sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » শেয়ারবাজারে সূচক বাড়লেও লেনদেন কমেছে




দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং অপর চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবস সোমবার (১ মার্চ) সবকটি মূল্য সূচক বেড়েছে। সূচকের পাশাপাশি দুই বাজারেই লেনদেনে অংশ নেয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে। তবে ডিএসইতে কমেছে লেনদেনের পরিমাণ। অবশ্য সিএসইতে লেনদেনের পরিমাণও বেড়েছে। এ দিন শেয়ারবাজারে লেনদেন শুরু হয় বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমার মধ্য দিয়ে। ফলে প্রথম ১০ মিনিটের লেনদেনেই ডিএসইর প্রধান সূচক ৬ পয়েন্ট কমে যায়। লেনদেনের প্রথম এক ঘণ্টা দাম কমার এই প্রবণতা অব্যাহত থাকে। ফলে ১০টা ৫৪ মিনিটে ডিএসইর প্রধান সূচক ১৯ পয়েন্ট পড়ে যায়। এরপরও দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত কয়েক দফা সূচকের উত্থান-পতন হয়। তবে সাড়ে ১২টার পর বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান দরপতন থেকে বেরিয়ে দাম বাড়ার তালিকায় নাম লেখায়। লেনদেনের শেষ পর্যন্ত এ ধারা অব্যাহত থাকে। এতে দিনের লেনদেন শেষে ডিএসইতে দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে ১২৯টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট। বিপরীতে পতনের তালিকায় স্থান করে নিয়েছে ১০৫টি। আর ১১৮টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের দাম বাড়ায় ডিএসইর প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ২২ পয়েন্ট বেড়ে ৫ হাজার ৪২৬ পয়েন্টে উঠে এসেছে। অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএসই-৩০ আগের দিনের তুলনায় ১২ পয়েন্ট বেড়ে ২ হাজার ৬৯ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আর ডিএসইর শরিয়াহ্ সূচক ৬ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ২২৯ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। মূল্য সূচকের উত্থান হলেও ডিএসইতে লেনদেনের পরিমাণ কমেছে। দিনভর বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৬১৮ কোটি টাকা। আগের দিন লেনদেন হয় ৬৬০ কোটি ৬৪ লাখ টাকা। সেই হিসাবে লেনেদেন কমেছে ৪২ কোটি ৬৪ লাখ টাকা। টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে বেক্সিমকোর শেয়ার। কোম্পানিটির ৯৮ কোটি ৬৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো ৬২ কোটি ৬৩ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে। ৪১ কোটি ৩১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে রবি। এছাড়া ডিএসইতে লেনদেনের দিক থেকে শীর্ষ দশ প্রতিষ্ঠানের তালিকায় রয়েছে- লংকাবাংলা ফাইন্যান্স, জিবিবি পাওয়ার, বেক্সিমকো ফার্মা, ওরিয়ন ফার্মা, সামিট পাওয়ার, স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস এবং লাফার্জহোলসিম। অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক মূল্য সূচক সিএএসপিআই বেড়েছে ৮৩ পয়েন্ট। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৩৫ কোটি ৭৯ লাখ টাকা। লেনদেনে অংশ নেয়া ২২৬টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৯৭টির দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ৫৭টির এবং ৭২টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply