sponsor

sponsor

Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি

খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার

যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » » ভাবমূর্তি বাঁচাতে ভুয়ো খবর ছড়ানো হচ্ছে, একসুরে কেন্দ্রকে আক্রমণ রাহুল-প্রশান্ত কিশোরের




করোনার (Coronavirus) দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়েছে দেশে। হু হু করে বেড়ে গিয়েছে সংক্রমণের মাত্রা। সেই সঙ্গে অক্সিজেনের ঘাটতি, হাসপাতালে বেডের জন্য হাহাকার পরিস্থিতিতে আরও ভয়াবহ করে তুলেছে। এই অবস্থায় সমালোচনার মুখে পড়ে মোদি সরকার সকলকে ‘পজিটিভ’ থাকার বার্তা দিয়েছে। যাকে ঘিরে নতুন করে বিতর্ক শুরু হয়েছে। কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী (Rahul Gandhi) থেকে তৃণমূল কংগ্রেসের সদ্য ‘প্রাক্তন’ হওয়া নির্বাচনী কৌশলী প্রশান্ত কিশোর (Prashant Kishore), বিরোধীদের তোপের মুখে পড়তে হচ্ছে কেন্দ্রকে। বুধবার সকালে করা এক টুইটে কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী তোপ দাগেন মোদি সরকারকে। তিনি তাঁর টুইটারে লেখেন, ‘‘সদর্থক ভাবনার এই সান্ত্বনা স্বাস্থ্যকর্মী ও সেই সব পরিবারের কাছে ঠাট্টার মতো শোনায় যাঁরা নিজেদের আপনজনদের হারিয়েছেন এবং অক্সিজেন, হাসপাতাল ও ওষুধের ঘাটতিতে ভুগেছেন। বালির মধ্যে মুখ গুঁজে রাখাটা সদর্থকতা নয়। এটা দেশবাসীর সঙ্গে প্রবঞ্চনা।’’ [আরও পড়ুন: কোথায় মিলবে টিকার দ্বিতীয় ডোজ? তালিকা দিল রাজ্য] এদিকে প্রশান্ত কিশোরও তাঁর টুইটে আক্রমণ করেছেন কেন্দ্রকে। তাঁর অভিযোগ, সদর্থকতা বা পজিটিভিটি ছড়ানোর নামে মিথ্যে কথা ও প্রোপাগান্ডা ছড়াতে চেষ্টা করছে সরকার। তিনি লেখেন, ‘‘পজিটিভ হতে গেলে সরকারের অন্ধ স্তাবক হওয়ার প্রয়োজন পড়ে না।’’ দেশে তো বটেই, আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের কাছে সম্প্রতি বারবার সমালোচিত হয়েছে মোদি সরকার। বলা হয়েছে, করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের আঘাত সামলাতে ‘ব্যর্থ’ কেন্দ্র। এই পরিস্থিতিতে ক্রমশই অস্বস্তি বেড়েছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (PM Modi) ও তাঁর সরকারের। এই পরিস্থিতিতে সরকার কী কী ‘পজিটিভ’ কাজ করছে তা তুলে ধরতে চাইছে কেন্দ্র। গত সপ্তাহে বহু উচ্চপদস্থ সরকারি অফিসারদের একটি ওয়ার্কশপও করানো হয় এই নিয়ে। সেই সঙ্গে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীরা বারবার টুইট করছেন অক্সিজেন এক্সপ্রেসের মতো পদক্ষেপের জয়গান গেয়ে। সম্প্রতি বিজেপির জাতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা কংগ্রেসের অন্তর্বর্তী সভাপতি সোনিয়া গান্ধীকে চিঠি লিখেও অভিযোগ করেছেন যে, কংগ্রেস নেতারাই করোনা পরিস্থিতিতে ভুয়ো খবর ছড়াচ্ছেন।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply