sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » বুয়েটের উদ্ভাবন, বিদ্যুৎ ছাড়াই অক্সিজেন দেবে ‘অক্সিজেট’




বুয়েটের উদ্ভাবন, বিদ্যুৎ ছাড়াই অক্সিজেন দেবে ‘অক্সিজেট’ লাগামহীন করোনাভাইরাসের দাপটে দিশেহারা বিশ্ববাসী। প্রতিদিনই মৃত্যু ও আক্রান্তের সারি দীর্ঘ হচ্ছে। তীব্র শ্বাসকষ্ট নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছে অসংখ্য মানুষ। প্রকট হচ্ছে অক্সিজেন সংকট। এমন পরিস্থিতিতে অক্সিজেন সংকট মোকাবিলায় নতুন পদ্ধতি উদ্ভাবন করেছে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) গবেষক দল। সম্প্রতি বুয়েটের গবেষকরা ‘অক্সিজেট’ নামের একটি ডিভাইস উদ্ভাবন করেছে, যেটি বিদ্যুৎ ব্যবহার না করে স্বল্পমূল্যে করোনা রোগীদের উচ্চ প্রবাহ অক্সিজেন নিশ্চিত করতে সক্ষম হবে। বুয়েটের বায়োমেডিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের তত্ত্বাবধানে ১০ মাস গবেষণা করে এটি তৈরি করা হয়েছে। যন্ত্রটি অক্সিজেন সিলিন্ডার অথবা মেডিকেল অক্সিজেনের সাথে সহজেই সংযুক্ত করে ব্যবহার করা যাবে। এটি বিদ্যুৎ ছাড়াই ৬০ লিটার পর্যন্ত অক্সিজেন প্রবাহ করতে পারবে। গবেষকরা বলছেন, যন্ত্রটি মূলত সাধারণ কোভিড ওয়ার্ডের রোগীদের উদ্দেশ্যেই তৈরি করা হয়েছে। এর ফলে রোগীদের আইসিইউতে পাঠানোর প্রয়োজন হ্রাস পাবে। যন্ত্রটি সহজেই প্রত্যন্ত অঞ্চলে সরবরাহ করা যাবে বলেও জানান তারা। ইতিমধ্যে যুক্তরাজ্যের মিডিসিনস অ্যান্ড হেলথকেয়ার প্রোডাক্টস রেগুলেটরি এজেন্সির নির্দেশিকা অনুযায়ী যন্ত্রটির পরীক্ষা চালিয়েছে বুয়েট। বাংলাদেশ চিকিৎসা গবেষণা পরিষদ বিএমআরসির অনুমোদন নিয়ে দুই ধাপের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল শেষ হয়েছে। এখন তৃতীয় ধাপ শেষ করার চেষ্টা চলছে। গবেষক দলের প্রধান ডা. তৌফিক হাসান বলেন, ডাক্তাররা যাতে ন্যূনতম প্রশিক্ষণ নিয়ে এই যন্ত্রটি ব্যবহার করতে পারে, সেভাবেই তৈরি করা হয়েছে। এটি রোগীরা হাসপাতাল এবং বাড়ি উভয় জায়গাতেই ব্যবহার করতে পারবে। তিনি আরও বলেন, আমাদের দেশের হাসপাতালগুলোতে বিদ্যুৎ সমস্যা রয়েছে। উদাহরণস্বরূপ ঢাকা মেডিকেলের সব বিছানার পাশেও বৈদ্যুতিক নির্গমনপথ নেই। এমন পরিস্থিতিতে কম খরচে উচ্চ প্রবাহের অক্সিজেন সরবরাহের ধারণা থেকে যন্ত্রটি তৈরি করা হয়েছে। বুয়েটের ভিসি প্রফেসর সত্য প্রসাদ মজুমদার বলেন, এই পদ্ধতি নিয়ে আমরা অনেক আশাবাদী। আমরা এটি সারা দেশের জন্য উন্মুক্ত করবো, যাতে সবাই উপকৃত হতে পারে। এই ধরনের উদ্ভাবনকে আমরা সব সময় উৎসাহিত করি।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply