sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » অবশেষে ফিলিস্তিনিদেরই বিজয় হয়েছে’




‘অবশেষে ফিলিস্তিনিদেরই বিজয় হয়েছে’ ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সহিংসতায় শেষ পর্যন্ত বিজয় ফিলিস্তিনিদেরই হয়েছে বলে দাবি করেছে হামাস। ইরানের পক্ষ থেকেও একই দাবি করা হয়েছে। তেহরান বলছে, আগের চেয়ে এক শক্তিশালী ফিলিস্তিনকে দেখা গেছে এই সংঘাতের সময়। যারা মাথা উঁচু করতে জানে। ফিলিস্তিনের পাশে থাকার ঘোষণাও দিয়েছে হাসান রুহানি প্রশাসন। আর ইসরায়েলি মিত্র যুক্তরাষ্ট্রের দিকে ইঙ্গিত করে রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিন বলেছেন, কেউ হুমকি হয়ে দাঁড়ালে দাঁত ভাঙা জবাব দেয়া হবে। গেল কয়েক দিনে শত শত স্থাপনা ধুলায় মিলিয়ে দিয়েছে দখলদার ইসরায়েলি বাহিনী। গণহত্যা চালিয়েছে গাজাজুড়ে। প্রাণে বাঁচতে পাল্টা প্রতিরোধ গড়ে তোলে ফিলিস্তিনিদের সংগঠন হামাস। হামাসের এমন কার্যক্রমের প্রশংসা করেছে ইরান। দেশটির রেভুলেশনারি গার্ডস প্রধান বলেন, আগের চেয়ে অনেক পোক্ত হয়েছে হামাস। যা ইতিবাচক দিক। তাদের সমর্থন দিয়ে যাবে তেহরান। রক্তের বদলা অবশ্যই নিতে হবে। মেজর জেনারেল হোসেইন সালামি বলেন, হামাস যেভাবে ইসরায়েলিদের লক্ষ্য করে কাসেম ও সিজিল রকেট ছুঁড়েছে তা সত্যিই অবাক করা। ইসরায়েলিরা এতে জবাব পেয়েছে। তাই তাদের আগ্রাসনের মাত্রা কম আসে শেষ পর্যন্ত। এরই মধ্যে ইরানের কুদস ফোর্সের কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ইসমাইল কায়ানি ফিলিস্তিনের প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের সামরিক শাখার কমান্ডারকে চিঠি পাঠিয়েছেন। মোহাম্মাদ দেইফের কাছে লেখা চিঠিতে তিনি বলেন, শত্রু ইহুদিদের বিরুদ্ধে যুদ্ধে নতুন মাত্রা এসেছে। অধিকার আদায়ে প্রচেষ্টা সবেমাত্র শুরু। হামাসও কথাই সুরে কথা বলেছে। ইসরায়েলি সামরিক বাহিনীর ভাবমর্যাদা চূর্ণ করে দিয়েছে ফিলিস্তিনিরা, এমন মন্তব্য করেছেন হামাসের পররাষ্ট্র রাজনীতি বিষয়ক প্রধান খালেদ মিশ’আল। ইসরায়েলের সঙ্গে লড়াইয়ে বিজয় দাবি করেছে সংগঠনটি। মুসলিমদের শক্তি সম্পর্কে এখন অবগত হয়েছে নেতানিয়াহু প্রশাসন। ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংকটের মধ্যেই তেল আবিবের মিত্র যুক্তরাষ্ট্রকে ইঙ্গিত করে, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, শত্রুদের ‘দাঁত ভেঙে দেয়া’ হবে। বৃহস্পতিবার রাশিয়ার এক সরকারি বৈঠকে পুতিন এই মন্তব্য করেন।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply