sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » ক্যাচ মিস না হলে ম্যাচের চিত্রই পাল্টে যেত’




বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক তামিম ইকবাল। ছবি : সংগৃহীত ম্যাচের ৩৬তম ওভারের খেলা চলছিল তখন। পেসার তাসকিন আহমেদের বলে নিউজিল্যান্ড ব্যাটসম্যান জিমি নিশামের ব্যাট ছুঁয়ে বল চলে যায় উইকেটকিপার মুশফিকুর রহিমের হাতে। কিন্তু এই অভিজ্ঞ উইকেটকিপার বল ধরে রাখতে পারেননি। শুধু তাই নয়, তরুণ স্পিনার মেহেদি হাসানের বলে কিউই অধিনায়ক টম ল্যাথাম তুললেন ফিরতি ক্যাচ। সেখানেও ব্যর্থ। এমন কিছু ভুলে ম্যাচই হাত ছাড়া হয়ে যায় বাংলাদেশের। তাই হেরে মাঠ ছাড়তে হয়েছে লাল-সবুজের দলকে। বাংলাদেশ অধিনায়ক এই হারের জন্য কাউকে দোষ দিচ্ছেন না। তবে এই দুটি ক্যাচ ধরতে পারলে ম্যাচের চিত্রটাই পাল্টে যেত বলে মনে করেন তিনি। এ ব্যাপারে তামিম বলেন, ‘ফিল্ডাররা ক্যাচ মিস করবেই। এটি ক্রিকেটেরই অংশ। যে কেউ ক্যাচ মিস করতে পারেন। তবে এটা কখনো কখনো কষ্ট দেয়। আমরা যদি সে দুটি সুযোগ হাতছাড়া না করতাম, খেলার চিত্রটাই পাল্টে যেত।' বাংলাদেশ অধিনায়ক আরও বলেন, 'কেউ তো ইচ্ছে করে ক্যাচ মিস করেন না। নিজের অজান্তেই এটি হয়ে যায়। পরে যে সুযোগগুলো আসবে আমাদের দুই হাত দিয়ে তা কাজে লাগাতে হবে। ওয়েলিংটনে আমাদের ইতিবাচক ক্রিকেট খেলতে হবে। তাদের চেপে ধরতে হবে।’ ম্যাচে টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ছয় উইকেট হারিয়ে ২৭১ রান করে বাংলাদেশ। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৭৮ রান এসেছে তামিমের ব্যাট থেকে। ৭৩ রানে অপরাজিত ছিলেন মিঠুন। বাংলাদেশের ক্যাচ মিসের মহড়ায় সুযোগ পেয়ে নিজের লক্ষ্যে ভালোভাবেই পৌঁছে যান কিউই অধিনায়ক টম ল্যাথাম। তুলে নেন ব্যক্তিগত সেঞ্চুরি। অধিনায়কের ব্যাটে ভর করে ১০ বল বাকি থাকতেই পাঁচ উইকেটে জয় পায় নিউজিল্যান্ড। ১০১ বলে সেঞ্চুরি স্পর্শ করা ল্যাথাম শেষ পর্যন্ত ১১০ রানে অপরাজিত থাকেন। এই জয়ের সুবাদে এক ম্যাচ হাতে রেখেই ২-০ ব্যবধানে সিরিজ নিশ্চিত করল নিউজিল্যান্ড। সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচ হবে আগামী ২৬ মার্চ। দ্বিতীয় ওয়ানডের সংক্ষিপ্ত স্কোর : বাংলাদেশ : ৫০ ওভারে ২৭১/৬ (তামিম ৭৮, সৌম্য ৩২, লিটন ০, মিঠুন ৭৩*, মুশফিক ৩৪, মাহমুদউল্লাহ ১৬, মেহেদি ৭, সাইফউদ্দিন ৭*; জেমিসন ১০-২-৩৬-১, বোল্ট ১০-০-৪৯-১, হেনরি ১০-৩-৪৮-১, স্যান্টনার ১০-০-৫১-২, নিশাম ৯-০-৭৩-০)। নিউজিল্যান্ড : ৪৮.২ ওভারে ২৭৫/৫ (গাপটিল ২০, নিকোলস ১৩, কনওয়ে ৭২, উইল ইয়ং ১, ল্যাথাম ১১০*, নিশাম ৩০, মিচেল ১২*; তাসকিন ১০-০-৬৭-০, সাইফউদ্দিন ৭.২-০-৪৩-০, মুস্তাফিজ ৮.৩-০-৬২-২, মেহেদি ১০-০-৪২-২, মিঠুন ২-০-১২-০, মিরাজ ১০-১-৩৮-০)। ফল : পাঁচ উইকেটে জয়ী নিউজিল্যান্ড






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply