sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » বায়ার্নের মাঠে পিএসজির মধুর প্রতিশোধ




পিএসজি বনাম বায়ার্ন মিউনিখের দল। ছবি : সংগৃহীত গত আসরের ফাইনালে বায়ার্ন মিউনিখের কাছে হেরে চ্যাম্পিয়নস লিগের শিরোপা হারিয়েছে প্যারিসের ক্লাব পিএসজি। সাত মাস যেতেই প্রতিশোধ নেওয়ার সুযোগ পেয়েছে পিএসজি। তবে এবার শিরোপা মঞ্চে নয়, কোয়ার্টার ফাইনালেই বায়ার্নকে প্রতিপক্ষ হিসেবে পেয়েছে ফরাসিরা। যার প্রথম দেখায় প্রতিপক্ষের মাঠে বায়ার্নকে হারিয়ে মধুর প্রতিশোধ নিয়েছে নেইমার-এমবাপ্পেদের দল। গতকাল বুধবার রাতে আলিয়াঞ্জ অ্যারেনায় চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার-ফাইনালের প্রথম লেগে বায়ার্ন মিউনিখকে ৩-২ গোলে হারিয়েছে পিএসজি। ফরাসিদের হয়ে জোড়া গোল করেন কিলিয়ান এমবাপ্পে। বাকিটি এসেছে মার্কিনিয়োসের পা থেকে। অন্যদিকে স্বাগতিকদের হয়ে সমান একটি করে গোল করেছেন এরিক-মাক্মিম চুপো মোটিং ও টমাস মুলার। ঘরের মাঠে গতকাল ম্যাচের ৬৮ শতাংশ সময় বল দখলে রেখেও স্বস্তি মেলেনি বায়ার্ন শিবিরে। গুরুত্বপূর্ণ তারকা লেভানদোভস্কিকে ছাড়া খেলতে নামা বায়ার্ন প্রতিপক্ষে শিবিরে ৩১বার আক্রমণ করে। যার মধ্যে ১২টি ছিল অনটার্গেট শট। কিন্তু ঠিকানায় গেছে কেবল দুটি। অন্যদিকে বল দখলে পিছিয়ে থেকেও স্বস্তি নিয়ে মাঠ ছাড়তে পেরেছে ফরাসিরা। এদিন ম্যাচের শুরুতেই গোল পেয়ে যায় পিএসজি। তৃতীয় মিনিটে ডি-বক্সের মুখে ডিফেন্ডারদের ঘিরে থাকা অবস্থায় ডান দিকে ক্রস দেন নেইমার। সেখানে ছিলেন এমবাপ্পে। জোরালো শটে জাল খুঁজে নেন তিনি। এরপর ২৮ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করে পিএসজি। এই গোলেও অবদান রাখেন নেইমার। ব্রাজিল তারকার উঁচু করে বাড়ানো বল বাঁ পায়ে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে পেনাল্টি স্পটের কাছ থেকে শট নিয়ে গোল আদায় করে নেন মার্কিনিয়োস। পাল্টা আক্রমণে ৩৭ মিনিটে খেলায় ফেরে বায়ার্ন। দলের হয়ে প্রথম গোল করেন চুপো মোটিং। এরপর ৬০ মিনিটে দলকে সমতায় ফেরান মুলার। কিন্তু সমতায় ফেরার স্বস্তি বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি বায়ার্ন শিবিরে। ৬৮ মিনিটে এমবাপ্পের দ্বিতীয় গোলে জয় নিশ্চিত করে মাঠে ছাড়ে পিএসজি। ঘরের মাঠে হারায় সেমিফাইনালে যাওয়া কঠিন হবে বায়ার্নের। আগামী মঙ্গলবার হবে দ্বিতীয় লেগ। ওই ম্যাচে কমপক্ষে দুই গোলে জিততে হবে বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply