূবর্ণজয়ন্ত্রীতে ভারতের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ২৬ তারিখে বাংলাদেশে আসবেন এবং ২৬/২৭ তারিখে রাস্তাটি উদ্বোধন করবেন। ভারতের সাথে চুক্তি অনুযায়ী আমাদের অংশের রাস্তা আমরা করব এবং তাদের অংশের রাস্তাটি তারার করবে ইতিমধ্যে আমাদের অংশের রাস্তটি আমরা শেষ করেছি। দ্রূততম সময়ে রাস্তটি করার জন্য তিনি এলজিডি কে ধন্যবাদ জানান। এর আগে স্হানিয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী তাজুল ইসলাম এবং মেহেরপুর ১ আসনের সংসদ সদস্য ও জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন ১০টায় ঢাকা থেকে হেলিকপ্টার সকাল সাড়ে ১১ টার সময় মেহেরপুরে মুজিবনগর মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি কমপ্লেক্স হেলিপেডে অবতরণ করেন এবং পর্যটন মোটলে প্রশাসনের পক্ষ থেকে গার্ড অফ অনার প্রদান করা হয়। গার্ড অফ অনার শেষে স্হানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী তাজুল ইসলাম এবং জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন মুজিবনগ স্মৃতিসৌধে পু্ষ্পস্তবক অর্পন করেন এবং স্বাধীনতা সড়ক ঘুরে দেখেন মেহেরপুর এক আসনের সংসদ সদস্য ও জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন তার সঙ্গে ছিলেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, মেহেরপুর জেলা প্রশাসক ড. মোহাম্মদ মুনসুর আলম খান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জামিরুল ইসলাম, এলজিডি’র নির্বাহী প্রকৌশলী আসাদুজ্জামান মুজিবনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুজন সরকার,মুজিবনগর থানা ইনচার্য (ওসি)আব্দুল হাশেম প্রমুখ। উল্লেখ্য, মুজিবনগর থেকে কলকাতা পর্যন্ত “স্বাধীনতা সড়ক” নির্মাণ করছে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়। এক কোটি চার লাখ টাকা ব্যায়ে বাংলাদেশের অংশের ৫শ মিটার রাস্তার কাজ শেষ হয়েছে।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply