sponsor

sponsor


Slider

বিশ্ব

জাতীয়

রাজনীতি


খেলাধুলা

বিনোদন

ফিচার


যাবতীয় খবর

জিওগ্রাফিক্যাল

ফেসবুকে মুজিবনগর খবর

» » » টাইটানিকে কেট উইন্সলেটের চুল রহস্য ফাঁস




কেট উইন্সলেট। আলোচিত ‘টাইটানিক’ সিনেমার নায়িকা তিনি। সোনালি চুলের এই তারকা দর্শক মহলে স্থান করে নিয়েছিলেন সেই ‘টাইটানিক’ সিনেমা দিয়ে। যেখানে তার অর্থাৎ রোজের (কেট উইন্সলেট) চুলের রং ছিল লাল। বাস্তবে এই হলিউড অভিনেত্রীর চুলের রং সোনালি। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে তিনি চুল নিয়ে বিশেষ অভিজ্ঞতার কথা জানালেন। কেট উইন্সলেট সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, চুলের আসল রং ফিরে পেতে তাকে অপেক্ষা করতে হয়েছে প্রায় দুই বছর। ‘রোজের চুলের রং কী হবে, চিত্রনাট্যে স্পষ্ট করে বলা ছিল না। সেই চুলের রং নিয়ে পরিচালক জেমস ক্যামেরনের সঙ্গে আমার আলাপের কথা স্পষ্ট মনে আছে। তিনি জিজ্ঞেস করেছিলেন, ‘তুমি কী মনে করো, যদি আমরা চুলের রং লাল করি? এই লাল হবে তীব্র ও অস্বাভাবিক।’ লাল চুলের সেই রোজ পরে সারা বিশ্বের দর্শক হৃদয়ে রোমান্সের রং ছড়িয়েছিল। কে জানত, সিনেমায় অভিনয়ের পরে সেই স্বর্ণকেশ ফিরে পেতে তাকে অপেক্ষা করতে হবে প্রায় দুই বছর। তিনি বলেন, ‘বুঝিনি, শ্যুটিংয়ের পরে আসল চুল ফিরে পেতে এতটা কষ্ট হবে।’ কেট আরও বলেন, ‘আমার চুল আসলে ঢেউ খেলানো নয়। প্রতিদিনই চুলে ভাঁজ আনতে হতো। কিন্তু চুলের ভাঁজ ঠিক রাখা অসম্ভব হয়ে পড়ত। কারণ, সেটজুড়েই পানি আর পানি। অনেকগুলো পানির ট্যাংকে শ্যুটিং করি। প্রায়ই চুলে পানি লেগে যেত। প্রত্যেক দিন চুল ঠিক রাখতেই সমস্যায় পড়ে যেতাম।’ উল্লেখ্য, টাইটানিক যখন মুক্তি পায়, কেটের বয়স তখন ২১। সেই সময় তাকে নিয়ে গণমাধ্যমের চুলচেরা বিশ্লেষণ তাকে মানসিকভাবে বেশ পীড়া দিয়েছিল। সে কথা স্মরণ করে এখনো তিনি শিউরে ওঠেন। তাই সিনেমাটি মুক্তির পরে নিজেকে গুটিয়ে ফেলা শুরু করেন কেট। তিনি জানান, রাত-দিন যেন এক হয়ে গিয়েছিল। ব্যক্তিগত জীবন ও দৈহিক গড়ন আলোচনার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছিল।






«
Next
Newer Post
»
Previous
Older Post

No comments:

Leave a Reply